মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের নতুন ফরমান, মুসলিম অধ্যুষিত স্কুলে বানাতে হবে ডাইনিং হল

5353
মমতা সরকারের নতুন ফরমান, মুসলিম অধ্যুষিত স্কুলে বানাতে হবে ডাইনিং হল/The News বাংলা
মমতা সরকারের নতুন ফরমান, মুসলিম অধ্যুষিত স্কুলে বানাতে হবে ডাইনিং হল/The News বাংলা

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের নতুন ফরমান; মুসলিম অধ্যুষিত স্কুলে বানাতে হবে ডাইনিং হল। মিড ডে খাবার জন্য; এবার মুসলিম ছাত্র ছাত্রীরা পাবেন ডাইনিং হল। গত ২৫ তারিখে নবান্ন থেকে জারি হয়েছে; মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের এই নতুন সার্কুলার। বাংলার যে যে স্কুলে মুসলিম ছাত্র ছাত্রীদের পরিমাণ ৭০ শতাংশ বা তার বেশি; সেই সব স্কুলে বানাতে হবেল একটি করে ডাইনিং হল বা খাবার ঘর।

খাবার ঘর পাবে স্কুল ছাত্র ছাত্রীরা? কিন্তু কেন এমন ঘোষণা? রাজ্যের যেসব স্কুলে মুসলিম ছাত্র ছাত্রীদের পরিমাণ ৭০ শতাংশ বা তার বেশি; শুধু সেখানেই তৈরি হবে এই ডাইনিং রুম। কিন্তু যেখানে হিন্দু ছাত্র ছাত্রীর পরিমাণ বেশি; সেখানে কেন স্কুলে স্কুলে ডাইনিং রুম হবে না?

আরও পড়ুনঃ জনতার অসন্তোষে আক্রান্ত শাহরুখকে, মমতার ক্ষতিপূরণ কি নাম ধর্ম দেখে, প্রশ্ন বিজেপির

প্রশ্নটা তুলে দিয়েছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বৃহস্পতিবার রাত ৯ টা ৫০ নাগাদ; বিজেপি রাজ্য সভাপতি ও খড়গপুরের সাংসদ দিলীপ ঘোষ; তাঁর ফেসবুক পোস্ট ও পরে টুইট করে এই প্রশ্ন তুলেছেন। দিলীপ ঘোষ তাঁর সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে; সরকারি সেই সার্কুলার টারও ছবি দিয়েছেন।

আরও পড়ুনঃ ভারতের রঙ কমলা, পরিবর্তনের পিছনেও মোদীর হাত দেখছে বিরোধীরা

সেই সার্কুলারেই দেখা যাচ্ছে; রাজ্য সরকারের তরফ থেকে এই সার্কুলার জারি করা হয়েছে। সব জেলাশাসক ও স্কুল শিক্ষা দফতরে এই সার্কুলার পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। সব সরকারি ও সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত স্কুলেই এই অদ্ভুত সার্কুলার পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ মমতা নিজেই রাজ্যে বিজেপিকে আমন্ত্রণ করেছেন, বিস্ফোরক সুজন

তৃণমূলের তরফ থেকে জানান হয়েছে; নামাজ পরার জন্যই এই ঘর তৈরির নির্দেশ দেওয়ার জন্য; সব স্কুলের খোঁজ খবর নেওয়া শুরু হয়েছে। এর সঙ্গে হিন্দুদের বঞ্চনার কোন প্রশ্নই নেই। যদিও সরকারি তরফে এখনও কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

তবে এখানেই ফের মমতার মুসলিম তোষণ এর দিকেই আঙুল তুলেছে বিজেপি। বিজেপি রাজ্য রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ; সরাসরি হিন্দুদের প্রতি বঞ্চনার অভিযোগ তুলেছেন। কিন্তু হঠাৎ মুসলিম ছাত্র ছাত্রীদের জন্য; কেন ডাইনিং হল? হিন্দু ছাত্র ছাত্রীদের জন্য নয় কেন? গোটা বাংলা জুড়ে উঠে গেছে প্রশ্ন।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন