নৃশংসভাবে কুকুর বাচ্চা খুনে দুই নার্সিং ছাত্রী গ্রেফতার, নজরে আরও কয়েকজন

771
ভয়াবহ নৃশংসতার নজির, পিটিয়ে পিটিয়ে মারা হয়েছে ১৭টি কুকুরকে/The News বাংলা
ভয়াবহ নৃশংসতার নজির, পিটিয়ে পিটিয়ে মারা হয়েছে ১৭টি কুকুরকে/The News বাংলা

চাপে পরে শেষ পর্যন্ত এন আর এস হাসপাতালের দুই নার্সিং ছাত্রীকে গ্রেফতার করল এন্টালি থানার পুলিশ। আটক করে দীর্ঘ জেরার পর মৌটুসি মণ্ডল ও সোমা বর্মণ নামে ওই দুই নার্সিং ছাত্রীকে শেষ পর্যন্ত গ্রেফতার করা হয়েছে। এদিকে দিনভর থানার সামনে ছাত্রীদের গ্রেফতারের দাবীতে তুমুল বিক্ষোভ দেখায় পশু প্রেমী সংগঠনগুলি।

আরও পড়ুনঃ ভয়াবহ নৃশংসতার নজির, পিটিয়ে পিটিয়ে মারা হয়েছে ১৭টি কুকুরকে

সোমবারই ময়নাতদন্তে জানা যায়, পিটিয়ে পিটিয়ে নৃশংস ভাবে মারা হয়েছে কলকাতার এন আর এস হাসপাতালে ১৭টি কুকুরকে। এদের মধ্যে ১৬টি বাচ্চা কুকুরের মৃতদেহ রবিবার উদ্ধার হয়। অভিযোগ ওঠে এন আর এস হাসপাতালের ছাত্রী নার্সদের দিকেই। ভাইরাল হয়ে যাওয়া ভিডিওতে ধরা পরে যায় তাদের দুই জন।

আরও পড়ুনঃ

সুপ্রিম কোর্টেও মমতার হাতে আটকে গেল মোদীর গেরুয়া রথ

মন্দিরে ঢুকে বিপ্লবের শাস্তি, পিটিয়ে বৌমাকে হাসপাতালে পাঠাল শাশুড়ি

ভয়াবহ নৃশংসতার নজির, হাসপাতালে পিটিয়ে পিটিয়ে মারা হয়েছে ১৭টি কুকুরকে/The News বাংলা
ভয়াবহ নৃশংসতার নজির, হাসপাতালে পিটিয়ে পিটিয়ে মারা হয়েছে ১৭টি কুকুরকে/The News বাংলা

মঙ্গলবার তাদের এন্টালি থানায় তুলে এনে দীর্ঘ জেরা করা হয়। জেরায় ভেঙে পরে অপরাধ স্বীকার করে নেয় অভিযুক্ত নার্সিং ছাত্রীরা। তাদের জেরা করে এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত বাকি নার্সদের নাম পরিচয় খুঁজছে এন্টালি থানার পুলিশ। আগামীকাল মৌটুসি মণ্ডল ও সোমা বর্মণ নামে ওই দুই নার্সিং ছাত্রীকে পশু হত্যার দায়ে আদালতে তুলবে পুলিশ।

“খুনি নার্স”। গোটা রাজ্যের মানুষ হতবাক নার্সদের এই কীর্তি দেখে। পিটিয়ে পিটিয়ে মারা হয়েছে কলকাতার এন আর এস হাসপাতালে ১৭টি কুকুরকে। এদের মধ্যে ১৬টি বাচ্চা কুকুরের মৃতদেহ রবিবার উদ্ধার হয়। একটি বড় কুকুরকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করলেও সোমবার তার মৃত্যু হয়। কুকুর নিধন রহস্যে তদন্তে কমিটি গঠন করতে হয় এন আর এস কর্তৃপক্ষকে। পিটিয়ে পিটিয়ে হত্যা, ময়নাতদন্তের রিপোর্টে উঠে এসেছিল এই হত্যার ভয়াবহতা।

আরও পড়ুনঃ

ভোটের আগে মানুষের মুখে হাসি ফোটাবে মোদী সরকারের অন্তর্বর্তী বাজেট

বাংলায় ক্ষোভ বাড়িয়ে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের বেতন বাড়াচ্ছে মোদী সরকার

ভয়াবহ নৃশংসতার নজির, হাসপাতালে পিটিয়ে পিটিয়ে মারা হয়েছে ১৭টি কুকুরকে/The News বাংলা
ভয়াবহ নৃশংসতার নজির, হাসপাতালে পিটিয়ে পিটিয়ে মারা হয়েছে ১৭টি কুকুরকে/The News বাংলা

জানা যায় বিষ নয়, লাঠি ও বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে পিটিয়ে মারা হয়েছে কলকাতার এন আর এস হাসপাতালে ১৬ টি বাচ্চা ও একটি বড় কুকুরকে। ময়নাতদন্তের রিপোর্টে উঠে আসে এক ভয়ংকর হত্যার কাহিনী। ১৭টি কুকুরের মধ্যে কারোর মাথার হাড় গুঁড়িয়ে গেছে। কারো খুলি গুঁড়িয়ে গেছে। কারোর ফেটে গেছে লিভার। কারোর শরীরের একটা হাড়ও আস্ত নেই। বাঁশ জাতীয় মোটা লাঠি দিয়ে পিটিয়ে পিটিয়ে মারা হয়েছিল বাচ্চা কুকুরদের।

রবিবারই ১৬টি কুকুর ছানার মৃতদেহকে ঘিরে তুমুল উত্তেজনা ছড়ায় এনআরএস হাসপাতালে। হাসপাতালের সুপারের অফিস ঘরের সামনের পার্কিং লট থেকে তিনটি কালাে প্লাস্টিকের ব্যাগ থেকে এই দেহগুলি উদ্ধার করেন এক পশুপ্রেমী। ভাইরাল ভিডিও থেকে দুজন নার্স ছাত্রীকে শনাক্ত করা হয়। অভিযুক্তদের খুঁজে বের করে বহিষ্কার করা হবে, বলে এন আর এস কর্তৃপক্ষ আগেই জানিয়ে দিয়েছে।

আরও পড়ুনঃ

‘ত্রিশূলে কনডম’, অসমের শিলচরে হিন্দুত্ত্ববাদী বিক্ষোভের মুখে কবি শ্রীজাত

বাংলায় দুর্গা পুজো বন্ধ করার চক্রান্ত করছে মোদীর বিজেপি, মারাত্মক অভিযোগ মমতার

হাসপাতালের ডেপুটি সুপার দ্বৈপায়ন বিশ্বাসের নেতৃত্বে এন আর এস হাসপাতালের নিজস্ব তদন্ত কমিটিও স্বীকার করে নিয়েছে, এই হত্যার ঘটনায় সরাসরি তাঁদের ছাত্রী নার্সরাই জড়িত। সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখার পর, ডেপুটি সুপার দ্বৈপায়ন বিশ্বাস স্বীকার করা নিয়েছেন, ঘটনাটি হাসপাতালের ভিতরেই ঘটেছে, আর এই হত্যাকাণ্ডে নার্সরাই জড়িত। পুলিশ তদন্তে সেই একই রিপোর্ট উঠে আসে।

দেখুন পিটিয়ে মারার সেই ভয়ংকর ভিডিওঃ

এরপরেই ভিডিও ফুটেজ দেখেই মৌটুসি মণ্ডল ও সোমা বর্মণ নামে ওই দুই নার্সিং ছাত্রীকে শনাক্ত করা হয়। মঙ্গলবার সকালেই তাদের এন্টালি থানায় তুলে এনে দীর্ঘক্ষণ জেরা করা হয়। টানা জেরায় ভেঙে পরে নিজেদের অপরাধ স্বীকার করে নেয় ওই দুই নার্সিং ছাত্রী। তাদের জেরা করে এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত বাকি নার্সদেরও নাম পরিচয় পেয়েছে এন্টালি থানার পুলিশ।

ইতিমধ্যেই এই নিয়ে মামলা রুজু করেছে এন্টালি থানার পুলিশ। কুকুর খুনিদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪২৯ ধারায় ও ২০১ ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। দোষী প্রমানিত হলে ৫ বছর পর্যন্ত জেলও হতে পারে এই ছাত্রীদের।

আরও পড়ুনঃ

শ্রীজাত হেনস্থা ঘটনায় বাংলার বুদ্ধিজীবিদের মুখোশ খুললেন তসলিমা

জেলাশাসকের স্ত্রী কাণ্ডে অপসারিত পুলিশ অফিসার পেলেন ‘মুখ্যমন্ত্রী সাহসী পুরস্কার’

ভয়াবহ নৃশংসতার নজির, হাসপাতালে পিটিয়ে পিটিয়ে মারা হয়েছে ১৭টি কুকুরকে/The News বাংলা
ভয়াবহ নৃশংসতার নজির, হাসপাতালে পিটিয়ে পিটিয়ে মারা হয়েছে ১৭টি কুকুরকে/The News বাংলা

রবিবার নীলরতন সরকার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে ১৬টি কুকুরছানার মৃতদেহ উদ্ধার হয়। তারপরই প্রকাশ্যে আসে ২৬ সেকেন্ডের একটি ভিডিও। তাতে দেখা যাচ্ছে, এন আর এস হাসপাতাল চত্বরে দুই মহিলা লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করছে কুকুরছানাদের। প্রমাণিত হয়ে যায় এরা ওই হাসপাতালেরই নার্স।

আরও পড়ুনঃ

বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাবান মার্কিন প্রেসিডেন্টের পদে এক হিন্দু নারী

ভারতের কৃষকের মেয়ে আইএমএফের প্রধান অর্থনীতিবিদ

ভয়াবহ নৃশংসতার নজির, হাসপাতালে পিটিয়ে পিটিয়ে মারা হয়েছে ১৭টি কুকুরকে/The News বাংলা
ভয়াবহ নৃশংসতার নজির, হাসপাতালে পিটিয়ে পিটিয়ে মারা হয়েছে ১৭টি কুকুরকে/The News বাংলা

ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে রক্তাক্ত অবস্থায় পাশে পড়ে রয়েছে তাদের মা, যে সোমবার মারা যায়। আর্তনাদ করে প্রাণভিক্ষার আবেদন জানাচ্ছে কুকুর ছানাগুলি। তবুও মোটা শক্ত লাঠির এলোপাথাড়ি মার পড়েছে ছোট্ট শরীরগুলির ওপর। এইভাবেই ১৬টি ছোট্টপ্রাণকে পিটিয়ে পিটিয়ে মৃত্যুর কোলে পাঠানো হয়েছে। ভিডিওর ভয়াবহতা নাড়িয়ে দিয়েছে সবাইকে।

অভিযুক্ত ওই দুই নার্স ও আরও বাকি নার্সরা কেন এমন করল? তাদের মানসিক অবস্থা কী, তা ভাবাচ্ছে পুলিশকে। কুকুর পেটানোর ভিডিও ইতিমধ্যেই ভাইরাল। গোটা রাজ্যে শোরগোল পরে গেছে এই ভয়ংকর হত্যাকাণ্ডে। সেবাই যাদের ধর্ম। তারাই এত নৃশংস? নার্সদের নৃশংসতা নাড়া দিয়েছে গোটা রাজ্যকে।

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

আরও পড়ুনঃ

নতুন বছরের শুরুতেই খারাপ খবর, বড় বড় কোম্পানিতে কর্মী ছাঁটাই

ভারতীয় সেনাবাহিনীতে ‘ভাবনার বিপ্লব’ ভাবনা কস্তুরীর হাত ধরে

মমতার বাছাইয়ে কারা হবেন বাংলার ৪২টি লোকসভা আসনের তৃণমূল প্রার্থী

মোদীর প্রকল্পে আর টাকা দেবেন না মমতা, কেন্দ্র রাজ্য সম্পর্ক তলানিতে

একদিনে বহিষ্কৃত দুই তৃণমূল সাংসদ, দিদিকে ছেড়ে মোদীর দলে আর কে কে

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন