চোখ মেরে শাড়ির আঁচল ফেলে প্রচার মুনমুনের, সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড়

2204
চোখ মেরে, শাড়ির আঁচল ফেলে আসানসোলে প্রচার শুরু মুনমুনের/The News বাংলা
চোখ মেরে, শাড়ির আঁচল ফেলে আসানসোলে প্রচার শুরু মুনমুনের/The News বাংলা

ফের সোশ্যাল মিডিয়ায় মুনমুন সেন ঝড়। এবার চোখ মেরে, শাড়ির আঁচল ফেলে প্রচার শুরু মুনমুন সেনের। আর তাই নিয়েই সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড়। তুমুল সমালোচনা বিজেপি ও বামেদের তরফ থেকে। প্রচারে এইসব স্বাভাবিক, জানাচ্ছেন তৃণমূল নেতারা।

আসানসোল লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী মুনমুন সেন। রবিবার কল্যাণেশ্বরী মন্দিরে পুজো দিয়ে শুরু করেন ভোটের প্রচার। কখনও পায়ে হেঁটে কখনও আবার হুড খোলা গাড়িতে ঘুরলেন আসানসোলের রাস্তায়। শেষে করেন সাংবাদিক সম্মেলন। প্রথমে প্রচারে চোখ মেরে ও তারপর সাংবাদিক সম্মেলনে শাড়ির আঁচল ফেলে প্রথম দিনেই শোরগোল ফেলে দিলেন বাংলার অতীত দিনের হার্টথ্রব।

গতবার বিজেপির বাবুল সুপ্রিয়র বিরুদ্ধে তৃণমূল প্রার্থী করেছিল দোলা সেনকে। আর এ বার মুনমুন সেন। সেটাকেই ‘সেন-সেশন্যাল’ বলেছেন বাবুল। মুনমুন সেন ২০১৪ সালে বাঁকুড়া থেকে জিতেছিলেন। কিন্তু বাঁকুড়ার তৃণমূল জেলা নেতৃত্ব তাঁকে নিয়ে একেবারেই সন্তুষ্ট ছিলেন না। অভিযোগ জমা পরেছিল দলনেত্রীর কাছে।

আরও পড়ুনঃ ভাটপাড়ায় অনাস্থা, তৃণমূল বনাম বিজেপির জমজমাট লড়াই

মুনমুনকে যে আর বাঁকুড়ায় মমতা দাঁড় করাবেন না, তা অনেক দিন আগেই নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু তাঁকে যে আসানসোলে পাঠানো হবে এ কথা বোধহয় তৃণমূলের উপরের সারির অনেক নেতাই আন্দাজ করতে পারেননি। মুনমুন সেনকে প্রতিপক্ষ পেয়ে বাবুল যেন অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসী।

চোখ মেরে, শাড়ির আঁচল ফেলে আসানসোলে প্রচার শুরু মুনমুনের/The News বাংলা
চোখ মেরে, শাড়ির আঁচল ফেলে আসানসোলে প্রচার শুরু মুনমুনের/The News বাংলা

আসানসোল লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূলের প্রার্থী মুনমুন সেনের নাম ঘোষণা হতেই শুধু কর্মীরাই নন নেতারাও তুলি ধরে দেওয়ালে দেওয়ালে নাম লেখা শুরু করেছেন। আসানসোলের মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারি থেকে শুরু করে আসানসোল দুর্গাপুর ডেভলপমেন্ট অথরিটির চেয়ারম্যান তথা বিধায়ক তাপস বন্দ্যোপাধ্যায়, বারাবনির বিধায়ক বিধান উপাধ্যায় থেকে শুরু করে মেয়র পারিষদরা দেওয়াল লিখনে হাত লাগিয়েছেন।

আরও পড়ুনঃ মমতার প্রার্থী তালিকা নিয়ে গোপনে ক্ষোভ বাড়ছে জেলায় জেলায়

গতবারের দোলা সেন এপিসোড থেকে শিক্ষা নিয়ে প্রত্যেক নেতাকে এবার টার্গেট বেঁধে দিয়েছেন মমতা। দলীয় প্রার্থী কবে কোথায় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন, সেটাও রবিবারই চূড়ান্ত হয়েছে বলে জানান পশ্চিম বর্ধমান জেলা তৃণমূলের সভাপতি ভি শিবদাসন দাসু।

এদিকে রবিবার প্রচারে বেড়িয়ে চোখ মেরে সোশ্যাল মিডিয়ায় শোরগোল ফেলে দিয়েছেন মুনমুন সেন। এরপর সাংবাদিক সম্মেলনে সবার সামনে শাড়ির আঁচল ফেলে সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় তুলে দেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ বাম কংগ্রেস বিজেপির আপত্তি নেই, কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়ে কেন মাথাব্যথা শুধু তৃণমূলের

তুমুল অস্বস্তিতে পরে যান, বিধায়ক মলয় ঘটক, তাপস বন্দ্যোপাধ্যায়, জিতেন্দ্র তিওয়ারি সহ তৃণমূল বিধায়ক ও নেতারা। ততক্ষণে সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। এই বয়সেও ঝড় তুলে প্রচার শুরু করলেন মুনমুন, বলছেন সাধারণ মানুষ।

এইবার যে কোনও মূল্যে আসানসোল কেন্দ্রে জয় চায় তৃণমূল। তাই সময় নষ্ট না করে রঙের উৎসবের আগেই আদাজল খেয়ে প্রার্থীকে নিয়ে নেমে পরেছেন পশ্চিম বর্ধমান জেলা নেতৃত্ব। প্রচার নিয়ে মুনমুন সেনের প্রতিক্রিয়া, “কলকাতায় গিয়ে নেত্রীর সঙ্গে আগে কথা বলি। তারপর আমার কেন্দ্রে গিয়ে সব প্রশ্নের জবাব দেব”। তবে ইতিমধ্যেই যে তিনি আসানসোল সহ রাজ্যে ঝড় তুলে দিয়েছেন তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

>আরও পড়ুনঃ বিরোধী মহিলা প্রার্থীদের ‘মাল’ সম্বোধন করে কুরুচিপূর্ণ আক্রমণ ফিরহাদের

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন