“উনি কিছু খাননি”? ইডি হেফাজতেও পার্থর শরীর নিয়ে চিন্তায় অর্পিতা

40
"উনি কিছু খাননি"? ইডি হেফাজতেও পার্থর শরীর নিয়ে চিন্তায় অর্পিতা

“উনি কিছু খাননি”? ইডি হেফাজতেও পার্থর শরীর নিয়ে চিন্তায় অর্পিতা। অপা, গত কয়েকদিনে রাজ্য জুড়ে সবচেয়ে চর্চিত জুটির নাম একটিই। পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং অর্পিতা মুখোপাধ্যায়; সংক্ষেপে ‘অপা’। বাংলার চর্চায় থাকা নতুন জুড়ি। পার্থর দেওয়া অর্পিতার দুটি ফ্লাটে ইতিমধ্যেই উদ্ধার হয়েছে; ৫০ কোটি নগদ টাকা ও আরও ৫০ কোটির সম্পত্তি। আর কত সম্পত্তি রয়েছে তাঁদের দুজনের নামে; দুজনের ঘনিষ্ঠতাই বা কতটা, তা নিয়ে আমজনতার আগ্রহের শেষ নেই। অর্পিতার ৩১টা জীবনবীমার পলিসি-তেও; নমিনি সেই পার্থ। আর এই ‘ভালবাসার টান’ কমেনি; ইডি হেফাজতে গিয়েও। পার্থর শরীরের দিকে; কড়া নজর বান্ধবী অর্পিতার।

সম্পর্কটা যে শুধু টাকাকড়ি কিংবা সম্পত্তির ছিল তা নয়; দুজনের মধ্যে হৃদয়ের টানও ছিল গভীর। তা না হলে কি আদালতে ঢোকার আগেও; অর্পিতার চোখেমুখে ‘স্যর’ পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের জন্য এত চিন্তা এত উদ্বেগ ধরা পড়ে। মনের যোগ না খাকলে কি আদালতের লকআপে ঢোকার আগে; ছলছল চোখে মডেল-অভিনেত্রী জানতে চান, ‘স্যর কিছু খাননি?’ এর দ্বারাই বোঝা যায়; ঘনিষ্ঠতা কতটা ছিল।

আরও পড়ুনঃ মমতা দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় আসার পরেই শুরু পার্থ-অর্পিতার ‘ঘনিষ্ঠতার লীলাখেলা’

বুধবার দুপুরে দুজনকে ব্যাঙ্কশাল কোর্টে তোলা হলে; দুজনে খুব কাছাকাছিই দাঁড়িয়েছিলেন। কিন্তু কেউ কারোর সঙ্গে কথা বলেনি। শুধু লকআপে প্রবেশের আগে; এক পুলিশকর্মীকে অর্পিতার প্রশ্ন ছিল; “স্যর কিছু খাননি?” এরপর নিজের মনেই বলতে থাকেন; “স্যর কিচ্ছু খাচ্ছেন না”। নিজে অবশ্য কিছুই খাননি ‘ম্যাডাম’ অর্পিতা; বন্ধু পার্থ কিছু খাচ্ছেন না বলে। এ কি অপূর্ব প্রেম!

আদালতে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট বা ইডি-র আইনজীবীদের সওয়াল জবাবে; উঠে এসেছে বহু প্রশ্ন। উঠে এসেছে অর্পিতার জীবনবিমার সংক্রান্ত তথ্য, যেখানে নমিনি আছেন পার্থ। ইডি জানিয়েছে, ২০১২ সাল থেকে দুজনের ব্যবসায়িক সম্পর্ক ছিল; একসঙ্গে দুজনে খুলেছেন কোম্পানি। ২ জনের একটি পার্টনারশিপ সংস্থার তথ্য সামনে এনে; এমনটাই দাবি করেছে ইডি।

কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সূত্রে দাবি, ২০১২ সালের ১ নভেম্বর খোলা হয়েছিল; ‘অপা ইউটিলিটি সার্ভিসেস’। সমান অংশীদার পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও অর্পিতা মুখোপাধ্যায়; কোম্পানিতে দু’জনেরই ৫০ শতাংশ করে শেয়ার ছিল। ইডি সূত্রে খবর, সংস্থার ২টি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের বিষয়টি; জেরায় অর্পিতা নিজেই জানান ইডি অফিসারদের।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন