মুখ্যমন্ত্রীর যাত্রাপথে জয় শ্রী রাম বলা সমর্থকদের সংবর্ধনা বিজেপির

368
মুখ্যমন্ত্রীর যাত্রাপথে জয় শ্রী রাম বলা সমর্থকদের সংবর্ধনা বিজেপির/The News বাংলা
মুখ্যমন্ত্রীর যাত্রাপথে জয় শ্রী রাম বলা সমর্থকদের সংবর্ধনা বিজেপির/The News বাংলা

মুখ্যমন্ত্রীর গাড়ির যাত্রাপথে দিয়েছিলেন জয় শ্রী রাম ধ্বনি; আর তাতেই ক্ষিপ্ত হয়ে গাড়ি থেকে নেমে কটুক্তির অভিযোগে ওই ব্যক্তিদের গ্রেফতারের নির্দেশ দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সীতারাম মিদ্দা; সায়ন মিদ্দা ও বুদ্ধদেব দলুই নামে ৩ বিজেপি কর্মীকে গ্রেফতার করে চন্দ্রকোনা থানার পুলিশ। তাদেরই এবার পুরস্কার দিল বিজেপি নেতৃত্ব।

এরপরেই রাজ্যজুড়ে সেই ঘটনার সমালোচনা শুরু হয়; শুধু মাত্র রামের জয়ধ্বনি দেবার জন্য কেন কাউকে গ্রেফতার করা হল উঠতে থাকে সেই প্রশ্ন; চাপের মুখে শনিবার রাতেই ছাড়া হয় ৩ অভিযুক্তকে। বৃহস্পতিবার এই ৩ বিজেপি কর্মীকে সংবর্ধনা জানাল; চন্দ্রকোনা বিজেপি নেতৃত্ব।

আরও পড়ুনঃ ভারতীয় যুদ্ধজাহাজ আইএনএস বিরাটে বিদেশী নিয়ে ছুটি কাটিয়েছেন রাজীব গান্ধী

গত শনিবার চন্দ্রকোনা হয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়; একটি রোড শোতে যোগ দিতে যাওয়ার সময় চন্দ্রকোনার রাধাবল্লভপুরে; জয় শ্রী রাম ধ্বনি দিতে থাকে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। মুখ্যমন্ত্রী এরপরেই গাড়ি থেকে নেমে পড়েন; তৎক্ষনাৎ শ্লোগান দেওয়া ব্যক্তিরা পালাতে শুরু করে।

তাদের পালাতে দেখে মুখ্যমন্ত্রী জোর গলায় বলেন; কি রে; পালাচ্ছিস কোথায়? সব হরিদাসের দল। মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন; তাকে উদ্দেশ্য করে কটুক্তি করে বিজেপি কর্মীরা; এরপরই পুলিশকে তৎপর হতে নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী; গ্রেফতার করা হয় ৩ বিজেপি কর্মীকে।

আরও পড়ুনঃ অভিনেতা অভিনেত্রীদের সামনেই মদন মিত্রকে জয় শ্রী রাম ও মোদী স্লোগান

দিল্লি থেকে এবং রাজ্যে এসে দফায় দফায় নরেন্দ্র মোদী এবং অমিত শাহ; এই ঘটনার সমালোচনা করতে থাকেন। সোমবার ঝাড়গ্রামের জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে; এই ইস্যুতে অভিযোগ করেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন; এই রাজ্যে কেউ জয় শ্রী রাম বললেই তাকে গ্রেফতার করা হচ্ছে; এখানকার মুখ্যমন্ত্রী হারার ভয়ে এতটাই ভীত হয়ে পড়েছে যে গনতন্ত্রের গলা টিপে ধরছেন। প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন; রাম তাঁর শিরায় শিরায় রয়েছেন; রামই তাঁর অনুপ্রেরণা।

আরও পড়ুনঃ মুসলিম সেজে রমজানের শুভেচ্ছা জানানোয় ট্রোলের শিকার মিমি

মঙ্গলবার এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে অমিত শাহ বলেন; সাহস থাকলে মুখ্যমন্ত্রী অমিত শাহকে গ্রেফতার করে দেখাক; ভারতবর্ষের সংস্কৃতির সাথে রাম নাম জড়িয়ে আছে। ভারতে রামের নাম উচ্চারিত না হলে কি পাকিস্তানে উচ্চারিত হবে, প্রশ্ন তোলেন অমিত।

যাদের নিয়ে এত কান্ড; তাদের মধ্যে একজন বিজেপি যুব মোর্চার নেতা সীতারাম মিদ্দা; অন্য দুই জন সায়ন মিদ্দা ও বুদ্ধদেব দলুই। সাহসিকতার পুরষ্কার হিসেবে তিনজনকেই অবশেষে সম্মাননা জ্ঞাপন করলো বিজেপি।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন