সুন্দরী প্রতিযোগিতা জিতে গায়ে ভারতীয় সেনার উর্দি পরলেন গরিমা

446
সুন্দরী প্রতিযোগিতা জিতে গায়ে ভারতীয় সেনার উর্দি পরলেন গরিমা/The News বাংলা
সুন্দরী প্রতিযোগিতা জিতে গায়ে ভারতীয় সেনার উর্দি পরলেন গরিমা/The News বাংলা

গরিমা যাদব, ২০১৭ সালে জিতেছিলেন ইন্ডিয়া’স মিস চার্মিং ফেস প্রতিযোগিতা। তারপর, আর আন্তর্জাতিক স্তরে সেই সৌন্দর্যের প্রতিযোগিতা লড়তে যাননি গরিমা। ঠিক করেছিলেন, দেশের জন্যে সরাসরি লড়বেন। তৈরি করলেন নিজেকে কম্বাইন্ড ডিফেন্স সার্ভিস বা সিডিএস পরীক্ষার জন্য। সেই পরীক্ষায় দুর্দান্ত ফল করে আর্মি অফিসার হলেন উত্তর ভারতের গরিমা যাদব।

আরও পড়ুনঃ নরেন্দ্র মোদীর চালে নীরব মোদীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা লন্ডনে

গরিমা যাদব মায়ের সাথে বড় হয়ে ওঠে শিমলার কাছে। তিনি শিমলার দাগসাই এলাকার আর্মি পাবলিক স্কুলে পড়াশুনো করতেন। স্কুলজীবন থেকেই পড়াশুনো কে বেশি প্রাধান্য দিতেন। স্কুল শেষ করে, দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্গত সেন্ট স্টিফেন্স কলেজ থেকে অর্থনীতিতে স্নাতক হন। তারপর থেকেই তিনি নিজেকে তৈরি করেছিলেন দেশের জন্যে কিছু করবেন বলে।

আরও পড়ুনঃ ক্ষমতায় ফের মোদী, ভোটের আগেই জানাচ্ছে সাট্টাবাজার

২০১৭ সালে চেন্নাইয়ের অফিসার্স ট্রেনিং একাডেমিতে ভর্তি হন। অন্যদিকে, একটা ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট এজেন্সিতে এমসির কাজও করতেন অবসর সময়। সেখান থেকেই আসে তার সৌন্দর্য প্রতিযোগিতায় নাম দেওয়ার সুযোগ। তারপরই, ইন্ডিয়াস মিস চার্মিং ফেস প্রতিযোগিতা অংশ গ্রহণ করে জিতেও যান সুন্দরী গরিমা।

আরও পড়ুনঃ মোদীর সঙ্গে সবাই চৌকিদার, অদ্ভুত প্রচার বিজেপির

সব সৌন্দর্য্যের প্রতিযোগিতার মত, এই প্রতিযোগিতাও আন্তর্জাতিক স্তরে হয় প্রত্যেক বছর। সেই হিসেবে ২০১৭ সালের নভেম্বর মাসে জেতার পর, নিয়ম অনুযায়ী, ইতালিতে ভারতের প্রতিনিধি হয়ে গরিমার যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তিনি যাননি।

গরিমা তখন নিজেকে তৈরি করছিলেন সিডিএস পরীক্ষার জন্য। অবশেষে ২০১৮ সালে সিডিএস পরীক্ষায় সারা ভারতবর্ষে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেন এই সুন্দরী। যোগ দেন, ভারতীয় সেনায়। হাতে তুলে নেন অস্ত্র, দেশ রক্ষার জন্য।

আরও পড়ুনঃ চলে গেলেন বর্ষীয়ান অভিনেতা চিন্ময় রায়

এই বিষয়ে, তিনি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন,”আমার মা আমায় একা হাতে মানুষ করেছেন। আমার সব রকম সিদ্ধান্তে, মাকে পাশে পেয়েছি সারাজীবন। আমি শুধু মাকে গর্ববোধ করাতে চাই”।

বিশ্বের সৌন্দর্য প্রতিযোগিতায় লড়ার সুযোগ পেয়েও ছাড়লেন কেন গরিমা? “প্রতিযোগিতায় নাম দেওয়াটা হঠাৎ হয়। আসল লক্ষ ছিল সিভিল সার্ভিস পরীক্ষা দিয়ে ভালো ফল করা। এর আগে বেশ কয়েক বার আইএএস পরীক্ষা দিয়েছিলাম, তবে তাতে উত্তীর্ণ হতে পারিনি। মনে হয়, আর্মি অফিসার হওয়াটাই আমার ভাগ্যে ছিল”, এক গাল হেসে উত্তর দেন সুন্দরি গরিমা।

আরও পড়ুনঃ ২০২৫ সালের পর ভারতের অংশ হবে পাকিস্তান, ঘোষণা আরএসএস নেতার

সুন্দরী প্রতিযোগিতায় নিজের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ ছেড়ে পরে নিয়েছেন ভারতীয় সেনার উর্দি। নিজের মায়ের পাশাপাশি দেশমাতাকেও গর্বিত করেছেন গরিমা যাদব।

আরও পড়ুনঃ মমতা কি পাকিস্তানের কণ্ঠ, বিতর্কিত প্রশ্ন নিৰ্মলার

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন