বুলডোজার দিয়ে উর্দু গেট উড়িয়ে দিল যোগী সরকার

859
বুলডোজার দিয়ে উর্দু গেট উড়িয়ে দিল যোগী সরকার/The News বাংলা
বুলডোজার দিয়ে উর্দু গেট উড়িয়ে দিল যোগী সরকার/The News বাংলা

আবারও সাম্প্রদায়িক রাজনীতির অভিযোগ উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী তথা হিন্দুত্বের পোস্টার বয় যোগী আদিত্যনাথের সরকারের বিরুদ্ধে।

৬ই মার্চ বুধবার উত্তরপ্রদেশের রামপুর জেলায় সমাজবাদী পার্টির নেতা আজম খানের তৈরি একটি তোরণ বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দেয় রামপুর জেলা প্রশাসন। আর তার পরিপ্রেক্ষিতেই শুরু হয়েছে বিতর্ক।

মতুয়াদের বড়মার মৃত্যু রহস্যজনক, চাঞ্চল্যকর অভিযোগ

তোরণটি “উর্দু গেট” নামে পরিচিত। এই গেট মূলত মোহাম্মদ আলী জওহর ইউনিভার্সিটির মূল প্রবেশ দ্বার হিসেবে গড়ে তুলেছিলেন সমাজবাদী পার্টির নেতা আজম খান, যা যোগী প্রশাসনের কোপে পড়ে গুঁড়িয়ে গেলো গত বুধবার।

হিন্দুত্বের রাজনীতি করার অভিযোগ যোগীর বিরুদ্ধে আজ প্রথম নয়। এর আগেও মুঘলসরাই স্টেশনের নাম পরিবর্তন করে দীনদয়াল উপাধ্যায়ের নামে করেছেন যোদী আদিত্যনাথ, এলাহাবাদের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে ‘প্রয়াগরাজ’। রাস্তা দখল করে নামাজ পাঠ করার বিরুদ্ধেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।


কংগ্রেস নেতা দিগ্বিজয় সিং এর রাস্তায় হাঁটলেন বিজেপি নেতা

উর্দু গেটের ব্যাপারে সরকারি তরফে বিবৃতি জারি করে বলা হয়েছে, ঐ জায়গাটিতে জনসাধারণের ব্যবহারের জন্য একটি রাস্তা ছিল এবং জায়গাটি সরকারের প্রকল্পের জন্য সংরক্ষিত। ক্ষমতায় থাকাকালীন সরকারি জমি বেআইনী ভাবে দখল করে উক্ত তোরণটি নির্মাণ করা হয় বলে অভিযোগ।

দেশদ্রোহী আখ্যা পেয়েও নিজের বক্তব্যে অনড় কংগ্রেস নেতা

রামগড় জেলা প্রশাসক এ কে সিং এই বিষয়ে বলেন, উর্দু গেট বেআইনী ভাবে প্রশাসনের কোনো পরামর্শ না নিয়েই নির্মাণ করা হয়েছে এবং এক্ষেত্রে কোনও নিয়ম মানাও হয়নি।

সরকারি রিপোর্টে বলা হয়েছে, এই রাস্তা মূলত উত্তরপ্রদেশ ও উত্তরাখন্ড রাজ্যের মধ্যে একটি সংযোগস্থল, যা সাধারণত বাইক আরোহীরাই ব্যবহার করতো। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য তোরণটি নির্মাণ করার পরেই সমস্যার সূত্রপাত হয়। উল্লেখ্য, স্থানটি জনবহুল হওয়ায় তোরণটি তৈরির পর থেকেই ব্যাপক যানজটের শিকার হতে হয়।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন