সিবিআই ইডি তদন্ত থেকে বাঁচাতেই কি স্বামীকে রাজনীতিতে আনছেন প্রিয়াঙ্কা

332
সিবিআই ইডি তদন্ত থেকে বাঁচাতেই কি স্বামীকে রাজনীতিতে আনছেন প্রিয়াঙ্কা/The News বাংলা
সিবিআই ইডি তদন্ত থেকে বাঁচাতেই কি স্বামীকে রাজনীতিতে আনছেন প্রিয়াঙ্কা/The News বাংলা

প্রিয়াঙ্কার স্বামী রবার্ট আসছেন রাজনীতিতে। কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর স্বামী রবার্ট ভদ্র রাজনীতিতে আসছেন। রবিবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দেওয়া রবার্ট ভদ্রর এক পোস্ট তাঁর রাজনীতিতে নামার ইঙ্গিত দিচ্ছে। সেখানে তিনি মানুষের পাশে থাকার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন।

সম্প্রতি প্রিয়াঙ্কা গান্ধী কংগ্রেস সাধারণ সম্পাদক হিসেবে উত্তরপ্রদেশের পূর্বাংশে ৪০ টি বিধানসভা এলাকার দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। তার পরেই এমন ইঙ্গিত দিয়েছিলেন রবার্ট ভদ্র। এবার ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে সেটাই যেন স্বীকার করে নিলেন। রবার্ট ভদ্রের বিরুদ্ধে অর্থ পাচারের মামলার তদন্ত চলছে। ইডির জেরার মুখে পরেছেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ পাক সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে মোদীকেই যোগ্য বলছেন দেশের মানুষ

রবার্ট ভদ্র ফেসবুকে লিখেছেন, ‘রাজনীতিতে থেকে আমি মানুষের জন্য কাজ করতে চাইনি। কিন্তু যদি রাজনীতিতে যোগ দিয়ে তাদের জন্য বড় কিছু করা যায়, তাহলে কেন যোগ দেব না? তবে আমি রাজনীতিতে যোগ দেব কি না, তা জনগণই সিদ্ধান্ত নেবে’। আর এই লেখার পরই রাজনৈতিক মহলের ধারণা, এবার প্রিয়াঙ্কার মতই সরাসরি রাজনীতিতে যোগ দিচ্ছেন প্রিয়াঙ্কার স্বামীও।

এর আগে প্রিয়াঙ্কার স্বামী রবার্ট ফেসবুকে লিখেছিলেন, ‘দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বিশেষ করে উত্তরপ্রদেশে অনেক বছর ধরে আমি প্রচারের কাজ করছি। কাজ করার সময় আমার মনে হয়েছে মানুষের জন্য আমি আরও বেশি কিছু করতে পারি, কিছু পরিবর্তন আনতে পারি। ওই সময় মানুষের কাছ থেকে আমি অনেক ভালোবাসা, শ্রদ্ধা পেয়েছি’।

আরও পড়ুনঃ বিশ্ব জুড়ে প্রভাব ফেলে শান্তি পুরস্কার পেলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

নিজের ওপর আরোপিত অভিযোগ প্রসঙ্গে রবার্ট লিখেছেন, ‘এক যুগেরও বেশি সময় ধরে বিভিন্ন সরকার আমার পেছনে লেগে আছে। তারা আমার নাম ব্যবহার করে দেশের প্রধান ইস্যু ভিন্ন দিকে ঘোরানোর চেষ্টা করছে’। তিনি আরও লিখেছেন, ‘দেশের মানুষ ধীরে ধীরে বুঝতে পারছে আমার ওপর আরোপিত অভিযোগের কোনো সত্যতা নেই। অনেক মানুষের ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা আমি পেয়েছি। অনেকেই আমাকে সুন্দর ভবিষ্যতের জন্য শুভকামনা জানিয়েছেন’।

আরও পড়ুনঃ ভারতের নদী থেকে একফোঁটাও জল দেওয়া হবে না পাকিস্তানকে

রাজনৈতিক মহল মনে করছে, কংগ্রেসের হয়ে লোকসভা ভোটে দাঁড়াতেও পারেন প্রিয়াঙ্কার স্বামীও। সেক্ষেত্রে তাঁর বিরুদ্ধে যে অর্থ পাচারের মামলার তদন্ত চলছে সেটাও রাজনৈতিক ভাবে মোকাবিলা করা যাবে। পুরোটাই সরাসরি রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলেই দেখান যাবে মানুষকে। চাপা দেওয়া যাবে অর্থ পাচারের মামলার তদন্ত। অনেক বেশি করে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যটা দেখান যাবে।

আরও পড়ুনঃ চিরশত্রুকে শিক্ষা দিতে ভারত পাক যুদ্ধ চান বাবা রামদেব

তবে আইন আইনের পথে চলবে বলেই জানিয়েছেন ইডি আধিকারিকরা। তবে বিজেপিকে সরিয়ে কংগ্রেস কেন্দ্রে ক্ষমতায় এলে যে এসবের কোন কিছুরই প্রয়োজন হবে না, তা বলাই যায়। তবে মামলার তদন্ত থেকে বাঁচাতেই স্বামীকে রাজনীতিতে আনছেন প্রিয়াঙ্কা, বিজেপির এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে কংগ্রেস।

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন