মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন তুলে দেওয়া নিয়েও বড় সিদ্ধান্ত বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের

76
মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন তুলে দেওয়া নিয়েও বড় সিদ্ধান্ত বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের
মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন তুলে দেওয়া নিয়েও বড় সিদ্ধান্ত বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের

মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন তুলে দেওয়া নিয়েও; এবার বড় সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের। “অনিয়ম খুঁজে পেলে; মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন তুলে দেব”; এমনটাই পরিস্কার জানিয়ে দিয়েছেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের। “নতুন করে কোন অনিয়ম খুঁজে পেলে; মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন তুলে দেব”; মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনকে ৭০ হাজার টাকা জরিমানার নির্দেশ দিয়ে এমনটাই শুনিয়ে দিলেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়।

শুধু প্রাইমারি বা হাই স্কুলে নয়; বেনিয়ম এর জালে পশ্চিমবঙ্গ মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনও। “২০১০ সালে মাদ্রাসা শিক্ষক নিয়োগ আইনে, প্রশিক্ষণ-প্রাপ্তদের অগ্রাধিকার থাকলেও; ২০১৩-১৪-এর নিয়োগ প্রক্রিয়ায় তাঁরা বঞ্চিত হন”; এই অভিযোগ নিয়ে আদালতে মামলা হয়। উপযুক্ত প্রমাণ পেয়ে; সেই মামলাতেই এমন নির্দেশ বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের। “সাপের ল্যাজ দিয়ে কান চুলকাবেন না”, এদিন মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনকে জরিমানা করে; এই ভাষাতেই সতর্ক করেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়।

আরও পড়ুনঃ অভিষেকের বাড়িতে সিবিআই, কয়লা পাচারকাণ্ডে লক্ষ্য রুজিরা

এসএসসি, এসএলএসটি, প্রাইমারির পর; এবার মাদ্রাসায় শিক্ষক নিয়োগেও দুর্নীতির অভিযোগ। আর সেই মামলা-তেই মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনকে; মোটা অঙ্কের জরিমানা দেওয়ার নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। পাশাপাশি ১৫ দিনের মধ্যে প্রশিক্ষণপ্রাপ্তদের নাম অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে, সুপারিশ করতে হবে বলেও; নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।

মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন এর সঙ্গে, প্রশিক্ষণ-প্রাপ্তদের মামলার এদিনের শুনানিতে; বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন-কে ৭০ হাজার টাকা জরিমানা দেওয়ার নির্দেশ দেন। এই জরিমানার অর্থ ৭ জনকে; ১০ হাজার টাকা করে দিতে হবে। ভবিষ্যতে নিয়োগের ক্ষেত্রে যাঁরা মামলা করেছেন; তাঁদের অগ্রাধিকার দিতে হবে।

আরও পড়ুনঃ বাংলায় ‘হাত জড়ো’, রাস্তায় নামা বিক্ষো’ভকারীদের দেশে ফেরত পাঠাচ্ছে কুয়েত

যাঁরা বিশেষভাবে প্রশিক্ষণ-প্রাপ্ত বা প্রশিক্ষণ-প্রাপ্ত; তাদের অগ্রাধিকার দেওয়ার জন্য আইন রয়েছে। কিন্তু ২০১৩-১৪ সালে যে নিয়োগ হয়; সেখানে ২০১০ সালের আইন অর্থাৎ বিশেষভাবে প্রশিক্ষণ-প্রাপ্ত বা প্রশিক্ষণ-প্রাপ্তদের অগ্রাধিকার দেওয়া হয়নি। মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনের বিরুদ্ধে একাধিকবার; এই অভিযোগ এসেছে।

মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনের নিয়োগ নিয়েও, বারবার তৈরি হয়েছে জটিলতা; অভিযোগ উঠেছে অনিয়মের। এদিনের শুনানিতে বিচারপতি বলেন, এর আগে তাঁর এজলাসে এই সংক্রান্ত মামলা দুবার এসেছে; তৃতীয়বার এইরকম অভিযোগ এলে, “মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন তুলে দেওয়ার চিন্তা-ভাবনা করব”, হুঁশিয়ারি দিয়েছেন হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন