“গরু চোরের মেয়ে”, আদালত চত্বরে অনুব্রত-কন্যা সুকন্যাকে ধুয়ে দিলেন আরতি

61
"গরু চোরের মেয়ে", আদালত চত্বরে অনুব্রত-কন্যা সুকন্যাকে ধুয়ে দিলেন আরতি

“গরু চোরের মেয়ে”, আদালত চত্বরে অনুব্রত-কন্যা সুকন্যাকে ধুয়ে দিলেন আরতি। ‘গরু চোরের মেয়ে’, আদালতে ঢোকার মুখে অনুব্রত-কন্যা সুকন্যার উদ্দেশ্যে চলল স্লোগান। যার নেতৃত্ব দিলেন, অন্য একটি মামলার কারণে আদালতে আসা, বাংলার এক সাধারণ মহিলা আরতি মিত্র। অনুব্রত মণ্ডলকে যখন তাঁর বোলপুরের বাড়ি থেকে আটক করে আসানসোলে নিয়ে যাচ্ছিল সিবিআই, তখন সাধারন মানুষের তরফ থেকে ধেয়ে এসেছিল ‘গরু চোর’ স্লোগান। সেই একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটল হাইকোর্টে। বাবার মতো মেয়েকেও শুনতে হল, ‘গরু চোরের মেয়ে’ স্লোগান।

নিয়োগে-দুর্নীতি কাণ্ডে, বৃহস্পতিবার অনুব্রতের মেয়েকে তলব করা হয়েছিল হাইকোর্টে। সুকন্যা মণ্ডল যখন আদালত চত্বরে আসেন, তখন তাঁর দিকে ধেয়ে এল স্লোগান, ‘গরু চোরের মেয়ে’। মাস্ক-ঢাকা মুখ অবশ্য খোলেননি সুকন্যা, সোজা হেঁটে ঢুকে যান আদালতের অন্দরে। সুকন্যাকে ঘিরে সাংবাদিক ও পুলিশের ধাক্কাধাক্কি যখন চলছে, তখনই এক মহিলা চিৎকার করে স্লোগান দিয়ে ওঠেন, “গরু চোরের মেয়ে”।

পরে জানা যায়, তাঁর নাম নাম আরতি মিত্র। তিনি অন্য একটি মামলায়, হাইকোর্টে এসেছিলেন। আরতি নামের ওই মহিলা বলেন, “ওঁর বাপের কুকীর্তির কথা জানেন না? একজন এইট পাশ করা লোক, মাছের ব্যবসায়ী ছিলেন। আজ কোটি কোটি টাকার মালিক। আর আমরা গরিব মানুষ না খেয়ে মরছি”। আরতি জানিয়েছেন, “ন্যায়বিচার চাই। কোর্ট রয়েছে, বিচারপতিরা রয়েছেন বলে আমরা বেঁচে আছি। সাধারণের টাকা নয়ছয় হচ্ছে”। এরপরেই বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের প্রশংসা করে আরতি বলেন, “উনি ভগবান”।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন