“টাকা মাটি, মাটি টাকা”, দক্ষিণেশ্বর গিয়ে রামকৃষ্ণের বাণী স্মরণ করে ‘আধ্যাত্মিক’ মমতা

73
"টাকা মাটি, মাটি টাকা", দক্ষিণেশ্বর গিয়ে এ কি বললেন মমতা

“টাকা মাটি, মাটি টাকা”, দক্ষিণেশ্বর গিয়ে রামকৃষ্ণের বাণী স্মরণ করে; ‘আধ্যাত্মিক’ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন, অডিও-ভিজুয়াল মাধ্যমে প্রাচীন মন্দিরের ইতিহাস বর্ণনা করার জন্য; দক্ষিণেশ্বরে আকর্ষণীয় ‘লাইট অ্যান্ড সাউন্ড’ প্রকল্প চালু হয়ে গেল মুখ্যমন্ত্রী মমতার হাত ধরে। রামকৃষ্ণদেব-সারদা-বিবেকানন্দের স্মৃতি বিজড়িত দক্ষিণেশ্বরে; শত বছরের প্রাচীন মন্দির সংস্কারে আগেই একাধিক কাজ করেছে রাজ্য সরকার। পুণ্যার্থীদের সুবিধায় দক্ষিণেশ্বর মন্দির চত্বরে ডালা আর্কেড থেকে শুরু করে; মন্দির পর্যন্ত স্কাইওয়াক তৈরি করা; অনেক কাজই করেছে মা মাটি মানুষের সরকার।

দক্ষিণেশ্বরের সঙ্গে ওতোপ্রতোভাবে জড়িয়ে; রামকৃষ্ণ-রানি রাসমনি-বিবেকানন্দের নাম। বৃহস্পতিবার নিজের বক্তব্যে সেসব মহান ব্যক্তিত্বের কথা; উল্লেখ করেই যেন আধ্যাত্মিক ভাব জাগ্রত হল মমতার। তারপরেই মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “রামকৃষ্ণদেব বলে গিয়েছেন, টাকা মাটি, মাটি টাকা। তার মানে কী? প্রয়োজনের অতিরিক্ত কিছু চাওয়া ঠিক নয়; কিন্তু এখন সকলের সব কিছু বেশি বেশি করে চাই। দরকার কী? যাতে সব মিটে যায়, তারপরও অতিরিক্ত চাওয়ার তো কিছু নেই”।

আরও পড়ুনঃ ‘অ’শান্তি নিয়ন্ত্রণে বাংলার রাস্তায় ভারতীয় সেনা’, মামলায় রায় দিল কলকাতা হাইকোর্ট

দক্ষিণেশ্বরের মাটিতে দাঁড়িয়েও, রামকৃষ্ণদেবের বাণী উল্লেখ করে; বিজেপিকে সুকৌশলে বিঁধলেন তিনি। নাম না করেই তাঁর মন্তব্য; “যাঁরা এসব বলে, তাঁদের মাথা জঞ্জালে ভরতি”। এদিন দক্ষিণেশ্বরের অনুষ্ঠানে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে ছিলেন; মদন মিত্র, সুজিত বসু, তাপস রায়, ফিরহাদ হাকিম। বিকেলে প্রথমে মুখ্যমন্ত্রী ভবতারিণীর মন্দিরে পুজো দেন; তারপর ‘লাইট অ্যান্ড সাউন্ড’ প্রকল্প চালু অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে সবশেষে নিজের বক্তব্য রাখেন। সেখানেই তিনি বলেন; “টাকা মাটি, মাটি টাকা”।

আরও পড়ুনঃ পরেশ, গুণধর, বীরেন্দ্র, দুর্নীতি করে নেতার মেয়েদের চাকরি হয়েছে, কাঁদছে ‘বাংলার মেয়েরা’

দুদিনের দিল্লি সফর শেষে, বৃহস্পতিবার কলকাতায় ফিরেছেন; মুখ্যমন্ত্রী মমতা। কলকাতায় ফিরেই যোগ দিয়েছেন; দক্ষিণেশ্বর মন্দিরের লাইট অ্যান্ড সাউন্ড উদ্বোধন অনুষ্ঠানে। শ্রীরামকৃষ্ণ, মা সারদা ও স্বামী বিবেকানন্দ ছাড়াও, অনেক মনীষির নাম জড়িয়ে আছে; দক্ষিণেশ্বরের কালী মন্দিরের সঙ্গে। সেই মন্দিরের ইতিহাস নিয়েই; লাইট অ্যান্ড সাউন্ডের প্রদর্শনী শুরু হল। আলো ও ধ্বনির মাধ্যমে মানুষের সামনে, দক্ষিণেশ্বরের ইতিহাসকে তুলে ধরার পরিকল্পনা; আগেই করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। কেএমডিএ-র উদ্যোগে বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রীর হাত দিয়েই; এই লাইট অ্যান্ড সাউন্ডের সূচনা হয়।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন