বউ অদল বদল, বিকৃত যৌনাচারে ধর্ষণের অভিযোগ গৃহবধূর

918
বউ অদল বদল, বিকৃত যৌনাচারে ধর্ষণের অভিযোগ গৃহবধূর/The News বাংলা
বউ অদল বদল, বিকৃত যৌনাচারে ধর্ষণের অভিযোগ গৃহবধূর/The News বাংলা

The News বাংলা, কলকাতা: বিদেশে প্রায় স্বাভাবিক বলাই যায়। পর্ণ সাইটেও বেশ ‘কমন’। কিন্তু সংস্কৃতির বাংলায় এটা বিকৃত যৌনাচার। আর এই বিকৃত যৌনলিপ্সার নজির এবার শহর কলকাতায়। বালিগঞ্জ পার্কের অভিজাত পরিবারে যৌন নির্যাতনের শিকার হলেন গৃহবধূ। ভাসুরকে দিয়ে ধর্ষণ করানোর অভিযোগ উঠল স্বামীর বিরুদ্ধে। কড়েয়া থানায় অভিযোগ দায়ের নির্যাতিতার।

আরও পড়ুনঃ EXCLUSIVE: সংখ্যালঘুদের ধর্মে সুড়সুড়ি দিয়ে প্রকাশ্যে ভারতের টাকার কালোবাজারি

খাস কলকাতার বুকে বিকৃত পারিবারিক যৌনলিপ্সার অভিযোগ। নারকীয় যৌন নির্যাতনের শিকার এক গৃহবধূ। অভিজাত ব্যবসায়ী পরিবারে ভাসুরকে দিয়ে বধূকে ধর্ষণের অভিযোগে উত্তাল বালিগঞ্জ পার্ক এলাকা।

অভিযোগ, বিয়ের কিছুদিন পরেই ওই তরুণীকে বলা হয়, পরিবারের প্রথা অনুযায়ী ভাইদের মধ্যে স্ত্রী অদল বদল করা হয়। এক ভাইয়ের স্ত্রীর সঙ্গে অন্য ভাইকে যৌন সম্পর্কে লিপ্ত হতে হবে। অভিযোগ কড়েয়া থানায়।

বালিগঞ্জ পার্কে অভিজাত এলাকার আবাসনের তিনতলায় থাকে নামকরা স্বর্ণ ব্যবসায়ী সুরঞ্জন সেন ও নীলাঞ্জন সেনের পরিবার। অভিজাত পরিবারের অন্দরেই যে এত বড় কীর্তি হয়, তা বেরিয়ে পড়ল ওই পরিবারেরই গৃহবধূর নির্যাতনের কাহিনীতে। যদিও সব অভিযোগ অস্বীকার করেছে ওই পরিবার।

নির্যাতিতা ব্যবসায়ী সুরঞ্জন সেনের স্ত্রী। অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই পণের দাবিতে তাঁর ওপর অত্যাচার চলত। পরে স্বামী জোর করে তাঁকে নীলাঞ্জনের ঘরে পাঠিয়ে দিতেন। নীলাঞ্জনের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক তৈরি করার জন্য চাপ দেওয়া হত বলে অভিযোগ। তিনি প্রতিবাদ করায় তাঁর ওপর শুরু হয় অত্যাচার। অভিযোগ পেয়েই এই ঘটনার তদন্তে নামে পুলিশ।

অভিযোগ, পারিবারিক এই বিকৃত যৌনলিপ্সার নামে দিনের পর দিন শ্বশুরবাড়িতেই ধর্ষণের শিকার হয়েছেন তরুণী। শুধু তাই নয়, নির্যাতিতার আরও অভিযোগ তাঁর স্বামী নাকি তাঁকে বিকৃত যৌনতায় সঙ্গ দেওয়ার জন্য বাধ্য করত। প্রতিবাদ করতেই জুটত বেধড়ক মারধর।

আরও পড়ুনঃ

লোকসভার সঙ্গেই জম্মু কাশ্মীরে ভোট করতে প্রস্তুত মোদী সরকার

EXCLUSIVE: নতুন বছরে সুখবর, রাজ্য সরকারি কর্মীরা পাচ্ছেন বকেয়া ডিএ

বাংলায় আবার নক্ষত্র পতন, চলে গেলেন বিখ্যাত সাহিত্যিক

‘রাম’কে ছেড়ে আসা লক্ষণকে ‘হাতে’ নিয়ে বাংলায় তুলকালাম

ক্রমাগত নির্যাতনের জেরে শেষমেশ বাধ্য হয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হন ওই তরুণী। কড়েয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। বৃহস্পতিবার রাতেই বালিগঞ্জ পার্কের অভিজাত আবাসনের চারতলার ফ্ল্যাটে হানা দেয় পুলিশ। তরুণীর স্বামী সুরঞ্জন সেন ও ভাসুর নীলাঞ্জন সেনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শুক্রবার তাদের আদালতে তোলা হয়েছে।

পুলিশ আধিকারিকরা জানিয়েছেন, নির্যাতিতা বধূর অভিযোগ, বিয়ের কয়েক মাস পরেই ভাসুরের সঙ্গে যৌন সম্পর্কে লিপ্ত হতে জোর করে স্বামী। নীলাঞ্জন তাঁকে বোঝায়, এটা তাদের পারিবারিক প্রথা। দুই ভাই একে অন্যের সঙ্গে স্ত্রী অদল বদল করবে। প্রথমে প্রতিবাদ করেন নির্যাতিতা।

তারপর থেকে স্বামীর অনুমতিতেই ভাসুর তাঁকে ধর্ষণ করত। একইসঙ্গে স্বামীর বিকৃত যৌনতারও শিকারও হচ্ছিলেন বধূ। দিনের পর দিন এই পাশবিক নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে শেষমেশ পুলিশের দ্বারস্থ হন তিনি।

নির্যাতিতার বয়ানে উঠে আসছে আরও চাঞ্চল্যকর তথ্য। তাঁর দাবি, ওই পরিবারে এই ভাবেই অনান্য মহিলাদের ওপরও শারীরিক নির্যাতন করা হয়। ভাসুর কিংবা দেওরকে দিয়ে ‘ধর্ষণ’ করানো নাকি সেন পরিবারের ‘রীতি’। অর্থাত্ সেন পরিবারের পারিবারিক রেওয়াজই ছিল, এক ভাইয়ের স্ত্রীয়ের সঙ্গে অন্য ভাই শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হবেন।

এই বিষয়ে বাড়ির অন্যান্য মহিলারাও নাকি মুখ বন্ধ করে অত্যাচার সহ্য করছেন বলে অভিযোগ নির্যাতিতার। তিনিই প্রথম প্রতিবাদ জানান। আর তারপর থেকেই শুরু হয় অত্যাচার।

যদিও অভিযোগকারিনির শ্বশুর পাল্টা অভিযোগ করেছেন বৌমার বিরুদ্ধে। শ্বশুরের পাল্টা অভিয়োগ, বৌমাই বাইরে বিভিন্ন পুরুষের সঙ্গে রাত কাটান। তাঁর চারিত্রিক সমস্যা রয়েছে। তাঁকে একঘরে করা হয়েছিল। তাঁর সঙ্গে কেউ কথা বলছিলেন না। সাত মাস আগেই বৌমা বাড়ি ছেড়ে চলে গিয়েছেন। ডিভোর্স দেওয়ার কথাও আলোচনা হয়েছে।

ঘটনার হইচই পড়ে গিয়েছে গোটা এলাকায়। সত্যি কি চলত বউ অদল বদলের খেলা? তদন্ত শুরু করে সবাইকে জেরা করছে কড়েয়া থানার পুলিশ। এতদিন পর কেন নির্যাতিতা অভিযোগ করলেন, প্রশ্ন উঠেছে সেটা নিয়েও। সব মিলিয়ে বউ বদলের গল্পে উত্তাল রাজ্যের সোশ্যাল মিডিয়া।

আরও পড়ুনঃ

কংগ্রেস ছেড়ে মমতার ‘মহানায়িকা’ এবার মোদীর বক্স অফিসে

ভোরবেলায় শবরীমালা মন্দিরে ঢুকে ইতিহাস সৃষ্টি ‘মা দুর্গার’

দেশপ্রেম বাড়াতে স্কুলের রোল কলে এবার ‘জয় হিন্দ’ ও ‘জয় ভারত’

শীতের বাংলায় বৃষ্টি আনতে আন্দামান থেকে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘পাবুক’

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন