একদিকে মোদীর সমালোচনা অন্যদিকে অনুসরণ, মমতার ‘নিজশ্রী’

810
মোদী বনাম মমতা/The News বাংলা
মোদী বনাম মমতা/The News বাংলা

The News বাংলা, কলকাতা: ‘কন্যাশ্রী’, ‘যুবশ্রী’, ‘রূপশ্রী’ প্রকল্পের পর রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নতুন প্রকল্প নিয়ে এসেছেন, ‘নিজশ্ৰী’। কিন্তু জানেন কি এই ‘নিজশ্ৰী’ কি? এটাও কি মোদী সরকারের কোন প্রকল্পের পাল্টা?

‘কন্যাশ্রী’, ‘যুবশ্রী’, ‘রূপশ্রী’ প্রকল্পের পর বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নতুন প্রকল্প,’নিজশ্ৰী’। এইসব প্রকল্পের মাধ্যমেই তিনি ভোটে ‘ফল’ পেয়ে এসেছেন। রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই ‘নিজশ্ৰী’ প্রকল্পের কথা বলেছেন তিনি। এতে বলা হয়েছে নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য নিজস্ব বাসস্থান এর ব্যবস্থা।

মোদী বনাম মমতা/The News বাংলা
মোদী বনাম মমতা/The News বাংলা

এই প্রকল্প অনুযায়ী সরকারি জমিগুলিতে ফ্ল্যাট তৈরী করে হবে। ওয়ান বেডরুম ফ্ল্যাট এর কার্পেট এরিয়া থাকবে ৩৭৮ বর্গফুট। দুই বেডরুমে থাকবে ৫৫৯ বর্গফুট। ১ বিএইচকে ফ্ল্যাট এর দাম ৭ লক্ষ ২৮ হাজার এবং ২ বিএইচকে ফ্ল্যাটের দাম ৯ লক্ষ ২৬ হাজার রাখা হবে।

আরও পড়ুনঃ Exclusive: ভারতবাসীকে ‘জ্ঞান’ দেওয়া প্রিয়াঙ্কা নিজে কি করলেন

কলকাতা পুরসভা, নগরোন্নয়ন দফতর, জেলাভিত্তিক বিভিন্ন পুরসভা, পঞ্চায়েত বা উন্নয়ন পর্ষদগুলির ওপর দায়িত্ব থাকবে ফ্ল্যাট তৈরির। এক একটি ফ্লাট বাড়ি হবে ৫ তলার।

মোদী বনাম মমতা/The News বাংলা
মোদী বনাম মমতা/The News বাংলা

নিম্ন এবং মধ্যবিত্তদের জন্য মমতার এই প্রকল্পে কে কে আবেদন করতে পারবেন? জনানো হয়েছে যে, সমস্ত পরিবারের মাসিক উপার্জন ১৫০০০ থেকে শুরু করে ৩০০০০ পর্যন্ত, সেই সব পরিবারই আবেদন করতে পারবেন। ফ্ল্যাটের মালিকানা থাকবে এই সব মানুষের হাতেই। দলিলও দেওয়া হবে উপভোক্তাদের নামেই।

আরও পড়ুন: টানা জেরায় রহস্য ফাঁস, মোবাইল তার জড়িয়ে স্বামীকে হত্যা স্ত্রীর

তবে স্বজনপোষণ করে যাতে ফ্ল্যাট বিক্রি না হয়, তাও লক্ষ্য রাখা হবে বলে পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শীঘ্রই এই প্রকল্পের জন্য আলাদা সরকারী ওয়েবসাইট তৈরী শুরু হবে।

অনলাইন এ আবেদন করতে হবে, আবেদনকরীদের মধ্যে লটারির মাধ্যমে ফ্ল্যাট বন্টন হবে। একবার লটারিতে ফ্ল্যাট না পেলে আবার আবেদন করতে পারবেন। তবে একটি পরিবার একাধিক ফ্ল্যাট পাবেন না।

মোদী বনাম মমতা/The News বাংলা
মোদী বনাম মমতা/The News বাংলা

এদিকে ইতিমধ্যে ২০২২ সালকে টার্গেটে রেখে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ঘোষনা করেছেন এইরকমই একটি প্রকল্প। নাম দেওয়া হয়েছে, ‘হাউসিং ফর অল’। এই ‘হাউসিং ফর অল’, প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় গরীবদের জন্য প্রাথমিক পর্বে শহরে ৫৪ লাখ ও গ্রামে ১ কোটি ফ্লাট তৈরির সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। যদিও, ২০১৯ এর লোকসভা ভোটের দিকে তাকিয়ে ভোট টানতেই তাড়াহুড়ো করে এই ঘোষণা বলে সমালোচনা রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের।

আরও পড়ুন: Exclusive: বাংলা সংস্কৃতির ‘ব্যান্ড’ বাজাল অনুব্রতর চ্যালারা

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা(PMAY), অটল মিশন ফর রিজুভেনেসন অফ আরবান ট্রান্সফরমেশন(AMRUT) এবং স্মার্ট সিটি মিশন(SCM) এর মাধ্যমে এই প্রকল্প পুরণ করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বয়ং নরেন্দ্র মোদী।

মোদী বনাম মমতা/The News বাংলা
মোদী বনাম মমতা/The News বাংলা

আর মোদীর এই ‘হাউসিং ফর অল’ প্রকল্পেরই পাল্টা মমতার ‘নিজশ্রী’। ঠিক যেমন মোদীর ‘স্বচ্ছ ভারত’ মিশনের কথা মাথায় রেখে বাঙলায় ‘নির্মল বাঙলা’ প্রকল্প চালু করেছিলেন মমতা। ঠিক তেমনই এবার গরিব মানুষদের কম টাকায় ফ্লাট দেবার মোদী-মমতা লড়াই।

আরও পড়ুন: কৃষক র‍্যালিকে ঢাল করেই মোদী বিরোধী মঞ্চ গঠনের মরিয়া চেষ্টা বিরোধীদের

অর্থৎ, একথা স্পষ্ট যে মোদীকে সবদিক থেকে টেক্কা দিতে পিছপা হবেন না মমতা। ইতিমধ্যেই, পরবর্তী লোকসভা ভোটের জন্য উঠে পড়ে লেগেছে মমতার দল। উঠে পড়ে লেগেছে গেরুয়া পার্টিও।

মোদী বনাম মমতা/The News বাংলা
মোদী বনাম মমতা/The News বাংলা

২০১৯ সালের শুরুতেই লোকসভা ভোট হতে পারে, সেই ভেবেই এই প্রকল্পের ঘোষনা করেছেন মমতা, বলেই অভিযোগ রাজ্যের বিরোধী দলগুলির। ঠিক একই অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে দিল্লিতে কংগ্রেস সহ অন্যান্যদের। সেই সমালোচনায় আছে বাংলার তৃণমূল কংগ্রেসও।

আপাততঃ নিজের ফ্ল্যাটের আশায় ভারত ও বাংলার গরিব মানুষ। একদিকে সমালোচনা অন্যদিকে পাল্টা দেবার অনুসরণ, মোদী মমতার লড়াইয়ে সুফল যদি ভারতের আমজনতা পায়, সেটাই হবে দেশের পক্ষে সবচেয়ে ভালো খবর।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন