ভারতের চাপে, চিনে তৈরি পাকিস্তানের ‘যু’দ্ধজাহাজ’কে নোঙর ফেলতে দিল না বাংলাদেশ

106
ভারতের চাপে, চিনে তৈরি পাকিস্তানের 'যু'দ্ধজাহাজ'কে নোঙর ফেলতে দিল না বাংলাদেশ
ভারতের চাপে, চিনে তৈরি পাকিস্তানের 'যু'দ্ধজাহাজ'কে নোঙর ফেলতে দিল না বাংলাদেশ

ভারতের চাপে, চিনে তৈরি পাকিস্তানের ‘যু’দ্ধজাহাজ’কে; নোঙর ফেলতে দিল না বাংলাদেশ। এটাকে কূটনৈতিক জয় বলছে; ভারতের বিদেশমন্ত্রক। পাকিস্তানি র’ণতরীকে নোঙর ফেলতে দিল না বাংলাদেশ। পা’ক নৌ’সেনার কোনও ‘যু’দ্ধজাহাজ’কে বাংলাদেশের বন্দরে জায়গা দেওয়া হবে না; পরিস্কার জানিয়ে দিয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বাংলাদেশ সরকার। এর ফলে অর্থনৈতিক ভাবে ভেঙে পরা শ্রীলঙ্কায়; নোঙর ফেলতে বাধ্য হবে পাকিস্তানের এই র’ণতরী।

আগস্টের ৭ থেকে ১০ তারিখ পর্যন্ত, বাংলাদেশের চট্টগ্রাম নৌ-বন্দরে নোঙর ফেলার অনুমতি চেয়েছিল; পা’ক নৌ’বাহিনীর র’ণতরী ‘পিএনএস তৈমুর’। কিন্তু সেই আবেদন; পত্রপাথ খারিজ করে দেয় ঢাকা। তাৎপর্যের বিষয় হল এটাই; আগামী ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু মুজিবর রহমানের মৃ’ত্যুদিন। ১৯৭৫ সালে ওইদিনই ঢাকার ধানমান্ডিতে, পাকিস্তানের মদতে মুজিবকে খু’ন করে; বাংলাদেশ ফৌ’জের কিছু সেনা আধিকারিক ও সেনা। জাতির এই শো’কদিবসে পাকিস্তানের ‘যু’দ্ধজাহাজ’কে নোঙর ফেলতে দেওয়া; বঙ্গবন্ধুকে অসম্মান করার শামিল বলেই মনে করছে ঢাকা। তাছাড়া, শেখ হাসিনার আওয়ামি লিগ ও বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে; ভারত সরকার ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিজেপি দলের সম্পর্ক অত্যন্ত মজবুত। তাই ঢাকার এই পদক্ষেপকে; নয়াদিল্লির কূটনৈতিক জয় বলেই মনে করছেন অনেকেই।

আরও পড়ুন; বাংলায় আওয়াজ উঠে গেল, ‘এই গরু চোর’, ‘এই চাকরি চোর’

র’ণতরী ‘পিএনএস তৈমুর’ চিনে নির্মিত। চিনের সাংহাই বন্দর থেকে, পা’ক নৌ’সেনায় যোগ দিতে; করাচির উদ্দেশে রওনা দিয়েছে টাইপ ০৫৪ এ/পি ফ্রিগেটটি। মাঝপথে কম্বোডিয়া ও মালয়েশিয়ার সঙ্গে; মহড়া সেরেছে তৈমুর যু’দ্ধজাহাজ। সেখান থেকেই চট্টগ্রাম হয়ে করাচি যাওয়ার কথা ছিল জাহাজটির। কিন্তু বাংলাদেশ অনুমতি না দেওয়ায়; এবার শ্রীলঙ্কার কলম্বো বন্দরে নোঙর করবে পিএনএস তৈমুর। আগস্টের ১২ তারিখ; কলম্বো বন্দরে পৌঁছবে পাক ‘যু’দ্ধজাহাজ’টি।

পা’কিস্তান নৌ’বাহিনীর জন্য; চারটি টাইপ ০৫৪ এ/পি ফ্রিগেট তৈরি করছে চিন। এই শ্রেণির দ্বিতীয় জাহাজ হচ্ছে ‘তৈমুর’। জুনের ২৩ তারিখ পা’ক নৌ’সেনায়; আনুষ্ঠানিকভাবে শামিল হয় জাহাজটি। এর আগে জানুয়ারিতে, পা’ক নৌ’সেনার হাতে এসেছে; এই ক্লাসের প্রথম ফ্রিগেট ‘পিএনএস তুঘরিল’। আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, আরব সাগর ও ভারত মহাসাগরে ভারতীয় নৌ’সেনাকে ঘিরে ফেলতে; পা’কিস্তানের হাত মজবুত করছে চিন। বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কাকেও দলে টানার চেষ্টা করছে; কমিউনিস্ট দেশটির লাল ফৌজ। কড়া নজর রাখছে ভারতও।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন