ভাইরাল ছবির জেরে ‘দুধের বাচ্চা’ নিয়ে বদলি মহিলা পুলিশ

14
Image Source: Google

ঝাঁসি: ‘দুধের বাচ্চা’ নিয়ে কাজে এসে যোগীর রাজ্যে বদলির সুযোগ পেলেন এক মহিলা পুলিশ কর্মী। সৌজন্যে ভাইরাল ছবি। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের ঝাঁসির কোতোয়ালি পুলিশ থানায়। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল, বাচ্চা নিয়ে মায়ের কাজ করার ছবি। আর তারপরেই টনক নড়ে পুলিশ কর্তাদের।

একদিন আগেই ভাইরাল হয়ে যায় ঝাঁসির কোতোয়ালি থানার মহিলা কনস্টেবল অর্চনা জয়ন্তের ছবি। ছবিতে দেখা যাচ্ছে ওই মহিলা পুলিশ কর্মী অফিসে চেয়ারে বসে কাজ করছেন। আর সামনে একটা টেবিলের মত জায়গায় শুয়ে আছে তাঁর ছোট্ট শিশু সন্তান। পাশে একটা দুধের ফিডিং বোতল।

Image Source: Google

আর এই ছবিই ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। শুরু হয়ে যায় বিতর্ক। এই বিতর্ক থামাতেই মহিলা কনস্টেবল অর্চনা জয়ন্তকে ঝাঁসি থেকে আগ্রাতে ‘সুবিধাজনক বদলি’ করে দেওয়া হয়। আগ্রাতে ওই পুলিশ কর্মীর বাবা-মা থাকেন।

আরও পড়ুন: রাম মন্দির না বাবরি মসজিদ, লড়াই পিছিয়ে গেল

উত্তরপ্রদেশ পুলিশের ডেপুটি ডাইরেক্টর জেনারেল ওম প্রকাশ সিং জানিয়েছেন কনস্টেবল অর্চনা জয়ন্তকে আগ্রাতে বদলি করা হয়েছে, যেখানে তাঁর বাড়ির লোকজন থাকেন। ফলে তাঁকে আর বাচ্চা নিয়ে, কষ্ট করে কাজে আসতে হবে না।

কনস্টেবল অর্চনা জয়ন্ত ও তাঁর ছোট্ট মেয়েকে দেখে সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই তাঁকে একবিংশ শতাব্দীর নারী বলে অভিহিত করেছেন। অর্চনা জয়ন্ত নিজেও জানিয়েছেন, দেশের সব পুলিশ লাইনেই একটা করে ক্রেশ থাকা দরকার তাহলে সেখানে বাচ্চাকে খুব ভালোভাবে রেখে, কাজ করতে পারবেন মহিলা পুলিশ কর্মীরা।

আরও পড়ুন: রামকৃষ্ণ বিবেকানন্দের রামকৃষ্ণ মিশন ছেড়ে বিপ্লবী হন এই নারী

অর্চনা জয়ন্ত ও তাঁর একরত্তি মেয়ের ভাইরাল হওয়া ছবি দেখে বিস্মিত হন উত্তরপ্রদেশ পুলিশের ডেপুটি ডাইরেক্টর জেনারেল ওম প্রকাশ সিং। খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন কনস্টেবল অর্চনা জয়ন্ত একজন কাজ-প্রিয় কর্মী। ছোট মেয়ে থাকা সত্তেও তিনি কোন চাইল্ড কেয়ার লিভ নেন নি। কাজ করাকেই আগে গুরুত্ব দিয়েছেন।

Image Source: Google

এরপরেই উত্তরপ্রদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল এর সঙ্গে কথা বলেন তিনি। ওই কনস্টেবলকে এক হাজার টাকা পুরস্কারও দেওয়া হয়। তারপরই ওই মহিলা কনস্টেবলকে তাঁর পরিবারের কাছে আগ্রাতে বদলির জন্য সুপারিশ করা হয়। তা সঙ্গে সঙ্গে অনুমোদনও হয়ে যায়।

অর্চনা ২০১৬ থেকেই ঝাঁসিতে কাজ করছেন। তাঁর বড় মেয়েও কানপুরে তাঁর শ্বশুর বাড়ির লোকজনের সঙ্গে থাকেন। তাঁর নিজের পরিবার থাকেন আগ্রাতে। কনস্টেবলদের হোম ডিস্ট্রিক্ট এ পোস্টিং দেওয়া হয় না। কিন্তু বিয়ের সূত্রে অর্চনা এখন কানপুরের বাসিন্দা। তাই তাঁকে আগ্রাতে পোস্টিং দেওয়া হয়েছে যেখানে তাঁর বাবা-মা থাকেন।

আরও পড়ুন: নেতাদের কথা নয়, জীবন দর্শন নিয়ে মনে রাখুন কালামের উক্তি

আগ্রা বদলি হবার পর একরত্তি মেয়েকে নিয়ে আপাততঃ হাঁফ ছেড়ে বাঁচলেন কনস্টেবল অর্চনা জয়ন্ত। তবে সবসময় তাঁকে সাহায্য করার জন্য, ঝাঁসিতে তাঁর কলিগদের ধন্যবাদ দিতে ভোলেন নি তিনি।

একটা ভাইরাল ছবি অর্চনার সমস্যার সমাধান করে দিল। কিন্তু, গোটা দেশের যে সমস্ত মহিলা এই সমস্যায় ভুগছেন তাদের কি করে সমস্যার সমাধান হবে ? ভরসা কি সেই সোশ্যাল মিডিয়ার ভাইরাল ছবি ?! প্রশ্ন কিন্তু উঠছে।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন