সাত দিন পরেও খোঁজ নেই ভোটের নোডাল অফিসার অর্ণব রায়ের, রহস্য আরও জটিল

635
একের পর এক মিথ্যা বলে গোটা বাংলাকে আশঙ্কায় রাখার শাস্তি কি পাবেন অর্ণব অনিশা/The News বাংলা
একের পর এক মিথ্যা বলে গোটা বাংলাকে আশঙ্কায় রাখার শাস্তি কি পাবেন অর্ণব অনিশা/The News বাংলা

সাত দিন পরেও খোঁজ নেই নদিয়ার কৃষ্ণনগরের ভোটের নোডাল অফিসার অর্ণব রায়ের। রহস্য আরও জটিল। কোথায় গেলেন ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট অর্ণব রায়? অর্ণব রায় এর স্ত্রী ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট অনিশা যশ এর মত এই প্রশ্ন এখন গোটা রাজ্যের মানুষের। কোথায় উধাও হয়ে গেলেন জলজ্যান্ত মানুষটা?

চলছে লোকসভা ভোট। চতুর্থ দফায় ২৯ এপ্রিল। ভোটগ্রহণ নদিয়া জেলার দুটি লোকসভা কেন্দ্রে। জেলায় যখন ভোটের প্রস্তুতি তুঙ্গে, ঠিক তখনই রহস্যজনকভাবে উধাও হয়ে যান নদিয়ার নোডাল অফিসার অর্ণব রায়। জানা যায়, কৃষ্ণনগর ও রানাঘাট লোকসভা কেন্দ্রে ইভিএম ও ভিভিপ্যাট-এর ওসি হিসেবে কাজ করছিলেন অর্ণব। গত বৃহস্পতিবার দুপুর দুটো পর্যন্ত কৃষ্ণনগর শহরের বিপ্রদাস পালচৌধুরী কলেজে ছিলেন ওই নির্বাচনী আধিকারিক। তারপর থেকে আর কোনও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না তাঁর।

অর্ণব উধাও রহস্যে আরও পড়ুনঃ নদিয়ায় ইভিএমের দায়িত্বে থাকা নোডাল অফিসার নিখোঁজ, ভোটকর্মীদের মধ্যে চাঞ্চল্য

জানা গিয়েছে, একটি সিসিটিভি ফুটেজ হাতে এসেছে পুলিশের। সেই ফুটেজে দেখা যাচ্ছে, গত বৃহস্পতিবার দুপুর ১টা নাগাদ ফোনে কারও সঙ্গে কথা বলতে বলতে কৃষ্ণনগরের বিপ্রদাস পালচৌধুরী কলেজ থেকে বেরিয়ে যাচ্ছেন নোডাল অফিসার অর্ণব রায়। দুপুর আড়াইটে নাগাদ তাঁর ফোনের টাওয়ার লোকেশন ছিল শান্তিপুর। নদিয়া জেলা প্রশাসন সূত্রে খবর, কৃষ্ণনগর গভর্নমেন্ট কলেজ, সিএমসি স্কুল ও বিপ্রদাস পালচৌধুরী কলেজে ইভিএম ও ভিভিপ্যাট-এর দায়িত্বে ছিলেন অর্ণব রায়।

অর্ণব উধাও রহস্যে আরও পড়ুনঃ ভোটের দায়িত্বে থাকা অর্ণব রায়ের উধাও হওয়া ফিরিয়ে এনেছে রাজকুমার রায়ের স্মৃতি

এই নিয়ে রাজ্যের বিশেষ পর্যবেক্ষক অজয় নায়েক গত শুক্রবার বলেছিলেন, “ব্যক্তিগত কারণে, হতাশার কারণে তিনি চলে গেছেন”। নদিয়া জেলা প্রশাসনের তরফ থেকেও তাই বলা হয়। প্রশাসনের অনেকেই স্বামী স্ত্রীর সম্পর্ক নিয়ে কথা বলা শুরু করেন। তারপরেই ফেসবুকে পোস্ট করে মুখ খোলেন অনিশা যশ। নদিয়ায় ভোটের নোডাল অফিসার স্বামীর উধাও হওয়া নিয়ে নির্বাচন কমিশনকেই তোপ দাগলেন স্ত্রী অনিশা। সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে তিনি পরিষ্কার জানিয়ে দেন, তাঁর স্বামী কোন হতাশায় ভুগছিলেন না।

সাত দিন পরেও খোঁজ নেই ভোটের নোডাল অফিসার অর্ণব রায়ের, রহস্য আরও জটিল/The News বাংলা
সাত দিন পরেও খোঁজ নেই ভোটের নোডাল অফিসার অর্ণব রায়ের, রহস্য আরও জটিল/The News বাংলা

ফেসবুকে ইংরাজিতে ঠিক কি লিখলেন, অর্ণব রায়ের স্ত্রী WBCS অফিসার অনিশা যশ? দেখে নিনঃ

I request everyone to circulate the news that my husband, Arnab Roy,W.B.C.S(EXE) is missing since 18/4/2019 since 12.30 PM onwards while ON DUTY and I further want to clarify that HE WAS NOT SUFFERING FROM ANY KIND OF DEPRESSION AND WE HAVE A VERY HEALTHY AND HEARTY RELATION.
I request all media persons to stop spreading rumours and gossips and help me to find him.
I donot want anything except my husband right now and I shall go to the last extent to find him.
I earnestly request everyone to share my post.
I want my husband back.

নোডাল অফিসার স্বামীর উধাও হওয়া নিয়ে নির্বাচন কমিশনকে তোপ দাগলেন স্ত্রী অনিশা/The News বাংলা
নোডাল অফিসার স্বামীর উধাও হওয়া নিয়ে নির্বাচন কমিশনকে তোপ দাগলেন স্ত্রী অনিশা/The News বাংলা

সাংবাদিকদের কাছে কোনওমতে কান্না চেপে জানালেন, তিনি শুধু চান, স্বামী যেন দ্রুত ফিরে আসে। এদিকে, নোডাল অর্ণব রায়ের ঘটনায় থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করেছে নদিয়া জেলা প্রশাসন। নিখোঁজ আধিকারিকের গাড়ির চালককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। নির্বাচন কমিশনের বিশেষ পর্যবেক্ষক অজয় নায়েক জানিয়েছেন, অর্ণব রায়ের জায়গায় অন্য এক আধিকারিককে নদিয়া জেলার নোডাল অফিসার পদে নিয়োগ করা হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ ক্ষমা চেয়েও আবার এক ভুল, রাহুলকে আদালত অবমাননার নোটিশ ধরাল সুপ্রিম কোর্ট

তাঁর গাড়ির চালক বাপ্পা দেবনাথ জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার সকালে কৃষ্ণনগর গর্ভনমেন্ট কলেজ, সিএমসি স্কুল ঘুরে বিপ্রদাস পালচৌধুরী পলিটেকনিক কলেজে গিয়েছিলেন অর্ণব। কিন্তু, কৃষ্ণনগর থেকে শান্তিপুরে তিনি কেন গেলেন? সেই উত্তর জানতে সবটা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

আরও পড়ুনঃ ভোটের মধ্যেই মমতার সিনেমা আটকে দিল নির্বাচন কমিশন

এদিকে আবার নদিয়া জেলাশাসক ও রিটার্নিং অফিসার সুমিত গুপ্তার সঙ্গে নোডাল অফিসার অর্ণব রায়ের সম্পর্ক ভাল ছিল না বলে শোনা যাচ্ছে। যদিও বিষয়টি অস্বীকার করেছেন জেলাশাসক। তাঁর দাবি, গত দুদিন জেলার নোডাল অফিসারের সঙ্গে তাঁর কোনও যোগাযোগই ছিল না। কিন্তু, লোকসভা নির্বাচন প্রক্রিয়ায় এত গুরুত্বপূর্ণ পদে যিনি কাজ করছিলেন, তাঁর নিরাপত্তারক্ষী কেন ছিল না? এই প্রশ্নও উঠছে।

জেলাশাসক সুমিত গুপ্তার বক্তব্য, সাধারণত যাঁরা নোডাল অফিসার হিসেবে কাজ করেন, তাঁদের নিরাপত্তারক্ষী থাকে না। অর্ণববাবু নিজেও নাকি নিরাপত্তারক্ষী চাননি। তবে যাই ঘটে থাকুক না কেন, ভোটের আগে জেলার নোডাল অফিসারের নিখোঁজের নেপথ্যে ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাচ্ছেন নদিয়া জেলার বিরোধী দলের নেতারা। কিন্তু ৭ দিন পরেও খোঁজ নেই অর্ণব রায়ের। আর এটাই মানতে পারছেন না অর্ণব রায় এর স্ত্রী ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট অনিশা যশ।

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন