রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধে মিসাইলের আঘাতে ভারতীয় ছাত্রের মৃত্যু

350
রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধে মিসাইলের আঘাতে ভারতীয় ছাত্রের মৃত্যু
রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধে মিসাইলের আঘাতে ভারতীয় ছাত্রের মৃত্যু

রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধে মিসাইলের আঘাতে; এক ভারতীয় ছাত্রের মৃত্যু। ইউক্রেনে এই প্রথম এক ভারতীয় ছাত্রের মৃত্যু হল। খারকিভে রুশ সেনার মিসাইল হামলায় তাঁর মৃত্যু হয়েছে; বলে মনে করা হচ্ছে। টুইট করে এই খবর জানিয়েছেন; বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচী। বাড়ি থেকে বেরিয়ে ট্রেন ধরতে যাবার সময়; মিসাইলের আঘাতে তার মৃত্যু হয়েছে বলেই জানা যাচ্ছে।

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে এই প্রথম এক ভারতীয় ছাত্রের মৃত্যু হল; মৃত ছাত্রের নাম নবীন এস.জি বা নবীন শেখারাপ্পা জ্ঞানগাউদর (Naveen Shekharappa Gyanagoudar)। তিনি কর্ণাটকের বাসিন্দা; রুশ সেনার হামলায় তাঁর মৃত্যু হয়েছে। ইতিমধ্যে রাশিয়া এবং ইউক্রেনের রাষ্ট্রদূতদের; তলব করেছে ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রক।

ইতিমধ্যে নিহত ছাত্রের পরিবারের সঙ্গে কথা বলেছে বিদেশমন্ত্রকের প্রতিনিধিরা। পরিবারের প্রতি শোকজ্ঞপন করেছেন; বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচী (Arindam Bagchi)। মঙ্গলবার সকাল থেকেই ইউক্রেন জুড়ে হামলার (Russia-Ukraine War) মাত্রা কয়েক গুণ বাড়িয়ে দিয়েছে রুশ সেনা। একের পর এক মিসাইল হানায়; গুঁড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে বড় বড় বাড়ি। যার মধ্যে বহু সরকারি সংস্থার অফিস রয়েছে।

ভারতীয় বিদেশমন্ত্রক সূত্রে খবর; নবীন শেখরাপ্পার পাসপোর্ট নম্বর-S5613143। তাঁর বাড়ি কর্ণাটকের হাভেরি। তাঁর ইউক্রেনে বাড়ির ঠিকানা ছিল Arkitectora bekatova। তিনি খারকিভ জাতীয় মেডিকাল বিশ্ববিদ্যালয়ে এমবিবিএস পড়ছিলেন। ২২ বছর বয়েসী নবীনের সঙ্গে ছিলেন তাঁর এক বন্ধু; তিনিও স্টুডেন্ট কন্ট্রাক্টটর ছিলেন বলে জানা গিয়েছে। তাঁরা কিছু জিনিস কিনতে দোকানে গিয়েছিলেন; তখনই রাশিয়ান সেনা মিসাইল হামলা চালায়; ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় নবীন ও তাঁর বন্ধুর।

ইউক্রেনে কয়েক হাজার ভারতীয় ছাত্র আটকে আছে। ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রকের বক্তব্য; সব মিলিয়ে প্রায় ১৬ হাজার ভারতীয় সেখানে আটকে। তাদের উদ্ধার করতে রোমানিয়ায় বিমান পাঠিয়েছে ভারত। কারণ, ইউক্রেন আকাশসীমা বন্ধ করে দিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে রোমানিয়ার সীমান্ত পর্যন্ত পৌঁছাতেই; সমস্যায় পড়ছেন ভারতীয়রা। সরকার এর আগে জানিয়েছিল; সকলে যেন রাজধানী কিয়েভে চলে আসেন। কিন্তু মঙ্গলবার ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে; মঙ্গলবারের মধ্যে সকলে যেন কিয়েভ ছাড়েন। ট্রেনে বা অন্য কোনো ভাবে তারা যেন রোমানিয়ার সীমান্তে পৌঁছে যান। মঙ্গলবার বুখারেস্ট ও বুদাপেস্ট থেকে দুইটি বিমানে করে; আটকে থাকা ছাত্রছাত্রীদের ভারতে নিয়ে আসা হয়েছে।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন