চাপে পরে ‘বেড রেস্ট’ লিখতে বাধ্য হয়েছি, ফাঁস করে দিলেন অনুব্রতর ডাক্তার

58
চাপে পরে 'বেড রেস্ট' লিখতে বাধ্য হয়েছি, ফাঁস করে দিলেন অনুব্রতর ডাক্তার
চাপে পরে 'বেড রেস্ট' লিখতে বাধ্য হয়েছি, ফাঁস করে দিলেন অনুব্রতর ডাক্তার

হাসপাতাল সুপারের নির্দেশে ‘বেড রেস্ট’ লিখতে বাধ্য হয়েছি, ফাঁস করলেন অনুব্রতর ডাক্তার। ‘হাসপাতাল সুপারের নির্দেশেই, সাদা কাগজে অ্যাডভাইস লিখে দিয়েছি’, বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন অনুব্রত মণ্ডলকে দেখতে যাওয়া চিকিৎসক চন্দ্রনাথ অধিকারী। এমনই বিস্ফোরক দাবি করলেন, বোলপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের চিকিৎসক চন্দ্রনাথ অধিকারী। আর সেই বক্তব্য প্রকাশ্যে আসতেই, শোরগোল রাজ্য জুড়ে। আদালতে যাচ্ছে সিবিআই।

অনুব্রত মণ্ডলের অনুরোধেই, তিনি চাপে পড়ে সাদা কাগজে বেড রেস্ট লিখে দিয়েছিলেন। এমন মন্তব্যও করেন বোলপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের চিকিৎসক চন্দ্রনাথ অধিকারী। তাঁর আরও অভিযোগ, বোলপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের সুপারের নির্দেশেই, অনিচ্ছা সত্ত্বেও অনুব্রতর বাড়িতে যেতে বাধ্য হয়েছিলেন তিনি। ‘বীরভূমে থাকি, সরকারি চাকরি করি, ওনাদের কোথা তো শুনতেই হবে’। জানিয়ে দেন ডাক্তার চন্দ্রনাথ অধিকারী।

আরও পড়ুনঃ ‘মা’দক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে যোগ থানার আইসি-র’, বি’স্ফোরক অভিযোগ তৃণমূল বিধায়কের

‘সিবিআই হাজিরা দেওয়ার মতো অবস্থাতেই আছেন অনুব্রত’, জানান চন্দ্রনাথ অধিকারী। ‘বাড়িতে গেলে ১৪ দিনের ‘বেড রেস্ট’ লিখে দিতে বলেন অনুব্রত, উনি তৃণমূল সভাপতি এবং প্রভাবশালী ব্যক্তি। উনি বললে কি না লিখতে পারি? বোলপুরে থাকি বলেই ‘বেড রেস্ট’ লিখতে বাধ্য হয়েছি। সুপারের নির্দেশেই সাদা কাগজে অ্যাডভাইস লিখে দিয়েছি’। বিস্ফোরক দাবি বোলপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের চিকিৎসক চন্দ্রনাথ অধিকারীর।

তাঁর এমনও দাবি, বিশ্রামের প্রয়োজন থাকলেও সাপোর্টিভ সিস্টেম দিয়ে অনুব্রতকে কলকাতায় নিয়ে যাওয়া সম্ভব। অনুব্রত সিবিআই-এর সামনে হাজিরা দেওয়ার মতো অবস্থাতেও রয়েছেন বলে দাবি চিকিৎসকের।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন