মহারাষ্ট্রে সরকার গড়ছে বিজেপি, শিবসেনা বি’দ্রোহী বিধায়করা পৌঁছে গেলেন মহারাষ্ট্র থেকে অসমে

61
মহারাষ্ট্রে সরকার গড়ছে বিজেপি, শিবসেনা বি'দ্রোহী বিধায়করা পৌঁছে গেলেন মহারাষ্ট্র থেকে অসমে
মহারাষ্ট্রে সরকার গড়ছে বিজেপি, শিবসেনা বি'দ্রোহী বিধায়করা পৌঁছে গেলেন মহারাষ্ট্র থেকে অসমে
Simple Custom Content Adder

মহারাষ্ট্রে সরকার গড়ছে বিজেপি; শিবসেনা বি’দ্রোহী বিধায়করা পৌঁছে গেলেন মহারাষ্ট্র থেকে অসমে। টালমাটাল মহারাষ্ট্র সরকার। একঝাঁক বি’দ্রোহী বিধায়ককে নিয়ে, বেমালুম গায়েব হয়ে গেলেন; শিবসেনার বর্ষীয়ান নেতা ও রাজ্যের মন্ত্রী একনাথ শিন্ডে। দলবদলের জল্পনা যখন তুঙ্গে; ঠিক তখনই বিধায়কদের নিয়ে গুজরাতের সুরাতে ঘাঁটি গাড়েন বিক্ষুব্ধ শিবসৈনিকরা। দিনভর চলে জারি টানটান নাটক; এরপর বি’দ্রোহী শিবসনিক বিধায়করা পৌঁছে গেলেন বিজেপি শাসিত অসমের গুয়াহাটিতে।

রাজনৈতিক মহলের বক্তব্য, এমন ঘটনা যে ঘটতে পারে; তার আঁচ বিধান পরিষদের নির্বাচনেই স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল। ক্রস-ভোটিংয়ের জেরে বড়সড় ধাক্কা খেয়েছিল; শিবসেনার নেতৃত্বাধীন মহারাষ্ট্রের শাসক জোট মহা বিকাশ আগাড়ি। কিন্তু মঙ্গলবার আর বুধবার যা ঘটল, তারপর মহারাষ্ট্রে বড়সড় রদবদল স্রেফ সময়ের অপেক্ষা; বলেই ধারণা রাজনৈতিক মহলের।

আরও পড়ুনঃ দেশের পরবর্তী রাষ্ট্রপতি আদিবাসী নেত্রী দ্রৌপদী, রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে এনডিএ জোটের প্রার্থী ঘোষণা

বি’দ্রোহী একনাথ শিণ্ডে; শিবসেনার সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতাদের মধ্যে একজন। সূত্রের খবর, দলে তাঁর গুরুত্ব কমে যাওয়া নিয়ে; বহুদিন ধরে অসন্তুষ্ট ছিলেন থানের অঘোষিত ‘রাজা’। শিবসেনায় সঞ্জয় রাউতের গুরুত্ব বাড়াটাও; তাঁর ক্ষোভের অন্যতম কারণ। শিণ্ডের শিবিরের দাবি, তাঁর সঙ্গে অন্তত ২২ জন শিবসেনা বিধায়ক আছেন; আরও জনা পাঁচেক কংগ্রেস বিধায়ক তাঁর শিবিরে যোগ দেবেন। সবাই বিজেপি যোগ দিলে; মহারাষ্ট্রে একক সংখ্যাগরিষ্ঠ হয়ে সরকার গড়বে বিজেপিই।

আরও পড়ুনঃ প্রাক্তন বিজেপি নেতাকেই বিজেপির বিরুদ্ধে দাঁড় করালেন মমতা ও বিরোধীরা

একনাথ শিণ্ডের বিদ্রোহের পরে, মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে মঙ্গলবারই; দলের বিধায়কদের নিয়ে জরুরি বৈঠকে বসেন। তাতে শিবসেনার বিধায়কদের; একটা বড় অংশই অনুপস্থিত ছিল। ফলে চিন্তার ভাঁজ আরও বাড়ে শিবসেনা শিবিরে। তাতে আত’ঙ্কিত না হয়ে, পাল্টা শিণ্ডের বিরুদ্ধে; পদক্ষেপ করেন মুখ্যমন্ত্রী ঠাকরে। বি’দ্রোহী নেতাকে বিধানসভায় দলের পরিষদীয় দলনেতার পদ থেকে সরিয়ে; তার জায়গায় অজয় চৌধুরীকে করেছেন।

শিণ্ডে আবার পাল্টা প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন, “আমরা শিবসৈনিক, বাল ঠাকরের অনুগামী। উনি আমাদের হিন্দুত্ব শিখিয়েছেন। ঠাকরের আদর্শ আমাদের কখনও প্রতারণার মাধ্যমে; ক্ষমতায় আসতে শেখায়নি”। মহারাষ্ট্র বিধানসভায় আসনসংখ্যা ২৮৮; কিন্তু শিবসেনার বিধায়ক রমেশ লতকের মৃত্যু হওয়ায় সংখ্যাটি এখন ২৮৭। ফলে এই মুহূর্তে আস্থা ভোট হলে; ক্ষমতায় ফিরতে শাসকজোটকে ১৪৪টি আসন জিততে হবে।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন