টাকার বিনিময়ে চিনা নাগরিকদের ভিসা, চিদম্বরমের ছেলে কার্তি-কে সিবিআই জেরা

56
টাকার বিনিময়ে চিনা নাগরিকদের ভিসা, চিদম্বরমের ছেলে কার্তি-কে সিবিআই জেরা
টাকার বিনিময়ে চিনা নাগরিকদের ভিসা, চিদম্বরমের ছেলে কার্তি-কে সিবিআই জেরা

টাকার বিনিময়ে চিনা নাগরিকদের ভিসা; চিদম্বরমের ছেলে কার্তি-কে সিবিআই জেরা। এর আগে, আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতি মামলায়; নাম জড়িয়েছিল বাপ-বেটার। এবার টাকার বিনিময়ে চিনা নাগরিকদের ভিসা! চিদম্বরমের ছেলে কার্তি-কে জিজ্ঞাসাবাদ সিবিআইয়ের। বেআইনি ভিসা মামলায় আরও বিপাকে; কংগ্রেস নেতা পি চিদম্বরমের ছেলে তথা সাংসদ কার্তি চিদম্বরম। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই, কার্তি চিদম্বরম-কে; জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে সিবিআই আধিকারিক-রা।

টাকার বিনিময়ে চিনা নাগরিকদের ভিসা দেওয়ার অভিযোগে; কার্তি-কে তলব করেছিল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। সেই মত, বৃহস্পতিবার সকালেই সিবিআই দফতরে যান কার্তি। সিবিআই সূত্রের খবর, চিদম্বরম এবং তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে; ২০১০ থেকে ২০১৪ সালের মধ্যে বিদেশে আর্থিক লেনদেন সংক্রান্ত বিষয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে। অভিযোগ, চিদম্বরম কেন্দ্রীয় মন্ত্রী থাকাকালীন ২০১১ সালে; পঞ্জাবে বেদান্ত গোষ্ঠীর একটি প্রকল্পে কাজের জন্য, ২৬৩ জন চিনা নাগরিককে টাকার বিনিময়ে; ভারতের ভিসা দেওয়ার ব্যবস্থা করে দিয়েছিলেন তাঁর ছেলে কার্তি।

আরও পড়ুনঃ কাশ্মীরি পণ্ডিতের পরে, ল’স্কর জ’ঙ্গিদের গু’লিতে নি’হত জনপ্রিয় অভিনেত্রী

সিবিআই সূত্রের খবর, ৫০ লক্ষ টাকার বিনিময়ে; ২৫০ জন চিনা নাগরিককে বেআইনি-ভাবে ভিসা পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে কার্তি চিদম্বরমের বিরুদ্ধে। যার জেরে গত সপ্তাহে দিল্লি, মুম্বই, চেন্নাই ও তামিলনাড়ুতে; চিদম্বরমের বাড়ি ও কার্যালয়ে জোরদার তল্লাশি চালিয়েছে সিবিআই।

শুধু তাই নয় কার্তির ঘনিষ্ঠ বন্ধু এবং সহযোগী এস ভাস্কররামনকে; ইতিমধ্যেই এই মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে। সূত্রের দাবি, ভাস্কররামনকে জেরা করে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতেই; কার্তি-কে তলব করা হয়েছে। তাঁর বয়ান রেকর্ড করা হতে পারে। কার্তির ঘনিষ্ঠ সহযোগী ভাস্কররামনের মাধ্যমেই; বেআইনি ভাবে টাকার লেনদেন হয়েছিল বলে সিবিআইয়ের দাবি। ইউরোপ সফর থেকে ভারতে ফিরেই; বৃহস্পতিবার সিবিআই দফতরে যান তামিলনাড়ুর কংগ্রেস সাংসদ।

যদিও কংগ্রেস সাংসদের সাফ কথা, এই ধরনের কোনও ঘটনার সঙ্গে; তিনি জড়িত নন। এদিন সিবিআই দফতরে হাজিরা দেওয়ার সময় তিনি স্পষ্ট বলে দেন; “আমি জীবনে একজন চিনা নাগরিককেও; ভিসা পাইয়ে দিতে সাহায্য করিনি। আমার বিরুদ্ধে যা যা অভিযোগ আনা হয়েছে সব মিথ্যে”। কার্তির অভিযোগ, স্রেফ রাজনৈতিকভাবে বিরোধী বলেই; এজেন্সি দিয়ে তাঁকে হেনস্তা করা হচ্ছে। পি চিদম্বরম এবং কার্তি চিদম্বরম, দুজনেই এর আগে গ্রেফতার হয়েছিলেন; আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতি মামলায়।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন