গরু চুরি করতে এসে দড়ির ফাঁদে আটক বাঘমামা

288
Image: The News বাংলা

The News বাংলা, মালবাজারঃ গৃহস্থের ঘরে গরু চুরি করতে এসে দড়ির ফাঁদে ফাঁস লেগে আটকে গেল বাঘমামা। রবিবার জলপাইগুড়ির মালবাজার ব্লকের যোগেশ চন্দ্র চা বাগানের ভার্মালাইনের ঘটনা। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যপক চাঞ্চল্য ছড়ায় গোটা এলাকায়। বাঘের খবর ছড়িয়ে পড়তেই বাঘ দেখার ভিড় জমে যায় ওই এলাকায়। পরে বনদপ্তরের কর্মীরা এসে বাঘটিকে উদ্ধার করে জঙ্গলে ছেড়ে দেয়।

আরও পড়ুনঃ হাসপাতাল চত্বরে রাতভর ডিজে-নাচা-গানা নীরব পুলিশ

স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, এদিন স্থানীয় পুর্ন মাহালির বাড়ির পিছনে রাখা দড়ির ফাঁদে ফেঁসে আটকে যায় চিতা বাঘটি। পুর্ণবাবু জানান, এদিন সকালে হঠাৎই বাড়ির পেছন থেকে কোন আওয়াজ ভেসে আসার শব্দ পান তাঁরা। এরপর কান পাততেই কোন পশুর গোঙানির শব্দ শুনতে পান। ছুটে যান বাড়ির পেছনে।

আরও পড়ুনঃ মাছ ধরতে গিয়ে গলায় আটকাল জ্যান্ত কইমাছ

দেখেই চমকে ওঠেন! এ তো আস্ত একটা বাঘ। তিনি লক্ষ করেন, একটি চিতাবাঘ তার রাখা দড়ির মধ্যে ফেঁসে গিয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে বাড়ির অন্য লোকজনদের খবর দেন তিনি। নিমেষেই ছড়িয়ে পরে বাঘের খবর। গরু বাছুর চুরি করতেই বাঘমামার আগমন বলে জানান বাসিন্দারা।

আরও পড়ুনঃ বাংলার প্রায় দর্শক শূন্য আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব

এরমধ্যেই, প্রচুর মানুষ ভীড় করেন চিতাটিকে দেখতে। পরে খবর দেওয়া হয় আপালচাঁদ ও মালস্কোয়াডের বনকর্মীদের। খবর পেয়েই তাঁরা ছুটে আসেন। সমস্ত প্রস্তুতি নিয়েই বনকর্মিরা ওই চিতাবাঘটিকে ঘুমপাড়ানি গুলি করে কাবু করে। পরে গরুমারা জঙ্গলে নিয়ে গিয়ে ছেড়ে দিয়েছে বলে বনদপ্তর সুত্রে জানা গেছে।

আরও পড়ুনঃ চোরাই পথে কলকাতায় পাচারের আগেই ১০কেজি সোনা আটক

গরুমারা জঙ্গল থেকেই ওই বাঘটি লোকালয়ে চলে আসে বলেই জানিয়েছেন বন দপ্তরের আধিকারিকরা। বনে খাবার কম পাওয়াতেই বাঘটি খাবারের খোঁজে বাড়িতে চলে আসে বলেই মনে করা হচ্ছে।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন