নারদা-সারদার মূল পান্ডাকে কোলে নিয়ে ঘুরছেন মোদী, দিনভর তরজা মুকুল মমতার

401
নারদ-সরদার মূল পান্ডাকে কোলে নিয়ে ঘুরছেন মোদী, সারাদিন তরজা মুকুল মমতার/The News বাংলা
নারদ-সরদার মূল পান্ডাকে কোলে নিয়ে ঘুরছেন মোদী, সারাদিন তরজা মুকুল মমতার/The News বাংলা

রবিবার উত্তরবঙ্গে লোকসভা প্রচারে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর সভা ঘিরে রাজনৈতিক পারদ ছিল চড়া। একই দিনে উত্তরবঙ্গে নিজ নিজ রাজনৈতিক প্রচারে একে অপরের উদ্দেশ্য ছুড়লেন একের পর এক তোপ। কিন্তু এদিন সবকিছুকে ছাপিয়ে গেল মুকুল-মমতা তরজা।

আরও পড়ুনঃ বারাসাত কেন্দ্রের বিজেপি ভোট প্রার্থী নিজেই কোনদিন ভোট দেননি ভারতে

রবিবার উত্তরবঙ্গের ফালাকাটার মমতা ব্যানার্জী বলেন, মোদী নিজে নারদ-সারদা নিয়ে চিৎকার করে করে করছেন অথচ নিজেই ওই সব কেলেঙ্কারির মূল পান্ডাকে কোলে নিয়ে ঘুরছেন। অর্থাৎ নাম না করেই এদিন মুকুল রায় কে নারদ-সারদা মামলায় অভিযুক্ত আসামী বলে দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুনঃ সব বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী না থাকলে ভোট বন্ধ করে দেবার হুমকি লকেটের

মমতা এদিন উত্তরবঙ্গের জনসভায় আরো বলেন , জনগণের টাকা কোথায় আছে তা হাওয়ালা বাঁশিওয়ালা জানে। ওই বাঁশিওয়ালা প্রকাশ্যে ডিএম, এসপিদের ভয় দেখাচ্ছে। এত সাহস একজন গদ্দারকে প্রধানমন্ত্রী দিচ্ছেন বলেও মন্তব্য করেন মমতা ব্যানার্জী।

আরও পড়ুনঃ ভারতীয়দের বাঁদরের সঙ্গে তুলনা করলেন রাহুলের গুরু পিত্রোদা

প্রসঙ্গত,একদা তৃণমূলের প্রথম শ্রেণীর নেতা মুকুল রায়কে অনেকদিন থেকেই নাম না নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী ‘গদ্দার’ বলে উল্লেখ করে থাকেন। রবিবার ও তিনি বলেন কোন গদ্দার বা ডাকাতের হাতে বাংলাকে তিনি তুলে দেবেন না।

আরও পড়ুনঃ লাইভ ডিবেটে অসহিষ্ণুতা, সঞ্চালক ও বিজেপি নেতার দিকে গ্লাস ছূঁড়লেন কংগ্রেস নেতা

রবিবার সন্ধ্যায় এক সাংবাদিক বৈঠকে মমতা ব্যানার্জীর নাম করেই মুকুল রায় বলেন, ‘মমতা দেবীর সাহস নেই আমার নাম করার। তাই নাম না করে তিনি ভিত্তিহীন অভিযোগ করেছেন’। মুকুল রায় চ্যালেঞ্জ জানান যে তিনি সারদা কেলেঙ্কারিতে যুক্ত আছেন যদি কেউ প্রমান করতে পারে তাহলে তিনি রাজনীতি ছেড়ে দেবেন। মুকুল রায় দাবি করেন নিজাম প্যালেসে এবং ডেলোতে দুবার তার সাথে সুদীপ্ত রায়ের দেখা হয়েছে আর দুবারই তার সাথে মমতা ব্যানার্জী ছিলেন।

আরও পড়ুনঃ হিন্দুধর্ম নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে থানায় অভিযোগ দায়ের উর্মিলার বিরুদ্ধে

মুকুল রায় বলেন ‘নারদা’ বিচারাধীন একটি মামলা তাই সেটা নিয়ে তিনি বেশি কথা বলবেন না। সাথে তিনি এও বলেন নারদায় যেমন তাকে দেখা গেছে তেমনই কাকলি ঘোষ দস্তিদার, ফিরহাদ হাকিম, অপরুপা পোদ্দার কেও দেখা গেছে। অর্থাৎ নিজেকে বাঁচাতে এখন মুকুলের অস্ত্র তৃণমূলের নেতা নেত্রীদের দিকে অভিযোগের আঙ্গুল তোলা।

আরও পড়ুনঃ ভোটের মুখে তৃণমূল সভাপতির বাড়ি থেকে উদ্ধার অস্ত্র ও কোটি কোটি টাকা

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন