ফের কাটমানি নেওয়ার অভিযোগ তৃণমূল সভাপতির বিরুদ্ধে; অভিযোগ এবার খোদ দলীয় নেতার

5226
ফের কাটমানির অভিযোগ তৃণমূল সভাপতির বিরুদ্ধে; অভিযোগ এবার খোদ দলীয় নেতার/The News বাংলা
ফের কাটমানির অভিযোগ তৃণমূল সভাপতির বিরুদ্ধে; অভিযোগ এবার খোদ দলীয় নেতার/The News বাংলা

কাটমানির আগুনে জ্বলছে; রাজ্যের তৃণমূল নেতৃত্ব। সেই আগুনে ঘি ঢাললেন; পূর্ব মেদিনীপুরের তমলুক পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষ জয়দেব বর্মণ। দলের অস্বস্তি বাড়িয়ে; দলের সভাপতির বিরুদ্ধেই চিঠি দিলেন এই তৃণমূল নেতা।

জয়দেব বর্মণ তমলুকের তৃণমূল পরিচালিত; শহীদ মাতাঙ্গীনি পঞ্চায়েতের কর্মাধ্যক্ষ। শুক্রবার ওই পঞ্চায়েতের সভাপতি ও জেলা পরিষদের বিরুদ্ধে; অনৈতিক সম্পত্তি বৃদ্ধির অভিযোগ করেন তিনি। তিনি চিঠি লেখেন তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক শুভেন্দু অধিকারিকে। চিঠি পাঠান সাংসদ শিশির অধিকারিকেও।

আরও পড়ুনঃ বছরে কত টাকা কাটমানি তোলেন তৃণমূল নেতারা, হিসাব দেখে চমকে যাবেন মুকেশ আম্বানিও

জয়দেব বর্মণ লেখেন; “পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি দিবাকর জানা ও তার স্ত্রী তনুশ্রী জানা দলের নাম ব্যবহার করে; সঙ্গতিবিহীন সম্পত্তির মালিক হয়েছেন”। তিনি জানান; এর জন্য ওই এলাকায় দল সম্পর্কে; মানুষের ভুল ধারনা তৈরি হচ্ছে।

আরও পড়ুনঃ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের নতুন ফরমান, মুসলিম অধ্যুষিত স্কুলে বানাতে হবে ডাইনিং হল

তিনি আরও বলেন; “২০১২ থেকে ২০১৯ সালের মধ্যে উভয়ে প্রায় ৫-৬ কোটি টাকার জমি ক্রয় করেছেন”। এই সম্পত্তি বৃদ্ধি; সাধারণ মানুষের কাছে তাঁরা অবিশ্বাসের কারণ হয়ে উঠেছে। একই দলের সদস্য বলে তাঁদের ভুল বুঝছেন মানুষ।

জয়দেব বর্মণ দলকে এই বিষয়ে; দিবাকর জানার বিরুদ্ধে তদন্তের অনুরোধ করেন। এই অনৈতিক কাজের প্রভাব; লোকসভা ভোটে দেখা গেছে বলে আশঙ্কা তাঁর। সঠিক তদন্ত করে তাঁদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে অনুরোধ করেন জয়দেব বর্মণ। চিঠির সঙ্গে পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি দিবাকর জানা ও তার স্ত্রী তনুশ্রী জানার; সম্পত্তির পরিমাণ কিভাবে বেড়েছে; তারও খাতায় কলমে প্রমাণ দিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ ভারতের রঙ কমলা, পরিবর্তনের পিছনেও মোদীর হাত দেখছে বিরোধীরা

তিনি নৈতিকভাবে এই কাজকে সমর্থন করেন না বলে; পদত্যাগেরও আবেদন করেছেন দলের কাছে। তিনি বলেন; “আমি আজ থেকে দলের সব দায়িত্ব ও পঞ্চায়েত সমিতির খাদ্য কর্মাধ্যক্ষ পদ থেকে অব্যাহতি পাওয়ার জন্য; জেলা কমিটির নিকট আবেদন রাখছি”। তৃণমূল দলের আদর্শ নিয়েই তিনি থাকতে চান। একজন সাধারণ তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী হিসাবে; দলের সাথেই থাকতে ইচ্ছুক তিনি। আর এই চিঠি প্রকাশ্যে আসায়; ফের কাটমানি কেলেঙ্কারিতে চরম লজ্জায় তৃণমূল।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন