তাজপুরে গভীর বন্দর তৈরির অনুমতিপত্র দেওয়া হল আদানি গ্রুপের হাতে

90
তাজপুরে গভীর বন্দর তৈরির অনুমতিপত্র দেওয়া হল আদানি গ্রুপের হাতে
তাজপুরে গভীর বন্দর তৈরির অনুমতিপত্র দেওয়া হল আদানি গ্রুপের হাতে

তাজপুরে গভীর বন্দর তৈরির অনুমতিপত্র দেওয়া হল আদানি গ্রুপের হাতে। নিউটাউনের ইকো পার্কে বিজয়া সম্মিলনীতে, আনুষ্ঠানিকভাবে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে তাজপুরে গভীর বন্দর তৈরির অনুমতিপত্র তুলে দেওয়া হল আদানি গ্রুপের হাতে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, আদানি গোষ্ঠীর চেয়ারম্যান গৌতম আদানির পুত্র আদানি পোর্টসের সিইও করণ আদানি। তাঁর হাতে অনুমতিপত্র তুলে দেন, রাজ্যের শিল্পমন্ত্রী শশী পাঁজা। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী ও মুখ্যসচিবও।

তাজপুরে একটি গভীর সমুদ্র বন্দর তৈরির উদ্যোগ, নেওয়া হয়েছিল আগেই। ধাপে-ধাপে সেই কাজ এগিয়েছে। আগেই এই বন্দর তৈরিতে আগ্রহ দেখিয়েছিলেন, শিল্পপতি গৌতম আদানি। তাঁর সঙ্গে নবান্নে, বেশ কয়েকবার বৈঠকও করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। পরে রাজ্য মন্ত্রিসভার সবুজ সংকেত পেয়ে, আদানি গোষ্ঠীর হাতেই তুলে দেওয়া হয় তাজপুর বন্দর নির্মাণের দায়িত্ব।

তাজপুর সমুদ্র বন্দর তৈরি হলে, যেমন জলপথে বাণিজ্যের পথ আরও প্রশস্ত হবে, কর্মসংস্থানও বৃদ্ধি পাবে, তেমনই হলদিয়া বন্দরের উপর থেকে চাপও অনেকটাই কমবে। তাই তাজপুর বন্দর ঘিরে আশা বাড়ছিল, এবার সেই চুক্তি সম্পূর্ণ হল। পূর্ব মেদিনীপুরের তাজপুরে, বঙ্গোপসাগরে তৈরি হচ্ছে গভীর সমুদ্রবন্দর। এখন পর্যন্ত যা খবর, সব মিলিয়ে এতে ২৫ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করছে আদানি গ্রুপ।

রাজ্য সরকারের দাবি, এই গভীর সমুদ্রবন্দর তৈরি হলে সরাসরি ২৫ হাজার কর্মসংস্থান হবে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “রাজ্যের মূল লক্ষ্য শিল্প ও কর্মসংস্থান, এই গভীর বন্দর তৈরি হলে কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে নতুন দিগন্ত খুলে যাবে”।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন