পাকিস্থান চিনকে ভয় দেখিয়ে বালাশোরে পিনাক রকেট ছুঁড়ল ভারত

565
পাকিস্থান চিনকে ভয় দেখিয়ে পোখরানে পিনাক রকেট ছুঁড়ল ভারত/The News বাংলা
পাকিস্থান চিনকে ভয় দেখিয়ে পোখরানে পিনাক রকেট ছুঁড়ল ভারত/The News বাংলা

পাকিস্থান চিনকে ভয় দেখিয়ে ওড়িশার বালাশোরে অ্যাডভান্স ভার্সনের পিনাক রকেট ছুঁড়ল ভারত। পিনাক রকেটের আওতায় পাকিস্থান ও চিন। সোমবার পিনাক রকেটের পরীক্ষা করে ডিআরডিও। পিনাক রকেট নিখুঁত ভাবে লক্ষ্য বস্তুতে আঘাত করেছে বলেই জানান হয়েছে ডিআরডিও এর তরফ থেকে।

ভারত পাক যুদ্ধের এই আবহাওয়ায় পিনাক রকেটের এই সফল টেস্ট চিন্তায় রাখবে পাকিস্তান ও তার বন্ধু চিনকে এমনটাই মনে করছে আন্তর্জাতিক মহল। ডিআরডিও-কে পিনাক রকেট এর এই সফল পরীক্ষার জন্য শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আধুনিক পর্যায়ের পিনাক রকেট টেস্ট করল ভারত।

আরও পড়ুনঃ লোকসভা ভোটের আগে পাকিস্তানে ফের একটা সার্জিক্যাল স্ট্রাইক হবে

আজ সোমবার ভারতীয় সেনার জন্য বড় খুশির খবর নিয়ে এলো পিনাক। আজ উড়িষ্যার বালাশোরে পিনাক মিসাইলের দুবার সফল পরীক্ষণ করল ডিআরডিও। দুইবারই এই মিসাইল ৯০ কিমি দূরে থাকা টার্গেটকে ধ্বংস করে দিয়েছে।

গত বছরে উড়িষ্যার চাদিপুরে Proof and Experimental Establishment এর সাহায্যে পিনাক রকেটের অ্যাডভান্স ভার্সনের সফল পরীক্ষা করা হয়েছিল। গাইডেড সিস্টেমের এই রকেটে ধংসের ক্ষমতা আরও বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। প্রতিরক্ষা সূত্র থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, ‘দুবার এই মিসাইলের সফল পরীক্ষা করা হয়েছে, আরও কিছু পরীক্ষা করার পরিকল্পনা চলছে’।

আরও পড়ুনঃ মমতাকে মুকুলের ভয় দেখিয়ে কি রাজ্যে মন্ত্রী হচ্ছেন অর্জুন

পিনাক এমএলআর— এমন শক্তিশালী মাল্টিপল লঞ্চ রকেট সিস্টেম খুব কম দেশেরই রয়েছে। পাকিস্তানের তো নেই-ই। একসঙ্গে ১২টি রকেট ধেয়ে যেতে পারে শত্রুর দিকে। পিনাক মাল্টিপল ব্যারেল রকেট লঞ্চিং সিস্টেমটি তৈরি করেছে ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন। ভারতীয় সেনাবাহিনীর জন্য এই অস্ত্র বিশেষ যত্ন নিয়ে তৈরি করা হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ রমজান মাসে নির্বাচনে কোনও সমস্যা নেই, ববিকে পাল্টা দিলেন ওয়েসি

যে কোনো প্রতিকূল পরিস্থিতি, যেমন বরফঢাকা উপত্যকায় চরম ঠাণ্ডার মধ্যেও নিখুঁতভাবে আঘাত হানতে সক্ষম এই পিনাক। ১৯৯৯ সালে কার্গিল যুদ্ধের সময় প্রথম পিনাক ক্ষেপণাস্ত্র সফলভাবে ব্যবহার করা হয়েছিল।

পিনাক লঞ্চিং সিস্টেম থেকে প্রতি ৪৪ সেকেন্ডে এক ডজন ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়া সম্ভব। ব্যারেল খালি হয়ে গেলে মাত্র চার মিনিটে ‘রিলোড’ করা যায়। একটি সিঙ্গল লঞ্চিং সিস্টেমওয়ালা ৮x৮ টেট্রা ট্রাকে ১২টি ক্ষেপণাস্ত্র ‘লোড’ করা যায়। একেকটি মিসাইল ৪০-৬৫ কিমি দূরে লক্ষ্যবস্তুর উপর নিখুঁতভাবে আঘাত হানতে সক্ষম।

আরও পড়ুনঃ সুব্রত বক্সির বদলে কলকাতা দক্ষিণ কেন্দ্রে কি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

শুধু স্থির নয়, চলমান লক্ষ্যবস্তুর উপরেও আঘাত হানতে পারে পিনাক। এই কাজের জন্য পিনাকে ব্যবহৃত হয় অত্যাধুনিক অ্যাডভান্সড ইনার্শিয়াল ন্যাভিগেশন সিস্টেম। কম্পিউটার, মোশন সেন্সর ও রোটেশন সেন্সরের সাহায্যে লক্ষ্যবস্তুর পজিশন, চলাচল, কোন দিক থেকে কোন দিকে তা যাচ্ছে, সমস্তটাই নিখুঁতভাবে হিসেব করা যায়।

আরও পড়ুনঃ বাংলার কোন লোকসভা আসনে কবে ভোট দেখে নিন

পিনাক বেশ কয়েকটি মোডে ‘রান’ করতে পারে। যেমন অটোনমাস বা স্বয়ংক্রিয় মোড, স্ট্যান্ড অ্যালোন মোড, রিমোট মোড, ম্যানুয়াল মোড ইত্যাদি। এটিতে রকেটে জিপিএস গাইডেন্স সিস্টেম লাগানোর চেষ্টা চলচ্ছে। পাশাপাশি এর পাল্লা বাড়াতেও চলছে গবেষণা।

আরও পড়ুনঃ লোকসভা ভোটে বিজেপির একমাত্র ভরসা সেই নরেন্দ্র মোদীই

এবার যে পিনাক রকেট টেস্ট ফায়ার করা হল তাতে ১২০ কিমি দূরের লক্ষ্যবস্তুতেও আঘাত হানতে পারে, জানিয়েছে ডিআরডিও। সব থেকে বড় ব্যাপার, পিনাকের সমান শক্তিসম্পন্ন আমেরিকান ক্ষেপণাস্ত্র এম ২৭০ এর দামের তুলনায় পিনাক দশগুণ সস্তা। প্রথমে পিনাকা মিসাইলে গাইডেড সিস্টেম ছিলনা, এখন সেটিকে অত্যাধুনিক করে গাইডলাইন সিস্টেম দিয়ে চালনা করা হবে। খুব শিঘ্রই পিনাকের এই অত্যাধুনিক রকেট সেনার হাতে তুলে দেওয়া হবে বলেই জানা গেছে।

আরও পড়ুনঃ পশ্চিমবঙ্গে নজিরবিহীন ৭ দফা ভোটে সুবিধা বিজেপির

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন