মুকুল ভিক্ষার ঝুলি নিয়ে বেরিয়েছে তৃণমূলের সাইড লাইনে পড়ে থাকা খেলোয়াড় কুড়তে, পুরমন্ত্রী বললেন

302
মুকুল সাইড লাইনে পড়ে থাকা খেলোয়াড়দের কুড়চ্ছে/The News বাংলা
মুকুল সাইড লাইনে পড়ে থাকা খেলোয়াড়দের কুড়চ্ছে/The News বাংলা

তৃতীয় দফার লোকসভা নির্বাচন এগিয়ে আসছে ততই আক্রমণের ঝাঁজ বাড়ছে নেতা নেত্রীদের গলায়। শনিবার সাঁইথিয়ার এক জনসভা থেকে রাজ্যের পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন মুকুল রায় তথা বিজেপির নেতা নেত্রীদের।

আরও পড়ুনঃ রাহুলের গুনের প্রশস্তি গেয়ে ওয়ানাডে ভোট প্রার্থনা করলেন প্রিয়াঙ্কা বঢরা

শনিবার সাঁইথিয়ার সভায় তিনি বলেন, “বিজেপির ওই একটা নেতা আছে কি নাম যেন, হ্যাঁ মনে পড়েছে মুকুল। সে ঝরে গেছে এমনিতেই, তারপরে ভিক্ষার ঝুলি নিয়ে বেরিয়েছে তৃণমূলের সাইড লাইনে পড়ে থাকা খেলোয়াড়দের নিয়ে রাজনীতি করার জন্য”।

আরও পড়ুনঃ শ্রীলঙ্কার ৩টি গির্জা ও ৩টি হোটেলে বিস্ফোরণে মৃত অসংখ্য মানুষ

তিনি বলেন, “বাইরে থেকে এসে বাংলা দখল করা হাতের মোয়া নয়, কারণ বাংলার মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে আছে”। ফিরহাদ হাকিম জানান, তিনি সহ তৃণমূল কংগ্রেসের একাধিক বলিষ্ঠ নেতা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে কেউ ৩০ বছর কেউ ৪০ বছর ধরে রাজনীতি করছেন অথচ এখনো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সামনে দাঁড়িয়ে থর থর করে কাঁপি। বিজেপিও কাঁপছে তাই মিথ্যা কথা বলে, কুৎসা করে, মানুষকে ভুল বুঝিয়ে, ভোটে জিততে চাইছে। কিন্তু প্রথম দুদফার ভোটে সে আশায় বাংলার মানুষ ইতিমধ্যে জল ঢেলে দিয়েছে।

আরও পড়ুনঃ রাহুল গান্ধী প্রধানমন্ত্রী হলে উপদেষ্টা এবং অভিভাবক হিসেবে কাজ করবেন দেবগৌড়া

বীরভূম লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী দুধ কুমার মণ্ডল কে কটাক্ষ করে এ দিনের সভা থেকে ফিরহাদ হাকিম বলেন, “বাংলায় বিজেপি ছাগলের তিন নম্বর বাচ্চা, গুজরাট আর ইউপি তে বিজেপি দুধ খাচ্ছে, আর বাংলাতে বিজেপি দুধ খাওয়ার জন্য তিড়িং বিড়িং করে লাফাচ্ছে। লাফিয়ে যাবে আখেরে লাভ কিছুই হবে না। 23 তারিখ ফল ঘোষণার পর শূন্য হাতে ফিরতে হবে বিজেপিকে”।

আরও পড়ুনঃ জইশ ই মহম্মদের মতোই বিজেপিকেও নিষিদ্ধ করা হোক, দাবি ফিরহাদ হাকিমের

পুরমন্ত্রী বিজেপির দিকে অভিযোগের তীর তুলে বলেন, “বিজেপিকে সন্ত্রাসবাদি দল হিসেবে ঘোষণা করা হোক, বিজেপি নেতাদের সন্ত্রাসবাদি ঘোষণা করে জেলে ঢোকান প্রয়োজন। কিভাবে সন্ত্রাসবাদীরা অন্য দেশ থেকে ভারতবর্ষে ৫০০ কেজি বিস্ফোরক নিয়ে ঢুকলো, কেন কেন্দ্রীয় সরকার খবর রাখতে পারল না, কেন আমাদের দেশের 42 জন সৈনিকের প্রাণ দিতে হলো বেঘোরে। এ প্রশ্নের জবাব কে দেবে”? বলে বিজেপিকে আক্রমন করেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ বাংলা থেকে লোকসভা ভোটে প্রার্থী হচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

বিজেপির এক প্রার্থী যিনি মালেগাঁও বিস্ফোরণের সঙ্গে সরাসরি যুক্ত তিনি বলছেন তার অভিশাপে মুম্বাই হামলায় এমন করে একজন বীর পুলিশ অফিসার মারা গেছেন। কি হাস্যকর, একজন সন্ত্রাসবাদীকে বিজেপি প্রার্থী করছে আর নিজেরা অন্য রাজনৈতিক দলের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলছে।

আরও পড়ুনঃ মমতার সভা ছেড়ে চলে গেল মানুষ, মাঝপথে ভাষণ বন্ধ করে বসে পড়লেন মমতা

তিনি বলেন, “ভারতবর্ষের মধ্যে বাংলায় মানুষ শান্তিতে বসবাস করছে, সেই শান্তি ভঙ্গ করার জন্য সন্ত্রাসবাদি দল বিজেপি নানা রকম ফন্দি ফিকির করে যাচ্ছে, কিন্তু আমাদের ঐক্যবদ্ধভাবে বিজেপির চক্রান্ত কে রুখে দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত আরো শক্ত করতে হবে”।

আরও পড়ুনঃ মমতাকে বুঝতে আমারও ভুল হয়েছিল, মানুষের তো হবেই, বললেন মোদী

পুরমন্ত্রী বলেন, “বিজেপিতে একটি চম্বলের ডাকাত আছে, যিনি শ্লোগান তুলেছিলেন ‘ভাগ মমতা ভাগ, ভাগ মুকুল ভাগ’, সেই মুকুলকে ভাগিয়ে নিয়ে গেছে, ভাবছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে ভাগিয়ে দেবে, কিন্তু ডাকাত জানে না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বাংলার বুক থেকে ভাগানো অসম্ভব”।

আরও পড়ুনঃ সশস্ত্র বাহিনীকে রাজনৈতিক কারণে ব্যবহার করেছেন মোদী, বললেন বিতর্কিত বিএসএফ তেজ বাহাদুর

বুনিয়াদপুর এর সভা থেকে নরেন্দ্র মোদী শনিবার অভিযোগ করেন, তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে চিনতে ভুল করেছিলেন, ভেবেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একজন লড়াকু মহিলা, প্রধানমন্ত্রী হবার পর তিনি বুঝতে পেরেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অসৎ, তিনি মানুষের জন্য কোন কাজই করেননি, এর জবাবে ফিরহাদ হাকিম স্পষ্ট করে বলেন, ২০১১ সালের আগে নরেন্দ্র মোদী পশ্চিমবাংলায় কখনো আসেনি, তিনি জানেন না নন্দীগ্রাম, সিঙ্গুরে কিভাবে সিপিএমের হার্মাদ বাহিনীর সাধারণ মানুষকে খুন করে গেছে রক্তগঙ্গা বইয়ে গেছে সেই জায়গা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলায় শান্তি প্রতিষ্ঠা করেছে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় থাকলে শান্তি থাকবে এই ভয়েই নরেন্দ্র মোদী নানা রকম মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে।

অর্ণব উধাও রহস্যে আরও পড়ুনঃ নোডাল অফিসার স্বামীর উধাও হওয়া নিয়ে নির্বাচন কমিশনকে তোপ দাগলেন স্ত্রী অনিশা

নরেন্দ্র মোদী আরো অভিযোগ করেন বাংলায় যেসব বিজেপি কর্মীরা মার খাচ্ছে খুন হচ্ছে আগামী 23 তারিখ ভোটের ফল ঘোষণার পর তাদের কাউকে ছাড়া হবে না, এ বিষয়ে ফিরহাদ হাকিম বলেন লকেট চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে হামলা তৃণমূল করেনি, বিজেপির নেতা সেটা স্বীকার করে বলে দিয়েছে বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের ফসল লকেট চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে হামলা।

আরও পড়ুনঃ দুদফায় ভোট থেকে শিক্ষা নিয়ে বাংলায় তৃতীয় দফায় সব বুথেই কেন্দ্রীয় বাহিনী

পুরুলিয়াতে যে বিজেপি কর্মীর আত্মহত্যা করেছে, তার সম্পর্কেও ফিরহাদ হাকিম বলেন, বিজেপি করতে গিয়ে তার আশা পূরণ হয়নি বলেই সে ঘেন্নায় আত্মহত্যা করেছে এখানেও তৃণমূল কোন ভাবেই জড়িত নয়। আর 23 তারিখের পর উনি আমার দেখবেন বলছেন ভালো কথা, 23 তারিখ ভোটের ফল ঘোষণার পর নরেন্দ্র মোদী থাকবেন তো। তার নিশ্চয়তা কে দেবে।

আরও পড়ুনঃ দার্জিলিংয়ে আবার ভোট ঘোষণা করল নির্বাচন কমিশন, ১৯ মে পাহাড়ে ফের ভোট

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন