বাঁচার সম্ভাবনা নেই, বিমান দুর্ঘটনায় ১৮৯ জনেরই মৃত্যুর আশঙ্কা

393
Image Source: Google

ইন্দোনেশিয়া: সোমবার সকালে মাঝ সমুদ্রে ভেঙে পড়ে একটি বোয়িং বিমান। ইন্দোনেশিয়ায় দুর্ঘটনার কবলে পড়ে একটি বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স ৮ যাত্রী বিমান। ওড়ার ১৩ মিনিটের মধ্যে বিমানটির সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। কিছুক্ষনের মধ্যেই বিমানটি ভেঙে পড়ে বলে প্রাথমিক অনুমান। সব নিয়ে বিমানটিতে ১৮৯ জন মানুষ ছিল।

Image Source: Google

সোমবার সকালেই বড়সড় বিমান দুর্ঘটনা ঘটে। ভেঙে পড়ে একটি লায়ন এয়ার প্যাসেঞ্জার ফ্লাইট। এটি একটি বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স ৮ যাত্রী বিমান ছিল বলে জানা গেছে। জাকার্তা থেকে বিমানটি পাংকল পিনাঙ্গ এ যাচ্ছিল।

আরও পড়ুন: সাতসকালে ভয়ঙ্কর বিমান দুর্ঘটনা

বিমানটি সমুদ্রের উপরই ভেঙে পড়ে বলে মনে করছে ইন্দোনেশিয়ার নিরাপত্তা সংস্থা। বিমান সংস্থার মুখপাত্র ইউসুফ লতিফ জানিয়েছেন, বিমানটি সমুদ্রে ভেঙে পড়েছে। পরে জানা যায়, বিমানটিতে ১৮৯ জন মানুষ ছিলেন। কতজন যাত্রী মারা গেছেন সেই নিয়ে প্রথমে তিনি কোন মন্তব্য করতে চান নি। তবে কারোরই আর বেঁচে থাকার কোন সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

Image Source: Google

ইন্দোনেশিয়ার গোয়েন্দা সংস্থা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। কি করে এই দুর্ঘটনা ঘটল তা খতিয়ে দেখছে তারা। গোটা জাভা সমুদ্র জুড়ে বিমানটির ভাঙা টুকরো ভাসছে। যা উদ্ধার করেছে উদ্ধারকারী দল। উদ্ধারকারী দলের প্রাথমিক অনুমান বিমানটিতে বিস্ফোরণ হয়েছে।

Image Source: Google

আরও পড়ুন: মহাকাশ লড়াইয়েও ভারতের কাছে হারছে পাকিস্তান

কিন্তু জাকার্তা থেকে পাংকল পিনাঙ্গ যাওয়ার পথে বিমানটি কিভাবে ও কেন সমুদ্রের দিকে গেল তাও ভেবে পাচ্ছেন না উদ্ধারকারী দল বা বিমান কর্তৃপক্ষ। উদ্ধারকারী দলের তরফ থেকে বিমানের ধ্বংসাবশেষ উদ্ধার করা হচ্ছে। কোন যাত্রীর বেঁচে থাকার আর কোন সম্ভাবনা নেই বলেই জানানো হয়েছে। বিমানে থাকা ১৮৯ জনেরই মৃত্যু হয়েছে বলেই মনে করা হচ্ছে।

Image Source: Google

বিমানটির পাইলট ছিলেন একজন ভারতীয়। নাম ভাভে সুনেজা। ৩১ বছরের ক্যাপ্টেন ভাভে সুনেজা এই বিমান দুর্ঘটনায় মারা গেছেন বলে জানান হয়েছে। ১৮৮ জন যাত্রী নিয়ে তিনিই চালাচ্ছিলেন ওই অভিশপ্ত বিমানটি।

Image Source: Google

জাকার্তার ভারতীয় দূতাবাস থেকে ভারতীয় পাইলটের মৃত্যুর খবর জানানো হয়েছে। তাঁর স্ত্রী গরিমা শেঠি স্বামীর মৃত্যুর খবর শুনে শোকে কাতর হয়েছেন। নভেম্বরের ৫ তারিখেই পাইলট ভাভে সুনেজার দেশে ফেরার কথা ছিল। তার আগেই তাঁর মৃত্যু সংবাদ পৌঁছালো তাঁর বাড়িতে। ২০১১ সাল থেকে Lion Air এর সঙ্গে যুক্ত ভাভে সুনেজা।

আরও পড়ুন: ফের ভাঙছে হিমবাহ, ভয়ঙ্কর বিপদের মুখে পৃথিবী

Image Source: Google

কি কারণে বিমানটি মাঝ সমুদ্রের দিকে গেল বা কি ভাবে তাতে বিস্ফোরন হল তা নিয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে। বিমানটি নিয়ে এর আগেও সমস্যায় পড়তে হয়েছিল বলেই অন্য পাইলটরা বলছেন। সমস্যা থাকা বিমানটি সরানো হয়েছিল কিনা তাও তদন্তে দেখা হচ্ছে।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন