“দ্বিতীয় বিয়ে করলে, প্রথম স্ত্রী সঙ্গে নাও থাকতে পারেন”, মুসলিম বিয়ে নিয়ে রায় আদালতের

81
"দ্বিতীয় বিয়ে করলে, প্রথম স্ত্রী সঙ্গে নাও থাকতে পারেন", মুসলিম বিয়ে নিয়ে রায় আদালতের

“দ্বিতীয় বিয়ে করলে, প্রথম স্ত্রী সঙ্গে নাও থাকতে পারেন”, মুসলিম বিয়ে নিয়ে রায় আদালতের। দেশের মুসলিম পুরুষদের বিয়ে নিয়ে, এবার নতুন রায় দিল এলাহাবাদ আদালত। আদালতের তরফে রায় দেওয়ার সময়, কোরানে থাকা আয়াতের উদ্ধৃতিও তুলে ধরা হয়। বলা হয়, কোনও মুসলিম পুরুষ মনে করলেই, দ্বিতীয়বার বিয়ে করতে পারে না। কারণ কোরানে বলা হয়েছে যে কোনও ব্যক্তি যদি স্ত্রী-সন্তানদের লালনপালন না করে, তাহলে সে দ্বিতীয়বার বিয়ে করার জন্য যোগ্য নয়।

আদালতের তরফে বলা হয়, কোরানে ৪ নম্বর সুরার ৩ নম্বর আয়াতের ধর্মীয় আদেশ অনুসারে, বিবাহিত স্ত্রীর সঙ্গে মুসলিম পুরুষদের ন্যায়সঙ্গত আচরণ করতেই হবে। একজন মুসলিম পুরুষ যদি তাঁর স্ত্রী ও সন্তানদের লালন-পালন করতে সক্ষম না হন, তাহলে পবিত্র কোরানে লিখিত আদেশ অনুসারে, সে অন্য কোনও নারীকে বিয়েও করতে পারবে না।

এলাহাবাদ হাইকোর্টের একটি মামলা আসে। সেই মামলায় বলা হয়েছিল যে, এক মুসলিম ব্যক্তি তাঁর দাম্পত্য অধিকার নিয়ে ফ্যামিলি কোর্টে মামলা করেছিল। সেখানে এই দ্বিতীয় বিয়ের বিষয়টি উঠে আসে। এলাহাবাদ হাইকোর্ট এই মামলাটি খারিজ করে দেয়। দেখা যায় ওই মুসলিম ব্যক্তি, গোপনে দ্বিতীয়বার বিয়ে করেছিলেন।

আরও পড়ুনঃ বিজেপির মুখে হাসি, শিবসেনার নির্বাচনী প্রতীক কেড়ে নিল নির্বাচন কমিশন

সে কথা তিনি তাঁর প্রথম স্ত্রীর কাছে, পুরোপুরি গোপনও করেছিলেন। যদিও তিনি চেয়েছিলেন, দুজনের সঙ্গেই সমান ভাবে দাম্পত্য সম্পর্ক বজায় রাখতে। তবে এর বিরোধিতা করে তাঁর প্রথম স্ত্রী। তিনি সাফ জানিয়ে দেন, অন্য মহিলার সঙ্গে যদি তাঁর স্বামী থাকে, সেক্ষেত্রে তিনি আর তাঁর স্বামীর সঙ্গে থাকবেন না।

দু’পক্ষের মত শুনেই এলাহাবাদ আদালত সিদ্ধান্ত নেয়, ওই মুসলিম ব্যক্তির আর্জি খারিজ করার। এলাহাবাদ হাইকোর্টের তরফে বলা হয়, মামলাকারী ওই মুসলিম ব্যক্তি, নিজের প্রথম স্ত্রীর কাছে সত্য গোপন করে, দ্বিতীয়বার বিয়ে করেছিলেন, যা মিথ্যের সমান। পাশাপাশি এই ধরণের আচরণ, তাঁর প্রথম স্ত্রীর প্রতি নিষ্ঠুর আচরণেরও সমতুল্য।

আদালত এ প্রসঙ্গে আরও বলেছে, যদি এই ঘটনার ক্ষেত্রে প্রথম স্ত্রী তাঁর স্বামীর সঙ্গে থাকতে না চান, তাহলে তাঁকে জোর করে বা বাধ্য করা যাবে না। যা বলছে কোরানে লিখিত ধর্মীয় আদেশ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন