মানুষের হুমকিতে বাংলায় ভূতেদেরও কথা বলার অধিকার কাড়া হল

6343
মানুষের হুমকিতে বাংলায় ভুতেদেরও কথা বলার অধিকার কেড়ে নেওয়া হল/The News বাংলা
মানুষের হুমকিতে বাংলায় ভুতেদেরও কথা বলার অধিকার কেড়ে নেওয়া হল/The News বাংলা

গতকাল, শুক্রবার মুক্তি পেয়েছে পরিচালক অনীক দত্তের ফিল্ম ‘ভবিষ্যতের ভূত’। কিন্তু শনিবারই রাজ্যের সমস্ত হল থেকে উঠিয়ে দেওয়া হয়েছে সিনেমাটিকে। কি কারণে সিনেমার প্রদর্শন বন্ধ কেউ জানে না। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক হল মালিক বলেছেন এই ফিল্ম বন্ধ করার জন্য ‘উপর’ থেকে ফোন এসেছিল। আর মানুষের ফোনেই বন্ধ ভূতেদেরও কথা বলার অধিকার।

আরও পড়ুনঃ সেনা মৃত্যুর প্রতিবাদে উত্তাল দেশ, ভারতীয় কোম্পানি টাকা ঢালছে পাকিস্তানে

গত কালই মুক্তি পেয়েছে পরিচালক অনিক দত্তের ‘ভবিষ্যতের ভূত’। সাংবাদিক সম্মেলনে কিছুদিন আগেই পরিচালক বলেছিলেন প্রথম ছবি ‘ভূতের ভবিষ্যৎ’-এর সিক্যুয়েল একেবারেই নয় এই ছবিটি। এই ছবিতে বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক বিষয়কে ভূতেদের মুখে সংলাপের মধ্য দিয়ে তুলে ধরতে চেয়েছিলেন তিনি। আর সম্ভবত তার জন্যই এবার তাঁকে বিপাকে পড়তে হল বলে ধারণা।

আরও পড়ুনঃ কাশ্মীরে আবার জঙ্গি হামলা, বিস্ফোরণে শহিদ আর্মি মেজর

শুক্রবার মুক্তি পাওয়ার পর শনিবারই রাজ্যের বিভিন্ন হল থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় ফিল্মটি। যার কারণ হিসাবে কোথাও যান্ত্রিক গোলযোগকে দায়ী করা হয়েছে, আবার অনেক হল থেকে কোনও উত্তরই দেওয়া হয়নি। এদিন সিনেমা দেখতে গিয়ে দর্শকরা জানতে পারেন, ফিল্মটির প্রদর্শন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। যে সমস্ত হলে চলচ্চিত্রটি মুক্তি পেয়েছে, সব জায়গাতেই এমন হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। ক্ষুব্ধ দর্শকরা বিভিন্ন হলে ফিল্মের ব্যানার, পোস্টার ইত্যাদি ছিঁড়ে ফেলেন বলে জানা যাচ্ছে।

আরও পড়ুনঃ কাশ্মীরে পাক হামলার পর কলকাতা থেকে গ্রেফতার বাংলাদেশি জামাত জঙ্গি

শুক্রবার মুক্তি পেয়েছে অনীক দত্তের ‘ভবিষ্যতের ভূত’ সিনেমাটি। আর শনিবারেই শহরের সিঙ্গেল স্ক্রিন ও মাল্টিপ্লেক্স গুলিতে বন্ধ করে দেওয়া হল সিনেমার প্রদর্শন। এবিষয়ে পরিচালকের অভিযোগ, তাঁকে আগে থেকে কিছু জানায়নি পুলিশ। তাছাড়া সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র পাওয়ার পরেই সিনেমাটি রিলিজ হয়। সেই সঙ্গে স্যোশাল মিডিয়ায় যথেষ্ট প্রশংসিত হয়েছে। শো হাউস ফুল হয়েছে বলেও জানান তিনি। শনিবার দ্বিতীয়বার প্রদর্শনের সময় শহরের এক প্রেক্ষাগৃহে গিয়েছিল টিম ‘ভবিষ্যতের ভূত’। আর তখনই প্রদর্শন বন্ধের কথা জানানো হয়।

আরও পড়ুনঃ পাকিস্তানকে বয়কট করে ভারতের হাত ধরল সৌদি আরব

অনেক জায়গায় সিনেমা চলাকালীন আচমকাই প্রদর্শন বন্ধ হয়ে যাওয়াতে ক্ষুব্ধ হন দর্শকরা। পাশাপাশি ক্ষোভ প্রকাশ করেন এই সিনেমার অভিনেতা-অভিনেত্রীরাও। কৌশিক সেন জানান, “সবাইকে সরব হতে হবে। হঠাৎ করে সিনেমার প্রদর্শন বন্ধ হতে পারে না”। সুপ্রিম কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি অশোক গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, “এটা অগণতান্ত্রিক কাজ”।

আরও পড়ুনঃ প্রাক্তন সেনাকর্তাকে রাজ্যপাল করে কাশ্মীরে পাক জঙ্গি নিধনে নামছে কেন্দ্র

সূত্রের খবর, সিনেমার প্রযোজকের কাছে সিনেমাটির বিষয় বস্তু জানতে চেয়ে চিঠি দেয় পুলিশ। বলা হয়, সিনেমার বিষয়বস্তু মানুষের ভাবাবেগকে আঘাত করছে। সেক্ষেত্রে প্রশ্ন উঠছে, সেন্সর বোর্ড কেন এধরণের সিনেমাকে ছাড়পত্র দিল? আর একবার ফিল্ম সেন্সর বোর্ড ছাড়পত্র দেবার পর কোন অধিকারে পুলিশ ফিল্ম নিয়ে জানতে চায়?

আরও পড়ুনঃ তদন্তের আগেই জঙ্গি হামলায় পাকিস্তানকে দোষী বলা ঠিক নয় বললেন মমতা

সূত্র মারফত জানা গিয়েছে অন্যান্য হলের পাশাপাশি হাইল্যান্ড পার্ক আইনক্স থেকে শনিবার সন্ধ্যা ৫টা ২৫ মিনিটের শোও তুলে দেওয়া হয়েছে এবং কারণ জিজ্ঞাসা করা হলে যান্ত্রিক গোলযোগকে দায়ি করেছে হল কর্তৃপক্ষ। জয়া সিনেমার ম্যানেজার আবার জানাচ্ছেন, “স্যাটেলাইট সংযোগ না থাকার ফলে এই ঘটনা ঘটেছে”। তবে পরিচালক অনিক দত্ত এখনও হলের এই বিষয়ে মুখ খোলেননি।

আরও পড়ুনঃ ব্যর্থ পার্থর শিক্ষা দফতর, মাধ্যমিকে প্রশ্নপত্র ফাঁসের হ্যাটট্রিক বাংলায়

প্রসঙ্গত কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে চতুর্দিকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছবি, পোস্টার, ব্যানার কেন রয়েছে তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন পরিচালক অনিক দত্ত। যাকে কেন্দ্র করে সরগরম হয়েছিল বিভিন্ন মহল। অনেকে আবার এই দুটি ঘটনার যোগসুত্র স্থাপনের চেষ্টা করছেন।

আরও পড়ুনঃ পাক জঙ্গিদের খুঁজে বের করে মারতে সেনাকে পূর্ণ স্বাধীনতা দিল মোদী সরকার

অনেকের অভিযোগ, বর্তমান রাজ্য সরকারকে নিয়ে ‘খিল্লি’ আছে “ভবিষ্যতের ভূত” এ। সিনেমায় এক প্রভাবশালী শাসক দলের নেতা (কৌশিক সেন) কে দেখানো হয়েছে! দেখানো হয়েছে আরাবুল, অনুব্রত এর মত দুজন নেতা কে! প্রাক্তন মেয়র শোভন ও প্রাক্তন মন্ত্রী মদন মিত্রর মত দেখতে দুজন এর ঘুষ খাওয়ার দৃশ্য(নারদা কান্ডের মত) দেখানো হয়েছে!

আরও পড়ুনঃ কাশ্মীরে ভয়াবহ জঙ্গি হামলায় শহিদদের মধ্যে বাংলার ২জন সেনা জওয়ান

জানা গেছে, এমনকি ‘উন্নয়ন’ নিয়ে একটা ‘খিল্লিমূলক’ গানও দেখানো হয়েছে! আর দেখিয়েছে ‘ফিল্ম সিটি’ বানানোর নামে গ্রামে জমি অধিগ্রহন। যেখানে হাজির হয়েছে যাদবপুরের ছাত্রছাত্রীরা, জমি আন্দোলন করতে! ফিল্ম জুড়ে দেখানো হয়েছে শাসক দলের ‘দস্যি দামাল মিষ্টি মানিক’দের দাপাদাপি! সংলাপে সিন্ডিকেট এর কথাও উঠে এসেছে! ফলে যা হওয়ার তাই হয়েছে, অভিযোগ এমনই।

আরও পড়ুনঃ দেশ জুড়ে বদলার দাবি, কাউকে ছাড়া হবে না জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

পরিচালক অনিক দত্ত জানিয়ে ছিলেন এই ছবিতে ভূতেদের মুখে এমন কিছু সংলাপ বসান হয়েছে যা তিনি নিজের জীবনে বিভিন্ন সময় প্রত্যক্ষ করেছেন। ২০১২ সালে ‘ভূতের ভবিষ্যৎ’ এর পর ২০১৩ সালে ‘আশ্চর্য প্রদীপ’ এবং ২০১৭ সালে ‘মেঘনাথ বধ রহস্য’ ছবি দুটিও অনিক দত্ত পরিচালনা করেছিলেন। ভূতের ভবিষ্যৎ ছবিটি ১০০ দিনে তিন কোটি টাকার ব্যবসা করেছিল। তবে এবার ভূতেদের কথা বলার অধিকার কে কাড়ল, সেটাই এখন প্রশ্ন।

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন