“প্রধানমন্ত্রী নয়, বাংলা আবাস যোজনাই থাকবে”, শুভেন্দুকে ‘ওপেন চ্যালেঞ্জ’ মমতার

104
‌প্রধানমন্ত্রী নয়, বাংলা আবাস যোজনাই থাকবে, শুভেন্দুকে চ্যালেঞ্জ মমতার
‌প্রধানমন্ত্রী নয়, বাংলা আবাস যোজনাই থাকবে, শুভেন্দুকে চ্যালেঞ্জ মমতার

“প্রধানমন্ত্রী নয়, বাংলা আবাস যোজনাই থাকবে”; শুভেন্দুকে ‘ওপেন চ্যালেঞ্জ’ মমতার। বাংলা আবাস যোজনা প্রকল্পের নাম বদল নিয়ে, অবশেষে নিজের বক্তব্য জানিয়ে দিলেন; রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার বর্ধমানে কৃষকবন্ধু প্রকল্পের আর্থিক সহায়তার অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে; বিজেপিকে একপ্রকার ‘চ্যালেঞ্জ’ ছুঁড়ে দিলেন তিনি। কড়া ভাষায় সুর চ’ড়িয়ে তিনি জানিয়ে দিলেন; “বাংলার আবাস যোজনার নাম একই থাকবে”। ‘এই প্রকল্পের নামের কোন পরিবর্তন তিনি করবেন না; প্রয়োজনে এই বিষয় নিয়ে তিনি দিল্লিতে দরবার করবেন প্রধানমন্ত্রীর কাছে’; ঘোষণা মমতার।

কয়েকদিন আগেই কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রক, নবান্নকে চিঠি দিয়ে জানায়; ‘বাংলা আবাস যোজনা নাম থেকে ‘বাংলা’ কেটে ‘প্রধানমন্ত্রী’ বসাতে হবে। না হলে এই প্রকল্পে আর এক টাকাও দেওয়া হবে না রাজ্য সরকারকে’। তারপর থেকেই, এই নিয়ে বিজেপি-তৃণমূল রাজনীতি তুঙ্গে। বাংলার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী; সো’চ্চার হয়েছেন এই ইস্যু নিয়ে। রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর অভিযোগ; “কেন্দ্রীয় প্রকল্পের নাম বদলে দিয়ে; সাধারণ মানুষকে ভুল বোঝাচ্ছে রাজ্য সরকার”। এমন অভিযোগে বারবার সরব হয়েছেন; অন্যান্য বিজেপি নেতারাও।

আরও পড়ুনঃ প্রধানমন্ত্রী কিষান সম্মান নিধির টাকা পাচ্ছেন, ৩৩০০০ ‘মৃত’ কৃষক ও ৫১০০০ ‘ভুয়ো’ কৃষক

বাংলা আবাস যোজনা নিয়ে চলা বিতর্কের মাঝেই; সোমবার বর্ধমানের মঞ্চে নিজের অবস্থান পরিস্কার জানিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতার সাফ বক্তব্য, যে কোনও রাজ্যে; নিজের নামে প্রকল্প থাকতেই পারে। গুজরাতে গুজরাতের নামে থাকবে, উত্তর প্রদেশে উত্তর প্রদেশের নামে যদি থাকতে পারে; রাজস্থানে রাজস্থানের নামে থাকতে পারে; তা হলে বাংলার নামে থাকলে আপনাদের কিসের আপত্তি?

আরও পড়ুনঃ হিন্দুদের দেবদেবী নিয়ে দিনের পর দিন ক’টূক্তি, গ্রেফতার মহম্মদ জুবেইর, প্রতিবাদ শুরু

মুখ্যমন্ত্রী এও অভিযোগ করেন; “বিজেপির লোকেরা ১০০ দিনের প্রকল্পে ৬ মাস ধরে টাকা দিচ্ছে না। নিয়ম অনুযায়ী ১৫ দিনের মধ্যে টাকা দেওয়ার কথা। বর্ধমানের মঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রীর দাবি; গরিবের টাকা আটকে রাখা যাবে না। আমরা অবিলম্বে ১০০ দিনের কাজের টাকা চাই। নইলে বিজেপি বিদায় নাও”। মমতা আরও বলেন, “নির্বাচনের সময় ভাগাভাগির রাজনীতি করবেন; পরে বাংলার নামটাও নিতে আপত্তি? বাংলার আবাস যোজনার টাকা দেওয়া হবে না; রাস্তার টাকা দেওয়া হবে না”।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন