দাউদ ইব্রাহিমকে হত্যার পরিকল্পনা করায় ডি কোম্পানির হাতে পাকিস্তানে খুন

364
দাউদ ইব্রাহিমকে হত্যার পরিকল্পনা করায় ডি কোম্পানির হাতে পাকিস্তানে খুন/The News বাংলা
দাউদ ইব্রাহিমকে হত্যার পরিকল্পনা করায় ডি কোম্পানির হাতে পাকিস্তানে খুন/The News বাংলা

দাউদ ইব্রাহিমকে হত্যার জন্য নাকি পরিকল্পনা করেছিলেন তাঁরই এক পুরনো শিষ্য। আর সেই শিষ্য সম্প্রতি পাকিস্তানে খুন হয়েছেন। এখন প্রশ্ন উঠেছে, কে তাঁকে খুন করল? ভারতের মোস্ট ওয়ান্টেড অপরাধী দাউদের অন্যতম সহযোগী ছোটা শাকিলের নির্দেশেই নাকি পরিকল্পনাকারীকে হত্যা করা হয়েছে, এমনটাই জোর খবর। অপরাধ জগতে কথিত আছে, ‘চক্রান্তকারীকে আজও মাফ করে করে না ডি কোম্পানি’।

আরও পড়তে পারেনঃ পৃথিবী জুড়ে কমছে শিশু, চরম সমস্যায় বিশ্ব সমাজ

দাউদ ইব্রাহিমের অন্যতম ঘনিষ্ঠ সহযোগী ফারুখ দেবদিওয়ালা পাকিস্তানের করাচিতে খুন হয়েছেন। বলা হচ্ছে, ফারুককে হত্যার পেছনে কলকাঠি নেড়েছেন দাউদের অপর ঘনিষ্ঠ সহযোগী ছোটা শাকিল। ফারুককে হত্যার কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে, দাউদ ইব্রাহিমকে হত্যার ষড়যন্ত্রের পেছনে ছিলেন ফারুক। সেই খবর পেয়েই তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

যদি ফারুকের মৃত্যুর খবর সত্যি হয়ে থাকে, তবে ২০০০ সালে ফিরোজ কোকানির হত্যার পর ফারুক হলেন দ্বিতীয় ব্যক্তি, যাঁকে দাউদ ইব্রাহিমের পরিকল্পনায় পাকিস্তানে খুন করা হল।

আরও পড়তে পারেনঃ

চাঁদ ও মঙ্গল গ্রহে যাওয়ার উপযুক্ত স্পেসএক্স স্টারশিপ এর ছবি প্রকাশ

নতুন বছরের শুরুতেই খারাপ খবর, বড় বড় কোম্পানিতে কর্মী ছাঁটাই

করাচির জোগেশ্বরি এলাকায় থাকতেন ফারুক। অভিযোগ আছে ফারুক ইন্ডিয়ান মুজাহিদিনের সদস্যদের প্রশিক্ষণ দিতেন। ভারতের সন্ত্রাস দমন স্কোয়াড অনেক দিন ধরেই বলে আসছে যে ফারুক ভারতে অনেক অপরাধের সঙ্গে জড়িত। ভারতের গোয়েন্দা দফতরের তদন্ত অনুযায়ী, গুজরাটের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হারেন পান্ডিয়ার হত্যার পেছনে হাত ছিল এই ফারুক দেবদিওয়ালার।

ভারতের জন্ম নেওয়া ফারুক দেবদিওয়ালার নাম ছিল দেশের মোস্ট ওয়ান্টেডের তালিকায়। গত বছর সংযুক্ত আরব আমিরশাহির দুবাইয়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। সেই সুযোগে ফারুককে প্রত্যর্পণের জন্য নানা চেষ্টা চালায় ভারত। নয়াদিল্লির অভিযোগ ছিল, ইন্ডিয়ান মুজাহিদিনের হয়ে সদস্য সংগ্রহের কাজ চালিয়ে আসছিলেন ফারুক।

আরও পড়তে পারেনঃ

গুগলের ইউটিউবকে টেক্কা দিচ্ছে ফেসবুক ওয়াচ

ফের ভাঙছে হিমবাহ, ভয়ঙ্কর বিপদের মুখে পৃথিবী

কিন্তু দাউদের এই ঘনিষ্ঠ সহযোগীকে আড়াল করতে তৎপরতা শুরু করে পাকিস্তান। ইসলামাবাদ ভুয়া নথিপত্র পেশ করে ফারুকের প্রত্যর্পণ ঠেকিয়ে দেয়। দেশটি যে পাসপোর্ট জমা দিয়েছিল, তাতে ফারুককে পাকিস্তানের নাগরিক বলে উল্লেখ করা হয়েছিল।

ভারতের গণমাধ্যমের খবর, ভারতীয় বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সঙ্গে সম্প্রতি বেশ সুসম্পর্ক গড়ে উঠেছিল ফারুকের। এ খবর পৌঁছে যায় ছোটা শাকিলের কাছে। ফারুকের কাছে নাকি এ বিষয়ে জানতেও চেয়েছিলেন শাকিল। যদিও ভারতীয় কোন গোয়েন্দা সংস্থার সঙ্গে সব সম্পর্কের কথা অস্বীকার করেন ফারুক।

মনে করা হচ্ছে, এরপরই ফারুককে আর নির্ভরযোগ্য মানতে পারেননি দাউদ–শাকিল। পরে তাঁকে সরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। তবে ফারুকের মৃত্যু নিয়ে কোনো মন্তব্য করেনি ইসলামাবাদ ও ইন্টারপোল।

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

আরও পড়তে পারেনঃ

বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাবান মার্কিন প্রেসিডেন্টের পদে এক হিন্দু নারী

ভারতের কৃষকের মেয়ে আইএমএফের প্রধান অর্থনীতিবিদ

পশ্চিম জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী বলে স্বীকৃতি অস্ট্রেলিয়ার

ইসলামিক স্টেট সন্ত্রাসবাদীদের অত্যাচারে দেশ ছাড়ছে মানুষ

‘পেলেই ছিঁড়ে খাবে’, কঠিন লড়াই করে বেঁচে ইরাকের নারীরা

নিজের দেশেই হামলা চালাতে ইরাককে অনুমতি দিলেন প্রেসিডেন্ট আসাদ

অবিশ্বাস্য জয়, ২৯৯ আসনের মধ্যে ২৮৮ আসনে জিতে ফের ক্ষমতায় শেখ হাসিনা

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন