অভিষেকের নেতৃত্বে আসছে নতুন তৃণমূল, তাহলে পুরনো তৃণমূল-টার কি হবে

58
অভিষেকের নেতৃত্বে আসছে নতুন তৃণমূল, তাহলে পুরনো তৃণমূল-টার কি হবে
অভিষেকের নেতৃত্বে আসছে নতুন তৃণমূল, তাহলে পুরনো তৃণমূল-টার কি হবে

অভিষেকের নেতৃত্বে আসছে নতুন তৃণমূল, তাহলে পুরনো তৃণমূল-টার কি হবে? এটাই এখন প্রশ্ন রাজু জুড়ে। ‘নতুন তৃণমূল’, দক্ষিণ কলকাতা জুড়ে অভিষেকের ছবি দিয়ে রহস্যময় হোর্ডিং, মমতা বাদ। আর তারপরেই শুরু জোর জল্পনা। চাকরি চুরি কাণ্ডে বা এসএসসি দুর্নীতি কাণ্ডে ইডি’র হাতে গ্রেফতার হয়ে, এখন জেলে রয়েছেন তৃণমূলের মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রিয় আরেক ‘হেভিওয়েট’ নেতা, বীরভূমের জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল এখন গরু চুরি মামলায় সিবিআই হেফাজতে। বিরোধীরা তৃণমূলের এই দুর্নীতি ইস্যুতে, তৃণমূলকে প্রতিদিন সমালোচনা করছে, তৃণমূলের সবাই চোর বলে। আর এই সময়েই, দক্ষিণ কলকাতা জুড়ে এই অদ্ভুত হোর্ডিং।

বিরোধী বিজেপি ও বাম নেতারা প্রশ্ন তুলেছেন, “নতুন তৃণমূল আসছে অভিষেকের হাত ধরে, তাহলে মমতার পুরনো তৃণমূলটা কি উঠে যাবে”? হাজরা ও রাসবিহারী মোড়ে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি দেওয়া হোর্ডিংয়ে লেখা রয়েছে, ‘আগামী ছ-মাসের মধ্যেই সামনে আসবে নতুন তৃণমূল। ঠিক যেমন সাধারণ মানুষ চায়’। কালীঘাটে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির ঠিক উল্টোদিকে রাস্তার উপর লাগানো আরেকটা হোর্ডিংয়ে লেখা রয়েছে, ‘মানুষ যেভাবে চায়, সেভাবেই তৈরি হচ্ছে তৃণমূল’।

হোর্ডিংয়ে ছবি শুধুমাত্র অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের, কোথাও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি নেই। সব হোর্ডিংয়ে লেখা ‘নতুন তৃণমূল’ এই শব্দ। তারপরেই শোরগোল রাজ্য রাজনীতিতে। তাহলে পুরনো তৃনমূলটার কি হবে? প্রশ্ন তুলেছেন বিজেপি ও বাম নেতারা। তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষ জানিয়েছেন, “অভিষেকের বক্তব্যকে সামনে রেখেই, কেউ হোর্ডিং দিয়েছেন। খুব স্বাভাবিক বিষয়”।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন