লোকসভা ভোটের আগে ফের গুরুংকে নিয়ে লড়াই বিজেপি- তৃণমূলে

516
The News বাংলা

The News বাংলা, শিলিগুড়িঃ পাহাড় নিয়ে ফের একবার সামনা-সামনি মমতা-মুকুল। বুধবারই মমতার ‘দ্বিমুখী নীতি’র বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে মুখ খুলেছিলেন মুকুল রায়। বৃহস্পতিবার সেই কটুক্তির পাল্টা দিলেন আর এক পাহাড়ি বিনয় তামাং।

আরও পড়ুনঃ রথযাত্রার আগেই ষাঁড়ের তাড়া খেলেন মুকুল রায়

গোটা রাজ্যে বিজেপির আসন্ন রথযাত্রা কার্যক্রমের প্রস্তুতি পর্বের বৈঠক করতে শিলিগুড়িতে এসে বুধবার রাজ্য সরকারের সমালোচনায় বিমল গুরুং-এর প্রকাশ্যে আসার প্রসঙ্গে জোর সাওয়াল করেন মুকুল রায়। মুখ্যমন্ত্রীর সমালোচনা করে তিনি বলেন, “যেখানে বিনয় তামাং এবং বিমল গুরুঙ দুজনাই একই কেসের আসামী, সেখানে বিনয় তামাং বাইরে ঘুরে বেরাবে আর বিমল গুরুং অন্তরালে থাকবে কেন?”

Image Source: Google

মুকুল রায় প্রশ্ন তোলেন, “মমতা ব্যানার্জি মুখ্যমন্ত্রী সাথে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীও। যে কেসে গুরুং জড়িত, সেই একই কেসে বিনয় তামাঙের নামও আছে। অথচ বিনয় তামাং যদি প্রকাশ্যে বাইরে থাকতে পারে, তাহলে বিমল গুরুংকে কেন লুকিয়ে থাকতে হবে? দার্জিলিঙে বিনয় তামাঙের সঙ্গে রাজ্যের সম্পর্ক ভালো বলে তাকে গ্রেপ্তার করবে না পুলিশ?” সেইসঙ্গে মুকুলবাবু ক্ষোভ প্রকাশ করে আরও বলেন, “পাহাড়ে গোর্খাকে বিভাজন করা, এটা অত্যন্ত অনৈতিক কাজ করেছে মমতা বন্দোপাধ্যায়”।

Image Source: Google

আরও পড়ুনঃ ‘আন্তর্জাতিক’ ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে কাউন্সিলরের ‘বিজ্ঞাপন’, বিক্ষোভে মুখ পুড়ল বাংলার

তিনি আরও জানান, ‘বিজেপি চায় বিমল গুরুং প্রকাশ্যে আসুক। রাজনৈতিক কর্যক্রমে অংশ নিক’। সব মিলিয়ে পাহাড় সহ সমতলে নিজেদের শক্তি বুঝে পেতেই পাহাড় ও সমতলের নেতাদের সাথে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন বিজেপির পশ্চিমবঙ্গ শাখার নির্বাচন কমিটির চেয়ারম্যান মুকুল রায়। সুত্রের খবর, পাহাড়ের বৈঠকে কর্মীদের মুকুল রায় পরিষ্কার জানিয়ে দেন, গুরুং-এর সঙ্গেই জোট বেঁধেই দার্জিলিং আসনটিতে এবারেও জয় নিশ্চিত করতে চায় বিজেপি।

Image Source: Google

একই কেসে অভিযুক্ত হয়ে বিনয় তামাং প্রকাশ্যে আর বিমল গুরুং অন্তরালে বলে মুকুল রায়ের বক্তব্যকে এবার পাল্টা দিলেন বিনয় তামাং। বৃহস্পতিবার শিলিগুড়ির শিমুল বাড়িতে এক অনুষ্ঠানে বিনয় তামাং বলেন, “আমার ওপরেও ২১৯টা কেস রয়েছে। কিন্তু যখন কোর্ট আমাকে তলব করে, তখনই আমি কোর্টে যাই। আমার ওপরেও বেশ কিছু নন বেলেবেল কেস ছিল। কিন্তু আমি কোর্টকে সম্মান জানিয়ে এন্টিসেপটারি বেল নিয়েছি, এবং আত্মসমর্পন করেছি। যাই হোক না কেন কোর্টে আসতে হবে, এন্টিসেপেটারি বেল নিতে হবে। কিন্তু বিমল গুরুঙ, রোশন গিরিদের গ্রুপটা বেআইনি কাজ করেছে তাই পালিয়ে গেছে”।

আরও পড়ুনঃ ‘কলকাতা আন্তর্জাতিক ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল’ তুমি কার ?

The News বাংলা

সেইসঙ্গে জিটিএতে নতুন বোর্ড ভেঙে দিতে চাইছে বলে মুকুল রায়ের বক্তব্যকে চালেঞ্জ জানিয়ে বিনয় তামাং বলেন, “এখন জিটিএ-তে যে উন্নয়নের কাজ হচ্ছে তা আরটিআই করে দেখতে পারেন। আগে যেখানে উন্নয়ন হয় নি। সেখানে আজ ব্যপক উন্নয়ন হচ্ছে”। সেইসঙ্গে বিমল গুরুং এর সুপ্রিম কোর্টে রিলিফ কেসের মুকুলবাবুর বক্তব্যকে কটাক্ষ করে বিনয় তামাং বলেন, “মুকুলবাবু জানেনই না যে, গত বছর বিমল গুরুং-এর সেই কেসের রিলিফ প্রে রিজেক্ট করে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট”।

বলা যায়, লোকসভা ভোটের আগে বিমল গুরুংকে নিয়ে ফের সরগরম পাহাড়ের রাজনীতি। লোকসভা ভোটের আগে ফের গুরুংকে নিয়ে লড়াই শুরু বিজেপি বনাম তৃণমূলে।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন