দুদিন ‘তা’ণ্ডব’ করেও কারোর শাস্তি হল না, নিরীহ পোস্ট করে গারদে ঐশ্বানী

256
দুদিন 'তা'ণ্ডব' করেও কারোর শাস্তি হল না, নিরীহ পোস্ট করে গারদে ঐশ্বানী
দুদিন 'তা'ণ্ডব' করেও কারোর শাস্তি হল না, নিরীহ পোস্ট করে গারদে ঐশ্বানী

দুদিন ‘তা’ণ্ডব’ করেও কারোর শাস্তি হল না; আর নিরীহ একটি পোস্ট করে গারদে ঢুকে গেল ঐশ্বানী নামে এক যুবতী। শুক্রবার সন্ধ্যায় ঐশ্বানী নামে ঐ তরুণীর একটি ফেসবুক পোস্ট-কে কেন্দ্র; উ’ত্তাল হয়ে ওঠে মুর্শিদাবাদের বেলডাঙা থানা এলাকা। এলাকা সূত্রে জানা গেছে, অঙ্কুরহাটির জাতীয় সড়ক অবরোধ ও হাওড়ার বিভিন্ন স্থানে, অ’শান্তির খবর দেখে; একটি ভিডিও শেয়ার করে ঐশ্বানী। তারপরেই সংখ্যা’লঘু সম্প্র’দায়ের লোকজন; বেলডাঙা থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখায় ও থানায় ভাং’চুর করে।

শেষ পর্যন্ত ঐশ্বানী-কে, গ্রেফতার করতে বাধ্য হয়; বেলডাঙা থানার পুলিশ। কিন্তু একটি আসল ভিডিও শেয়ার করে; কি লিখেছিল ঐশ্বানী? অঙ্কুরহাটির ঘটনার প্রেক্ষিতে সে লেখে যে; “ওরা রাগের মাথায় ভাঙ’চুর না করে দেশ ছেড়ে পালিয়ে গেলেও তো পারে”। আর সেই পোস্টের পর ওই তরুণীর শাস্তির দাবিতে; সরব হয় সংখ্যা’লঘু সম্প্র’দায়ের লোকজন। বেলডাঙা থানা ঘিরে, পুলিশকে লক্ষ্য করে; তারা ইট’বৃষ্টি করে। থানার পুলিশকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখায়; বিশেষ একটি ধর্মা’বলম্বী মানুষজন।

দুদিন 'তা'ণ্ডব' করেও কারোর শাস্তি হল না, নিরীহ পোস্ট করে গারদে ঐশ্বানী
দুদিন ‘তা’ণ্ডব’ করেও কারোর শাস্তি হল না, নিরীহ পোস্ট করে গারদে ঐশ্বানী

আরও পড়ুনঃ সংখ্যা’লঘুদের ‘তা’ণ্ডব’ সামলাতে ব্যর্থ রাজ্য সরকার, সেনা নামিয়ে ‘ঠাণ্ডা’ করার আর্জি

বেলডাঙায় পুলিশকে ঘিরে ইট-বৃষ্টির ঘটনা, সামাল দেবার জন্য; পুলিশ জমায়েত ভ’ঙ্গ করতে টিয়ার গ্যাসের শেল ফাটায়। শুক্রবার সন্ধ্যায় র’ণক্ষেত্রের চেহারা নেয়; বেলডাঙা থানা চত্বর। বেলডাঙা থানায় মুর্শিদাবাদ পুলিশ জেলার, একাধিক উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের উপস্থিতিতে; ওই বিশেষ ধর্মা’বলম্বী মানুষদের সঙ্গে বৈঠক করে জমায়েত ভ’ঙ্গ করা হয়। এবং সংখ্যা’লঘু সম্প্র’দায়ের দাবি মতন; ওই তরুণীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

আরও পড়ুনঃ জাতীয় সড়ক অবরোধে প্রশাসন চুপ, কলকাতা হাইকোর্টে দায়ের জনস্বার্থ মামলা

পোস্টটা খুবই সামান্য ছিল; পুলিশ প্রথমে কোন গুরুত্বই দেয়নি। স্থানীয় মুস’লিমরা মেয়েটার পোস্ট দেখে; শ-দেড়েক ছেলে নিয়ে থানা ঘেরাও করলে; পুলিশ বাধ্য হয়ে মেয়েটাকে গ্রেফতার করে। এখানেই উঠেছে পুলিশ-প্রশাসনের সদিচ্ছা নিয়ে প্রশ্ন।

দুদিন ধরে তা’ণ্ডব দেখিয়েও, একটি সম্প্রদায়ের কোন শাস্তি হল না; কিন্তু একটি নিরীহ পোস্ট করে, গারদে চলে গেল একটি অন্য সম্প্রদায়ের এক যুবতী। এই নিয়ে মুখ খোলেনি; বেলডাঙা থানার পুলিশ। মুর্শিদাবাদ জেলার কোন পুলিশ আধিকারিকও; কোন মন্তব্য করতে চাননি।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন