ভোট প্রচারে হেলিকপ্টার পাচ্ছেন না মমতা, অভিযোগের তীর কেন্দ্রের দিকে

463
ভোট প্রচারে হেলিকপ্টার পাচ্ছেন না মমতা, অভিযোগের তীর কেন্দ্রের দিকে/The News বাংলা
ভোট প্রচারে হেলিকপ্টার পাচ্ছেন না মমতা, অভিযোগের তীর কেন্দ্রের দিকে/The News বাংলা

ভোটের প্রচারের জন্য কেন্দ্রের মোদী সরকারের চাপে হেলিকপ্টার পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ করল তৃণমূল কংগ্রেস। বহুবার বলেও দেশের বড় বড় কোন সংস্থাই নির্বাচন প্রচারের জন্য বাংলায় শাসকদল তৃণমূলকে হেলিকপ্টার ভাড়া দিতে রাজি হয়নি বলেই অভিযোগ। আর এর পিছনে নরেন্দ্র মোদী সরকার কলকাঠি নেড়েছে বলেই অভিযোগ মমতার তৃণমূল কংগ্রেসের।

আরও পড়ুনঃ রমজানের রোজা পালন করে ভোটারদের পাশে থাকবেন, নির্বাচনী প্রচারে জানালেন মিমি

বাংলায় চলতি লোকসভা প্রচারের জন্য বেশ কয়েকমাস ধরেই হেলিকপ্টার ভাড়া নেবার চেষ্টা চলছে তৃণমূলের তরফ থেকে। মমতা ব্যানার্জী ও তাঁর দলের অন্যান্য নেতা-নেত্রী বা স্টার প্রার্থী ও অভিনেতা অভিনেত্রীরা যাতে কম সময় বেশি জায়গায় প্রচার চালাতে পারে তার জন্যই এই মুহূর্তে হেলিকপ্টার এর প্রয়োজন তৃণমূলের।

আরও পড়ুনঃ ভারতীর পর এবার মমতাকে নিজের মা বললেন মিমি

কিন্তু দলের বক্তব্য অনুযায়ী, কোন ‘অজানা’ কারণে তৃণমূলকে হেলিকপ্টার দিতে রাজি হয়নি কোন সংস্থাই। প্রসঙ্গত, নিয়মিত হেলিকপ্টার চালাতে হলে কেন্দ্রীয় সরকারের অনুমতি লাগে। তৃণমূলের অভিযোগ কেন্দ্রীয় সরকারের চাপেই সংস্থাগুলো বাংলায় তৃণমূলকে হেলিকপ্টার দিতে রাজি হচ্ছে না। এমনকি কয়েক মাস আগে দেওয়া অগ্রিম টাকাও ফিরিয়ে দিয়েছে সংস্থা গুলি। তবে কপ্টার সংস্থা গুলো এই নিয়ে মুখ খুলতে রাজি হয় নি।

আরও পড়ুনঃ হুমকি দিয়ে ভোট চাইবার ভিডিও প্রকাশ্যে, মিমির হয়ে শাসানি পঞ্চায়েত প্রধানের

রবিবার অন্ধপ্রদেশে প্রচারের উদ্দেশ্য গেছিলেন মমতা ব্যানার্জী, সেখানে চন্দ্রবাবুর সাথে তাঁর কথা হয় কপ্টার নিয়ে। চন্দ্রবাবু তেলেগু দেশম এর প্রচারের জন্য একাধিক হেলিকপ্টার ভাড়া নিয়েছেন। যেগুলো বেশ আধুনিক। ১১ এপ্রিল অন্ধ্রপ্রদেশে নির্বাচন শেষ হচ্ছে। মমতা ব্যানার্জী অনুরোধ করেন তারপর ওই হেলিকপ্টার গুলো যেন বাংলায় তৃণমূল এর নির্বাচনী প্রচারের উদ্দেশ্যে পাওয়া যায়। মমতাকে আশ্বাস দিয়ে চন্দ্রবাবুও এ ব্যাপারে চেষ্টা করবে বলে জানিয়েছেন।

আরও পড়ুনঃ জম্মু কাশ্মীরের জন্য আলাদা রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী চাইলেন ওমর আবদুল্লা

নির্বাচন প্রচারের জন্য এই মুহূর্তে মাত্র চারটি হেলিকপ্টার ভাড়া পেয়েছে তৃণমূল। কিন্তু সেগুলো বেশ পুরোনো, তাদের গতিও যথেষ্ট কম। তাছাড়া এই হেলিকপ্টার গুলি আয়তনে এতই বড় যে প্রত্যন্ত এলাকায় সেগুলো নিয়ে ঘুরে প্রচার চালানো বেশ কষ্টকর। তাছাড়া এই কাপ্টার গুলোর নামার জন্য বেশ বড় হেলিপ্যাড প্রয়োজন, যা তৈরি করা বেশ অসুবিধাজনক।

আরও পড়ুনঃ বিবেক দুবেকে তৃণমূলের এজেন্ট বলে কটাক্ষ মুকুল রায়ের

২০১৯ নির্বাচনের আগে প্রচারের ২০০৭ সালে তৈরি ১৭ বছরের পুরনো এই হেলিকপ্টারই এখন প্রচারে ভরসা তৃণমূলের। যা সাধারণত তৃণমূলের তরফে ব্যবহার করা হয়।

আরও পড়ুনঃ আদালত নাক গলাবে না, শুক্রবারেই রিলিজ হচ্ছে নরেন্দ্র মোদীর বায়োপিক

তবে কেন্দ্রের বঞ্চনার কথা উড়িয়ে দিয়েছেন বিজেপি নেতারা। সব বিষয়েই সরকার বা দলকে অভিযোগের কেন্দ্রে আনা ঠিক নয় বলেই মন্তব্য বিজেপি নেতাদের। তাদের অভিযোগ, বাংলাতেও বিরোধীরা সরকারের চাপে বাস ভাড়া পর্যন্ত পায় না।

আরও পড়ুনঃ বাংলায় ৭ পর্বের ভোটে ঝড় তুলতে ১০ দিন জনসভা করবেন মোদী

তবে এই নিয়ে ভোটের প্রচারে এখনও পর্যন্ত কোন ইস্যু করে নি তৃণমূল। তবে মমতার আগামী প্রচারসভাগুলোতে হেলিকপ্টার ইস্যু উঠতেই পারে, বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

আরও পড়ুনঃ দলের প্রার্থীকে জেতালেই পুরষ্কার সোনার গহনা, বিদেশ ভ্রমনের টিকিট

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন