পড়তে হবে বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট, এড়াতে হবে মাটিতে পুঁতে রাখা ল্যান্ডমাইন

287
পড়তে হবে বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট, এড়াতে হবে মাটিতে পুঁতে রাখা ল্যান্ডমাইন/The News বাংলা
পড়তে হবে বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট, এড়াতে হবে মাটিতে পুঁতে রাখা ল্যান্ডমাইন/The News বাংলা

পড়তে হবে বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট; এড়াতে হবে IED বা ইম্প্রসিভ এক্সপ্লসিভ ডিভাইজ। জঙ্গলমহলে বাড়তি সতর্ক থাকার নির্দেশ কেন্দ্রীয় বাহিনীকে। ভোটের পরে মাওবাদীদের গেরিলা আক্রমনে; মহারাষ্ট্রের গড়চিরৌলিতে এক চালক সহ ১৬ জন জওয়ান শহিদ হন। IED বিস্ফোরণ ঘটিয়ে হামলা চালানো হয়; সেনা জওয়ানদের গাড়িতে।

পরের দিনই ছত্তিশগড়ের সুকমায়; মাওবাদীরা গ্রামে ঢুকে পুলিশের গুপ্তচর সন্দেহে দুজনকে খুন করে। এইসব ঘটনার পর; আর ঝুঁকি নিতে রাজি নয় নির্বাচন কমিশন। আর তাই জঙ্গলমহলে ডিউটি করতে যাওয়া; কেন্দ্রীয় বাহিনী সদস্যদের দেওয়া হল বিশেষ নির্দেশ। ইতিমধ্যেই কোম্পানি কমান্ডারদের কাছে সেই নির্দেশিকা পৌঁছেছে। প্রতিটি জওয়ানকে সেই নির্দেশিকা বুঝিয়ে দিতে বলা হয়েছে।

প্রতিবারের মতো এবারও; নির্বাচন বয়কটের ডাক দিয়েছে মাওবাদীরা। অতীত বলছে ছত্তিশগড়, মহারাষ্ট্রের মতো বেশ কিছু জায়গায়; নির্বাচনের সময় নাশকতা চালিয়েছে তারা। তাই এবার এই রাজ্যের জঙ্গলমহলে বাড়তি সতর্কতা। কমিশন সূত্রে খবর; অন্য সাতটি কেন্দ্রে ১০০ শতাংশ বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী না থাকলেও; ঝাড়গ্রামে সব বুথেই থাকবে বাহিনী।

শুধু ঝাড়গ্রাম লোকসভায়; মোতায়েন করা হচ্ছে ১১৪ কম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। অতীতে বাঁকুড়া, পুরুলিয়ার জঙ্গলমহল এলাকায় মাও সক্রিয়তা থাকলেও; কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক ওই দুই জেলাকে মাও মুক্ত ঘোষণা করেছে। তবে ঝাড়গ্রাম এখনো মাওবাদীদের রেড করিডর। সেই সূত্রেই বাহিনীর জওয়ানদের উদ্দেশ্যে; দেওয়া হয়েছে বিশেষ নির্দেশিকা।

নির্বাচন কমিশন এবং রাজ্য প্রশাসনের তরফ থেকে বলা হয়েছে; কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা কালভার্ট এবং যেসব জায়গায় IED প্ল্যান্ট করা যেতে পারে; সেই সব জায়গায় ভালো করে তল্লাশি চালানোর পর; সেই পথে এগোবে। ভালো করে পরীক্ষা করার আগে কোনভাবেই যেন ঝুঁকি না নেওয়া হয়।

নির্বাচনের ডিউটি করার সময়; অবশ্যই বুলেট প্রুফ জ্যাকেট এবং হেলমেট পরতে হবে। অতীতে দেখা গেছে ভোট কর্মীরা; ভোট শেষে ফেরার সময় আক্রমণের শিকার হয়েছেন। ভোট শেষে ফেরার পথে; সবচেয়ে বেশি সতর্ক থাকতে হবে বলে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

যে কোন ক্ষেত্রে অ্যাকশন নেওয়া হলে দ্রুত রিটার্নিং অফিসার; কন্ট্রোল রুম এবং সিনিয়ার পুলিশ অফিসারদের জানাতে হবে। কুইক রেসপন্স টিম এবং কুইক অ্যাকশান টিমের সদস্যদের; যে কোন ধরনের অভিযোগ উঠলে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছনোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন