গাড়ি ভাঙচুর, ছাপ্পা ভোটের অভিযোগে হুগলীর জেলাশাসক দফতরে ধর্নায় লকেট

412
লকেটের গাড়ি ভাঙচুর, লোকসভায় ছুটে বেড়িয়ে ভোটের সারাদিন দিদিগিরি লকেটের/The News বাংলা
লকেটের গাড়ি ভাঙচুর, লোকসভায় ছুটে বেড়িয়ে ভোটের সারাদিন দিদিগিরি লকেটের/The News বাংলা

লোকসভায় ছুটে বেড়িয়ে; ভোটের সারাদিন দিদিগিরি লকেটের। দুপুরে ধনেখালিতে; লকেটের গাড়ি ভাঙচুর করার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। এদিন ভোটের শুরু থেকেই; গোটা লোকসভা এলাকায় রীতিমত ছুটে বেড়ালেন লকেট চট্টোপাধ্যায়। দিনের শেষে; গাড়ি ভাঙচুর; ছাপ্পা ভোটের অভিযোগে হুগলীর জেলাশাসকের দফতরে ধর্নায় বসলেন লকেট।

১৫৯নং বুথে ছাপ্পা ভোটের অভিযোগ পেয়ে; বুথে আসেন হুগলির বিজেপি প্রার্থী লকেট চট্টোপাধ্যায়। ওই বুথে ইভিএম ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে খোদ লকেটের বিরুদ্ধেই। অভিযোগ করেছে তৃণমূল। এখানেই লকেট চট্টোপাধ্যায়কে; ঘিরে বিক্ষোভ দেখান তৃণমূল কর্মীরা। লকেটের গাড়িতে ভাঙচুরের অভিযোগ; উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুনঃ বাংলায় জয় শ্রী রাম বললেই জেলে পুরছেন মমতা, ঝাড়গ্রামে অভিযোগ মোদীর

হুগলীর বিভিন্ন বুথে তৃণমূলের বিরুদ্ধে ছাপ্পা ভোটের অভিযোগ করেছেন লকেট। অন্যদিকে, তৃণমূলের অভিযোগ; “লকেট চট্টোপাধ্যায় ইভিএম ভাঙচুর করেছেন”। প্রিসাইডিং অফিসার বলেন; “একজন বাইরে থেকে এসে ইভিএম ভাঙচুর করেছেন”। ওই কেন্দ্রে অনেকক্ষণ বন্ধ ছিল ভোটগ্রহণ।

২০৮ নম্বর বুথেও লকেট চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে; দিদিগিরির অভিযোগ করে তৃণমূল। অভিযোগ, বুথে ঢোকার পর থেকেই রুদ্রমূর্তিতে ছিলেন হুগলির বিজেপি প্রার্থী। তৃণমূলের এক যুবককে লকেট হুমকি দেন; “মেরে চামড়া গুটিয়ে নেব”। বিজেপির অভিযোগ; এই বুথ থেকে বিজেপির এজেন্টকে বের করে দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। তারই প্রতিবাদ করেন লকেট।

আরও পড়ুনঃ ফণীর ক্ষয়ক্ষতির জন্য রাজ্যকে টাকা দিতে চেয়েছিলাম, নিলেন না মমতা, জানালেন মোদী

ধনেখালির আকিলপুরের ২৩০ নম্বর বুথে; প্রিসাইডিং অফিসারের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েন লকেটে চট্টোপাধ্যায়। অভিযোগ বুথে ঢুকে তৃণমূল এজেন্টকে; বুথ থেকে বের করে দেন হুগলির বিজেপি প্রার্থী। বিজেপির অভিযোগ; ওই বুথে বিজেপি এজেন্টকে বসতে বাধা দিচ্ছিল তৃণমূল। বিজেপি এজেন্টকে বসিয়ে আসেন লকেট।

সোমবার বিভিন্ন বুথে ঢুকে; বেশ কিছু ঘটনারই প্রতিবাদ করেন লকেট। তৃণমূলের বিরুদ্ধে ভোট করানোর অভিযোগ ওঠে। কিন্তু তৃণমূলের তরফে এই অভিযোগ; অস্বীকার করা হয়েছে। জানা গিয়েছে; ওই বুথে তৃণমূল এজেন্টকে বের করে দেওয়ার পাশাপাশি প্রিসাউইডিং অফিসারের সঙ্গেও; বচসায় জড়িয়ে পড়েন লকেট চট্টোপাধ্যায়।

আরও পড়ুনঃ একেই বলে একাই একশো, ১০০ ভোট দিলেন তৃণমূল নেতা মহারাজা নাগ

বচসা হয় কেন্দ্রীয় বাহিনীর সঙ্গেও। কমিশনের ভূমিকায় রীতিমতো ক্ষোভ প্রকাশ করেন হুগলির বিজেপি প্রার্থী। প্রশ্ন তোলেন কেন্দ্রীয় বাহিনীর ভূমিকা নিয়েও। গাড়ি ভাঙচুর; ছাপ্পা ভোটের অভিযোগে হুগলীর জেলাশাসকের দফতরে ধর্নায় বসেছেন লকেট। ভোট লুঠ হয়েছে; দাবী লকেটের। হারার ভয়েই একের পর বাচ্চাদের মত কাজ করছেন লকেট; জানিয়ে দেওয়া হয়েছে তৃণমূলের তরফ থেকে। তবে চলছে লকেটের ধর্না।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন