তোলাবাজির বিরুদ্ধে বাংলার টোটো চালকরা নামল প্রতিবাদ মিছিলে

358
তোলাবাজির বিরুদ্ধে বাংলার টোটো চালক নামল প্রতিবাদ মিছিলে/The News বাংলা
তোলাবাজির বিরুদ্ধে বাংলার টোটো চালক নামল প্রতিবাদ মিছিলে/The News বাংলা

কাটমানি ফিরিয়ে দেওয়ার দাবিতে; আন্দোলন শুরু করলেন; বনগাঁ মতিগঞ্জ নিমতলা ই-রিক্সা ইউনিট। শহরের ই-রিকশা ও টোটো চালকেরা; জোটবদ্ধ হয়ে প্রতিবাদ মিছিলে পা বাড়ান। ত্রিকোণ পার্ক এলাকা থেকে শুরু হয়ে; বনগাঁ পুলিশ সুপার অফিসের কাছে গিয়ে মিছিল শেষ হয়। পুলিশ ও মহকুমা শাসকের কাছে দাবিপত্র জমা দেন তাঁরা।

তাদের দাবি, রোজ জোর করে; তাদের কাছ থেকে কুড়ি টাকা করে নেওয়া হত। নিজেদের ইচ্ছে মতো; তারা পুরোনো টোটো বিক্রি করতে পারত না। আবার নতুন টোটো কিনলে; রসিদও দেওয়া হত না। যা কিছু করা হত; সব-ই ইউনিয়ন মারফৎ।

আরও পড়ুনঃ ব্যাঙ্ক জালিয়াত মেহুল চোকসিকে অ্যান্টিগা থেকে দেশে ফিরিয়ে আনছে মোদী সরকার

বনগাঁর এসডিপি অশেষ বিক্রম দস্তিদার বলেন “চালকেরা তাঁদের দাবিপত্র জমা দিয়েছেন। তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে”। টোটো চালকদের অভিযোগ; ইউনিয়ন কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে। ই-রিকশা চালকেরা এ দিন; তৃণমূলের শ্রমিক সংগঠনের ব্যানার নিয়ে মিছিল করেছেন। তাতে মুখ্যমন্ত্রী ও বনগাঁর পুরপ্রধান শঙ্কর আঢ্যের ছবি থাকায়; তৃণমূল পালটা অভিযোগ তুলেছে।

তৃণমূল নেতৃত্বের দাবি, ই- রিকশা চালকেরা; দলের কাছ থেকে কোনো অনুমতি না নিয়েই; দলের ব্যানার ব্যবহার করেছেন। শঙ্কর আঢ্য বলেছেন, “মতিগঞ্জ এলাকায় রবিবার গভীর রাত পর্যন্ত বিজেপির কার্যালয়ে বৈঠক করে চালকেরা বিজেপির মদতে মিছিল করেছেন”।

আরও পড়ুনঃ আইসিস জঙ্গিদের নজরে এবার বাংলা, হাওড়া শিয়ালদা থেকে পাকড়াও নব্য জামাত জঙ্গি

আরও বলেন, “মুখ্যমন্ত্রী ও আমার ছবি ব্যবহার করার অনুমতি ওরা নেয়নি। ওরা মুখ্যমন্ত্রীর দেওয়া পোশাক পরে মিছিল করেছে। মিছিল শেষে আবার সেই পোষাক খুলে ফেলেছে। অদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য; প্রশাসনের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছি”।

পুরপ্রধান বলেন, “বেআইনি কিছু টোটো শহরে চলছে। বনগাঁ শহরকে যানজটমুক্ত করতে; প্রশাসনকে বেয়াইনি টোটো চালকদের বিরুদ্ধে; ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। ওই বেআইনি টোটো চালকদের; পুরসভার কোনো অনুমতি পত্রও নেই”। চালকদের দাবি, তারা রাজনীতির মধ্যে নেই; তারা নিজেদের টাকা ফেরত্‌ চায়।

মদত দেওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন বিজেপি নেতৃত্ব। বিজেপি বারাসাত সাংগঠনিক জেলার সহ সভাপতি দেবদাস মন্ডল বলেন, “ই-রকশা ও টোটো চালকেরা দীর্ঘদিন ধরে অত্যাচারিত। তাই তাঁরা টাকা ফেরানর দাবি তুলেছেন”। তদন্ত শুরু করেছে প্রশাসন।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন