‘গরু চোর’ বলে বিদ্রুপ, আদালতের ভয়ে অনুব্রতকে ভর্তি নিল না এসএসকেএম

97
গরু চোর বলে বিদ্রুপ, আদালতের ভয়ে অনুব্রতকে ভর্তি নিল না এসএসকেএম
গরু চোর বলে বিদ্রুপ, আদালতের ভয়ে অনুব্রতকে ভর্তি নিল না এসএসকেএম

‘গরু চোর’ বলে বিদ্রুপ, আদালতের ভয়ে; অনুব্রতকে এবার ভর্তি নিল না এসএসকেএম। “অনুব্রত মণ্ডলকে হাসপাতালে ভর্তির প্রয়োজন নেই”; জানিয়ে দিল এসএসকেএম হাসপাতালের চিকিৎসকরা। সোমবার চিকিৎসার জন্য এসএসকেএম হাসপাতালে যান অনুব্রত; তাঁর চিকিৎসায় তৈরি হয় ৭ সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ড। বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতির কয়েকটি ক্রনিক রোগ ছাড়া; তেমন কোনও সমস্যা নেই বলেই জানান বিশেষজ্ঞরা। অনুব্রতর শারীরিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে তাঁরা জানিয়ে দেন; এই মুহূর্তে হাসপাতালে ভর্তির দরকার নেই বীরভূমের দাপুটে তৃণমূল নেতার। দীর্ঘক্ষণ হাসপাতালে কাটিয়ে বেরিয়ে যান তিনি।

এদিকে নিরাপত্তারক্ষী-দের বেষ্টনি নিয়ে হাসপাতাল ছাড়ার সময়, এসএসকেএম চত্বরে চিৎকার শোনা যায়; “গরু-চোর গরু-চোর”। কিছু রোগীর আত্মীয় রীতিমতো বিদ্রুপ করে; ‘গরু চোর’ বলে চিৎকার শুরু করেন হাসপাতালে। জোকা ইএসআই হাসপাতালের বাইরে, প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে দেখেও; এক মহিলা জুতো ছুঁড়ে মারেন। আলিপুর জেলে গিয়েও তাঁকে শুনতে হয়েছে; ‘চোর-চোর’ ডাক। এবার নিশানায় অনুব্রত। এসএসকেএম চত্বরে ‘গরু চোর’ ডাক ভেসে এল; দাপুটে তৃণমূল নেতাকে নিশানা করে।

আরও পড়ুনঃ পাঁচ বছরে উনিশজন তৃণমূল নেতার অস্বাভাবিক সম্পত্তি বৃদ্ধি, ইডিকে পার্টি করল হাইকোর্ট

গরু পাচার মামলায় সোমবার; অনুব্রত মণ্ডলকে তলব করেছিল সিবিআই। শারীরিক পরীক্ষার অজুহাতে, এদিনও সিবিআইয়ের হাজিরা; এড়িয়ে গেছেন অনুব্রত। এর আগেও গরু পাচার মামলায়, সিবিআই তাঁকে একাধিকবার নোটিস পাঠিয়েছে; প্রতিবারেই হাজিরা এড়িয়ে গিয়েছেন শারীরিক অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে। আগামী সপ্তাহে ফের তাঁকে; তলব করতে পারে সিবিআই।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন