লাদাখ সীমান্তে তৈরি চিনের ২৫টি যুদ্ধবিমান, ফের ভারতে হা’মলার প্রস্তুতিতে লালফৌজ

59
লাদাখ সীমান্তে তৈরি চিনের ২৫টি যুদ্ধবিমান, ফের ভারতে হামলার প্রস্তুতিতে লালফৌজ
লাদাখ সীমান্তে তৈরি চিনের ২৫টি যুদ্ধবিমান, ফের ভারতে হামলার প্রস্তুতিতে লালফৌজ

লাদাখ সীমান্তে তৈরি চিনের ২৫টি যুদ্ধবিমান; ফের ভারতে হা’মলার প্রস্তুতিতে লালফৌজ। চিনের সামরিক তোড়জোড় নিয়ে; ফের উদ্বেগজনক পরিস্থিতি লাদাখ সীমান্তে। লাদাখে যে ভাবে যু’দ্ধ প্রস্তুতি শুরু করেছে চিনের সেনা; তা নিয়ে আশ’ঙ্কিত হওয়ার যথেষ্ট কারণ রয়েছে ভারতের। না ভারতের কোন গোয়েন্দা সংস্থা নয়; নয়াদিল্লিতে এসে এমনটাই বলেছেন মার্কিন সেনার প্যাসিফিক কমান্ডের প্রধান জেনারেল চার্লস এ ফ্লিন।

মার্কিন কমান্ডারের এই সতর্কবার্তার রেশ না কাটতেই জানা গিয়েছে; পূর্ব লাদাখে ভারত-চিন সীমান্তের কাছে প্রায় ২৫টি অত্যাধুনিক যু’দ্ধবিমান তৈরি রেখেছে চিন। ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রক সূত্রে খবর, পূর্ব লাদাখে সীমান্তের ওপারে; চিনের হোটান বায়ুসেনা ঘাঁটিতে গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই বেশ তৎপরতা নজরে এসেছে। সেখানে ২৫টি অত্যাধুনিক জে-১১ ও জে-২০ যু’দ্ধবিমান; মোতায়েন করেছে লালফৌজ। আগে ওই এয়ারবেসে মিগ-২১-এর মত; যু’দ্ধবিমান রাখত চিন।

আরও পড়ুন; ‘বর্বর পাকিস্তান’, প্রমাণ নিয়ে দেশে ফিরেছিলেন কার্গিল যুদ্ধের প্রথম শহিদ ক্যাপ্টেন সৌরভ কালিয়া

কিন্তু এবার আধুনিক ও যেকোন পরিস্থিতে যু’দ্ধে সক্ষম; জে-১১ এর মতো যু’দ্ধবিমান মোতায়েন করেছে চিন; যা যথেষ্ট চিন্তার বিষয় ভারতের কাছে। এর থেকেই বোঝা যাচ্ছে, গালওয়ান সং’ঘর্ষের পরও; ভারতের দিকে নিজেদের আ’গ্রাসী পদক্ষেপ থামায়নি চিন। লাদাখ সীমান্ত ঘেঁষা চিনের এই হোটান বিমানঘাঁটি-তেই; পরীক্ষা চলছে লালফৌজের ‘H-20’ বো’মারু বিমানের। জানা গেছে, চিনের এই স্টেলথ বিমানটি; ট্রায়ালের অন্তিম পর্যায়ে রয়েছে।

আরও পড়ুন; সংখ্যা’লঘুদের ‘তা’ণ্ডব’ সামলাতে ব্যর্থ রাজ্য সরকার, সেনা নামিয়ে ‘ঠাণ্ডা’ করার আর্জি

আন্তর্জাতিক প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞ-দের মতে, “আগামী কয়েকমাসের মধ্যেই; চিনা সেনাবাহিনীতে অন্তর্ভুক্ত হয়ে যাবে এই যু’দ্ধবিমানটি। আসলে ভারতের অত্যাধুনিক রাফাল ফাইটার জেটগুলির মোকাবিলায়; এই নয়া যু’দ্ধবিমান মোতায়েন করতে চলেছে বেজিং”। অবশ্য তার আগেই নিজেদের, অত্যাধুনিক জে-১১ ও জে-২০ যু’দ্ধবিমান; লাদাখে মোতায়েন করেছে চিন।

ভারতের কারাকোরাম পাসের, উত্তর-পূর্বে প্রায় ২৫০ কিলোমিটার দূরে রয়েছে; চিনের হোটান বায়ুসেনা ঘাঁটি। লাদাখের প্যাংগং হ্রদের ৪ নম্বর ফিঙ্গার এলাকা থেকে; ওই বিমানঘাঁটির দূরত্ব মাত্র ৩৮০ কিলোমিটার। দুই দেশের কূটনৈতিক আলোচনায়, সেনা প্রত্যাহারে মৌখিকভাবে চিন রাজি হলেও; বাস্তবে তেমন কোনও পদক্ষেপ করেনি লালফৌজ। এই পরিস্থিতিতে সেখানে আরও ২৫টি যু’দ্ধবিমান মোতায়েন করার খবর; যে ভাল ইঙ্গিত নয় বুঝেছে ভারত।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন