প্রাথমিকে চাকরির নামে কোটি টাকা প্রতারণা, তৃণমূল উপপ্রধান ঠকালেন নিজের জামাইকেও

303
প্রাথমিকে চাকরির নামে কোটি টাকা প্রতারণা, তৃণমূল উপপ্রধান ঠকালেন নিজের জামাইকেও
প্রাথমিকে চাকরির নামে কোটি টাকা প্রতারণা, তৃণমূল উপপ্রধান ঠকালেন নিজের জামাইকেও

প্রাথমিকে চাকরির নামে কোটি টাকা প্রতারণা; তৃণমূল উপপ্রধান ঠকালেন নিজের জামাইকেও। আর এই রাগে মেয়ে করলেন; থানায় অভিযোগ। প্রাথমিক শিক্ষক পদে চাকরি দেওয়ার নাম করে; বিপুল টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ এক তৃণমূল নেতা ও পঞ্চায়েত উপপ্রধানের বিরুদ্ধে। পূর্ব বর্ধমানের মঙ্গলকোটে গ্রেফতার হলেন; তৃণমূল কংগ্রেসের উপপ্রধান হেকমত আলি।

মঙ্গলবার রাতে মঙ্গলকোটের ঝিলু ২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান; হেকমত আলিকে গ্রেফতার করে মঙ্গলকোট থানার পুলিশ। বীরভূমের কীর্ণাহারের বাসিন্দা মহম্মদ বদরুদ্দোজা নামে এক ব্যক্তির অভিযোগের ভিত্তিতে; গ্রেফতার করা হয় তৃণমূল নেতা হেকমত আলিকে।

আরও পড়ুনঃ শিক্ষামন্ত্রী, শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী, মন্ত্রীর মেয়ে, দুর্নীতির জালে জর্জরিত রাজ্য প্রশাসন

বীরভূম পুলিশ সূত্রে খবর, উপপ্রধান হেকমত আলি নিজের রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে; ২০১৯ সালে জুলাই মাস থেকে নভেম্বর পর্যন্ত বীরভূমের কীর্ণাহার এলাকায় নিজের জামাই-সহ ১১ জনের কাছ থেকে প্রাথমিক শিক্ষকের চাকরি করে দেবেন বলে; প্রায় এক কোটি টাকা বাজার থেকে তুলেছিলেন বলেই অভিযোগ। পাঁচ চাকরি প্রার্থীকে, হেকমত আলি; ভুয়ো নিয়োগপত্রও দিয়েছিল বলেই অভিযোগ।

আরও পড়ুনঃ বাংলায় শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি, মেধা তালিকায় নাম না থাকলেও মন্ত্রীর মেয়ের চাকরি

“পারিবারিক বিবাদের ঘটনার জের হিসেবে; প্রতারণা মামলা দায়ের করা হয়েছে বাবার বিরুদ্ধে”; এমনটাই দাবি করেছেন অভিযুক্তের মেয়ে। চাকরি দেওয়ার নামে ৮৩ লক্ষ টাকা টাকা আত্মসাতের ঘটনা সম্পূর্ণ মিথ্যা; বলে দাবি করছেন হেকমত আলির মেয়ে জিন্নাতুন নিশা।

মঙ্গলকোটের তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক অপূর্ব চৌধুরী এনিয়ে জানাণ; “অভিযোগকারী আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করলে; তাকে পুলিশে অভিযোগ করতে বলেছিলাম; পুলিস তদন্ত শুরু করছে। অভিযুক্ত নেতা পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছে”। বিজেপির বর্ধমান জেলা সভাপতি গোপাল চ্যাটার্জী বলেছেন; “তদন্ত করলে আরও অনেক তৃণমূল কংগ্রেস নেতার নাম উঠে আসবে; যারা চাকরি দেবার নামে টাকা নিয়েছেন”।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন