পৃথিবীর দ্বিতীয় ব্যক্তি এইডস মুক্ত হলেন

318
The News Bangla British Man Free from HIV/The News বাংলা
এইচআইভিমুক্ত হলেন ব্রিটিশ রোগী/The News বাংলা

চিকিৎসা বিজ্ঞানে ঘটল আরও একটি যুগান্তকারী ঘটনা। দ্বিতীয় আরেকজন ব্রিটিশ রোগীকে মরণব্যাধি এইডসের ভাইরাস এইচআইভি মুক্ত করা গেছে। এই কাজটি করা হয়েছে স্টেম সেল প্রতিস্থাপনের মাধ্যমে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি ও মার্কিন টেলিভিশন চ্যানেল সিএনএনের প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানান হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ ভোটের আগে ভারতবাসীকে নতুন উপহার মোদীর

যুক্তরাজ্যের বিজ্ঞানবিষয়ক সাময়িকী ‘ন্যাচার’ এ-সংক্রান্ত একটি নিবন্ধ প্রকাশ করেছে। ওই নিবন্ধটি মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটলের চিকিৎসা বিষয়ক এক সম্মেলনে উপস্থাপন করা হবে। তবে সঙ্গত কারণে রোগীর নাম-পরিচয়, বয়স ও জাতীয়তা গোপন রাখা হয়েছে। তার নাম দেয়া হয়েছে ‘লন্ডন পেশেন্ট’ অর্থাৎ লন্ডনের রোগী।

আরও পড়ুনঃ ভারতের চাপে মাথা নত করল পাকিস্তান

প্রকাশিত নিবন্ধ অনুযায়ী বেশকিছু বিজ্ঞানী জানিয়েছেন, ‘লন্ডন পেশেন্ট’ নামের ওই রোগী এইডসের ভাইরাল ইফেক্শন থেকে এখন মুক্ত। তাদের এমন পদ্ধতি বিশ্বে ৩ কোটি ৭০ লাখ এইডস আক্রান্ত রোগীর ওপর প্রভাব ফেলবে। এমন সাফল্য মানুষকে এইডস নির্মূলে আশাবাদী করে তুলবে বলেও জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

আরও পড়ুনঃ মোদীকে হত্যা কর, কংগ্রেস নেতার প্রকাশ্য নির্দেশ

কেমোথেরাপির মাধ্যমে তার ক্যান্সার চিকিৎসা করা হয় ও পাশাপাশি এইচআইভি প্রতিরোধী এক ব্যক্তির কাছ থেকে অনুদান হিসেবে পাওয়া স্টেম সেল তার শরীরে প্রতিস্থাপন করা হয়। চিকিৎসায় ক্যান্সার ও এইচআইভি উভয় রোগেরই উপশম হয়েছে।

এই ঘটনাটি ঘটেছে প্রায় ১২ বছর পর। ২০০৭ সালে আমেরিকার টিমোথি আর ব্রাউনের শরীরে থাকা এইচ আই ভি সম্পূর্ণ নির্মূল করতে সক্ষম হয় চিকিৎসকেরা। তার চিকিৎসা হয় জার্মানীতে। তাই তাকে ‘বার্লিন পেশেন্ট’নাম দেওয়া হয়। তাকেও স্টেম সেল প্রতিস্থাপনের মাধ্যমে এইডস ভাইরাসমুক্ত করা হয়েছিল।

আরও পড়ুনঃ ভারতীয় সাবমেরিনের ভয়ে কাঁপছে পাকিস্তান

চিকিৎসক দলের নেতৃত্ব দিয়েছেন ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডনের অধ্যাপক রবীন্দ্র গুপ্তা। তিনি রোগীর শরীর থেকে এইচআইভি ভাইরাস নির্মূলের খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘আগের মতো পদ্ধতি ব্যবহার করে দ্বিতীয় একজনকে এইচআইভি থেকে উপশম করা সম্ভব হয়।’

আরও পড়ুনঃ মুম্বাই হামলার মত ফের জলপথে জঙ্গি হামলার ছক

তিনি বলেন, ‘তবে এ সাফল্যের মানে এই নয় যে, এইচআইভি থেকে আরোগ্য লাভের চিকিৎসা পদ্ধতি আবিষ্কৃত হয়েছে। এ ঘটনার মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে, বিজ্ঞানীরা একদিন এইডস নির্মূল করতে পারবেন।’

আরও পড়ুনঃ জঙ্গিদের সরাসরি সেনাবাহিনীতে নিচ্ছে ইমরানের পাকিস্তান

অধ্যাপক রবীন্দ্র গুপ্তা বলেন, ‘আমি ও আমার সহকর্মীরা ওই ব্যক্তির অবস্থা পর্যবেক্ষণ করছি। তবে এখনই বলা সম্ভব হচ্ছে না যে তিনি সুস্থ হয়ে গেছেন। ২০০৭ সালে যে রোগীর শরীর থেকে এইচআইভি নির্মূল করা হয়েছিল তিনি এখন ভাইরাসমুক্ত।’

আরও পড়ুনঃ ম্যাডাম খুব তাড়াতাড়ি যুদ্ধ বিমানে বসতে চাই, নির্মলাকে অভিনন্দন

লন্ডন প্যাসেন্ট তাঁর এক বয়ানে জানায়ে, “আমি ভাবতেও পারিনি আমি এক নতুন জীবন পাব। আমি চিকিৎসকদের সাহায্য করব যাতে ভবিষ্যতে আরও অনেক মানুষ আমরা মত দ্বিতীয় জীবন পেতে পারে”।

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন