বিদ্যাসাগর মূর্তি ভাঙার তদন্তে বিশেষ তদন্ত দল গঠন মমতার

309
বিদ্যাসাগর মূর্তি ভাঙার তদন্তে বিশেষ তদন্ত দল গঠন মমতার/The News বাংলা
বিদ্যাসাগর মূর্তি ভাঙার তদন্তে বিশেষ তদন্ত দল গঠন মমতার/The News বাংলা

বিদ্যাসাগর মূর্তি ভাঙার তদন্তে; বিশেষ তদন্ত দল গঠন মমতার। গত মঙ্গলবার বিদ্যাসাগর কলেজে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার ঘটনায়; সিট গঠন করল লালবাজার। ৬ সদস্যের সিট গঠন করা হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর। ডিসি নর্থ দেবাশিস সরকারের নেতৃত্বে; সিট গঠন করা হয়েছে।

শুক্রবার প্রথম বৈঠকে বসতে পারে সিট৷ সিট-কে দ্রুত রিপোর্ট দিতে; নির্দেশ দেওয়া হয়েছে লালবাজারের তরফে ৷ পুলিশের হাতে ৫০টি ভিডিও ফুটেজ এসেছে; বলেও জানান হয়েছে৷ লালবাজার সূত্রে খবর, এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত আরও বেশ কয়েকজনের নাম পাওয়া গিয়েছে। দোষীদের সনাক্তকরণের কাজ চলছে।

আরও পড়ুনঃ পুলিশি গাফিলতিতে দেড় মাস ধরে অকেজো বিদ্যাসাগর কলেজের সিসিটিভি

শেষ দফার ভোটের আগে বিদ্যাসাগরকে নিয়ে; জোর টানাপোড়েন শুরু হল বঙ্গ রাজনীতিতে। বিদ্যাসাগরের মূর্তি কে ভাঙল? এই লাখ টাকার প্রশ্নেই তোলপাড় রাজনীতির ময়দান। ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙা নিয়ে; একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে; সোচ্চার হয়েছে তৃণমূল ও বিজেপি।

ইতিমধ্যেই দুই দলের তরফেই প্রমাণস্বরূপ; মূর্তি ভাঙচুরের ঘটনার ভিডিও সামনে আনা হয়েছে। কিন্তু কোনটা সত্যি? ইতিমধ্যেই এই ঘটনার তদন্ত নেমে; বেশ কয়েকটি ভিডিওকে আলাদা করেছে পুলিশ। কী রয়েছে ওই ভিডিওগুলিতে?

আরও পড়ুনঃ ডায়মন্ডহারবারের বিষ্ণুপুর থানা এলাকা থেকে মানুষকে পালাতে হল কেন

একটি ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, গেরুয়া পোশাক পরা একদল যুবক বিদ্যাসাগর কলেজ হস্টেলের বাইরে; বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙচুর করছে। অন্য ভিডিওতে দেখা গিয়েছে; ক্যাম্পাসের মধ্যে থাকা একদল যুবক দেওয়াল লক্ষ্য করে পাথর ছুড়ছে। সেখানে কয়েকজন যুবক দাঁড়িয়ে রয়েছে; যাদের হাতে বিজেপির পতাকা ও পরনে গেরুয়া পোশাক।

সব ভিডিওই খতিয়ে দেখছে কলকাতা পুলিশ। বিদ্যাসাগর কলেজে তাণ্ডবের ঘটনায়; যে ৫৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে; তাঁরা সকলেই বিজেপি সমর্থক। সেদিনের হামলার জন্য বিজেপি বাইরের রাজ্য থেকে লোক এনেছিল; অভিযোগ করেছে তৃণমূল।

আরও পড়ুনঃ ভোটের আগে ফের সরিয়ে দেওয়া হল বাংলার দুই পুলিশ অফিসারকে

তবে পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে; ধৃতরা সকলেই হুগলি, বর্ধমান, উত্তর ২৪ পরগনা, টিটাগড়ের বাসিন্দা। ধৃত ৫৮ জনের মধ্যে ১০ জনকে; পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বাকিদের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আরও ৫০ জনকে সন্দেহের তালিকায় রাখা হয়েছে।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন