গোটা বিশ্বকে উড়িয়ে দিয়ে, ভারতের নতুন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন নিখাত জারিন

127
গোটা বিশ্বকে উড়িয়ে দিয়ে, ভারতের নতুন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন নিখাত জারিন
গোটা বিশ্বকে উড়িয়ে দিয়ে, ভারতের নতুন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন নিখাত জারিন

গোটা বিশ্বকে উড়িয়ে দিয়ে; ভারতের নতুন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন নিখাত জারিন। ২০১৯ সালে ৫২ কেজি বিভাগে বিশ্ব বক্সিংয়ে কোনও যোগ্যতা অর্জন পর্ব ছাড়াই; মেরি কমকে বেছে নেওয়া হয়েছিল। সঙ্গে সঙ্গে আপত্তি জানান; মাত্র ২২ বছরের নিখাত জারিন। ভারতীয় বক্সিং ফেডারেশনের কাছে দাবি জানান; যোগ্যতা অর্জন পর্বের জন্য। সেই সময় বক্সিং ফেডারেশনের প্রধান নির্বাচক রাজেশ ভান্ডারী বলেন; “ভেবে চিন্তেই মেরি কমকে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে; ভারতের পদক নিশ্চিত করাই আমাদের প্রধান লক্ষ্য; এই মুহূর্তে ৫২ কেজি বিভাগে পদক পাওয়ার যোগ্য দাবিদার মেরি কমই”। সে বার ব্রোঞ্জ পেয়েছিলেন মেরি কম।

ফেডারেশনের পক্ষ থেকে তখন টোকিয়ো অলিম্পিক্সের জন্যও; মেরি কমকেই বেছে নেওয়া হয়। জারিন মেনে নিতে পারেননি। তিনি ন্যায্য সুযোগের দাবি করেন। উত্তরে মেরির শ্লেষাত্মক প্রশ্ন ছিল; “কে নিখাত জারিন?”

তিনবছর পরে; এর উত্তর দিলেন নিখাত জারিন। তুরস্কে রচিত হল ইতিহাস। মাত্র পঞ্চম ভারতীয় মহিলা বক্সার হিসাবে; থাইল্যান্ডের জিতপং জুতামাসকে পরাস্ত করে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হলেন নিখাত জারিন। মেরি কম, সরিতা দেবী, জেনি আরএল এবং লেখা কেসির পর; মাত্র পঞ্চম ভারতীয় মহিলা হিসাবে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হলেন নিখাত জারিন।

যে বিশ্ব বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপে মেরি কম ছয়বার চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন; সেই প্রতিযোগিতায় নয়া বিশ্বচ্যাম্পিয়নের নাম নিখাত জারিন। ইস্তানবুলে বিশ্ব বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপের ফ্লাইওয়েট বিভাগের ৫২ কেজিতে; থাইল্যান্ডের অলিম্পিয়ান জিতপং জুতামাসকে হারান তিনি; খেলার ফল ৫-০। ২০২২ সালে, ভারতের নতুন বিশ্ব বক্সিং চ্যাম্পিয়ন নিখাত জারিন। সেই ৫২ কেজি বিভাগেই। মেরি কমের পরে; ভারতের নতুন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন নিখাত জারিন।

তেলেঙ্গনায় জন্ম এই তরুণীর; বাবা মহম্মদ জামিল আহমেদের কাছেই শুরু বক্সিংয়ের পাঠ। প্রায় এক বছর বাবার কাছে বক্সিং শেখেন জারিন। ২০০৯ সালে দ্রোণাচার্য পুরস্কার প্রাপ্ত বেঙ্কটেশ্বর রাওয়ের কাছে; প্রশিক্ষণ শুরু করেন তিনি। এক বছরের মধ্যে তাঁকে ‘গোল্ডেন বেস্ট বক্সার’; মনোনীত করা হয় তামিলনাড়ুর একটি প্রতিযোগিতায়।

২০১১ সালে তুরস্কে যুব বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপে; সোনা জিতেছিলেন জারিন। ২০১৪ সালে বুলগেরিয়াতে পেয়েছিলেন রুপো। সেই বছরেই সার্বিয়াতে আন্তর্জাতিক নেশনস কাপে; সোনা জেতেন তিনি। তাইল্যান্ড ওপেনে ২০১৯ সালে; রুপো জেতেন জারিন। তবে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে সোনা জয়টাই; এখনও পর্যন্ত তাঁর সেরা সাফল্য।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন