‘অশনি সংকেত’, আয়লা, ফণী, আমফানের মতোই কি বাংলায় আছড়ে পড়বে অশনি

132
'অশনি সংকেত', আয়লা, ফণী, আমফানের মতোই কি বাংলায় আছড়ে পড়বে অশনি
'অশনি সংকেত', আয়লা, ফণী, আমফানের মতোই কি বাংলায় আছড়ে পড়বে অশনি

‘অশনি সংকেত’, আয়লা, ফণী, আমফানের মতোই কি বাংলায় আছড়ে পড়বে? এটাই এখন বড় প্রশ্ন। এগোচ্ছে অশনি ঘূর্ণিঝড়; বাংলাতে প্রভাব হবে কি আয়লা, ফণী, আমফানের মতোই? কয়েকদিন ধরেই উঠেছে প্রশ্ন; বিশেষ করে রাজ্যের উপকূলীয় অঞ্চলে। এই নিয়ে এখনও পরিষ্কার রিপোর্ট; দিতে পারেনি আবহাওয়া দফতর।

গতি বাড়িয়ে বাংলার উপকূলের আরও কাছে ‘অশনি’; দক্ষিণবঙ্গে সোমবার সকাল থেকেই শুরু হয়েছে বৃষ্টি, চলবে আগামী শুক্রবার পর্যন্ত। রবিবার সন্ধ্যায় ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’ গতি বাড়িয়ে; তীব্র ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে। আলিপুর হাওয়া অফিস জানিয়েছে, মঙ্গলবারই তা পৌঁছে যাবে; উপকূলের কাছে। উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর বরাবর, ঘণ্টায় ২১ কিলোমিটার বেগে ধেয়ে আসছে অশনি; দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব উপকূলের দিকে।

নয়া-দিল্লির মৌসম ভবনের দেওয়া শেষ খবর অনুযায়ী, সোমবার সকালে ঝড়টি পুরী থেকে ৭০০ কিলোমিটার এবং বিশাখাপত্তনম থেকে ৬০০ কিলোমিটার দূরে রয়েছে। দক্ষিণ-পূর্ব ও তৎসংলগ্ন পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগরে; এখন অবস্থান করছে ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’। আবহবিদদের অনুমান, আগামী ২৪ থেকে ৩৬ ঘণ্টার মধ্যেই; বাংলার উপকূলের কাছে চলে আসবে ‘অশনি’।

মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত উত্তর-পশ্চিমে অগ্রসর হয়ে; উত্তর অন্ধ্র-ওড়িশা উপকূলের অদূরে পশ্চিম-মধ্য ও তৎসংলগ্ন উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’র অবস্থান। তারপর ঘূর্ণিঝড় উত্তর-পূর্ব দিক পরিবর্তন করে; উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে ওড়িশা উপকূলে অবস্থানের সম্ভাবনা।

অশনি-র প্রভাবে ইতিমধ্যেই কলকাতা সহ গোটা দক্ষিনবঙ্গেই; শুরু হয়েছে তুমুল বৃষ্টি। বৃষ্টি হচ্ছে উপকূলবর্তী দুই জেলা পূর্ব মেদিনীপুর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায়; বৃষ্টি হচ্ছে হাওড়াতেও। আগামী শুক্রবার পর্যন্ত; বাংলায় ঝড়বৃষ্টির পূর্বাভাস। আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস, সোমবার থেকে শুক্রবারের মধ্যে; কলকাতা সহ উপকূলবর্তী জেলাগুলিতে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

তবে ‘অশনি’ ঘূর্ণিঝড় কোন পথে স্থলভাগে ঢুকবে; তা এখনও স্পষ্ট নয়। সোমবার সকালে আবহাওয়া দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী; ঘূর্ণিঝড়ের কেন্দ্র তৈরি হয়নি। ফলে ঘূর্ণিঝড়ের উপকূলের দিকে এগোনোর গতিবেগ জানা গেলেও; ঘূর্ণিঝড়ের ঘূর্ণাবর্তের গতি কতটা, স্থলভাগে সেটি প্রবেশ করলে কত গতিতে ঝড় হবে তা জানা যায়নি।

সোমবার থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত; মত্‍স্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। এদিকে, ‘অশনি’ মোকাবিলায় তৎপর রাজ্য প্রশাসন; সোমবার দুপুরে নবান্নে জরুরি বৈঠক ডেকেছেন মুখ্যসচিব। কোথায় কী কী সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নেওয়া হবে; সেই বিষয়ে বৈঠকে আলোচনা হবে।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন