কলকাতা মেডিক্যালের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান পদ থেকে অপসারিত নির্মল মাজি

81
কলকাতা মেডিক্যালের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান পদ থেকে অপসারিত নির্মল মাজি
কলকাতা মেডিক্যালের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান পদ থেকে অপসারিত নির্মল মাজি

কলকাতা মেডিক্যালের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান পদ থেকে; অপসারিত নির্মল মাজি। শেষ পর্যন্ত চৈতন্য হল রাজ্য সরকারের; অপসারিত নির্মল মাজি। একের পর এক অভিযোগ উঠেছে; তৃণমূল বিধায়ক নির্মল মাজির বিরুদ্ধে। এবার ব্যবস্থা নিল নবান্ন। বৃহস্পতিবার থেকেই নির্মল মাজির জায়গায় দায়িত্বে; আরজিকর হাসপাতালের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান চিকিৎসক সুদীপ্ত রায়। দায়িত্ব নিয়েই মেডিক্যাল কলেজের স্বাস্থ্য ও সম্মান পুনরুদ্ধারের; প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন সুদীপ্ত রায়। কিন্তু একের পর এক বেফাঁস মন্তব্যেই; কি পদ হারালেন নির্মল? তা নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক ও চিকিৎসক মহলে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজ্যের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দফতরের তরফে; একটি বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়। সেখানেই জানানো হয়, নির্মল মাজিকে সরিয়ে; তাঁর জায়গায় কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের রোগী কল্যাণ সমিতির দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে শ্রীরামপুরের বিধায়ক সুদীপ্ত রায়কে। আরজি কর মেডিক্যাল কলেজের; রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান সুদীপ্তবাবু। এছাড়াও হেলথ ইউনির্ভাসিটির ফিন্যান্স কমিটির চেয়ারম্যানও তিনি। সেই সুদীপ্ত রায়কে কলকাতা মেডিক্যালের দায়িত্ব দেওয়াতেই; কানাঘুষো শুরু হয়েছে বিভিন্ন মহলে।

আরও পড়ুনঃ স্কুলের চাকরি গেলেও কলেজ শিক্ষক হতে চলেছেন অঙ্কিতা অধিকারী

চিকিৎসকদের সংগঠন ডক্টরস ফোরাম; নির্মল মাজির বিরুদ্ধে ধারাবাহিকভাবে অভিযোগ এনেছিল। কর্তব্যরত চিকিত্‍সককে হুমকি, কখনও মেডিকেল কলেজের সুপার, প্রিন্সিপালদের হুঁশিয়ারি দিয়ে; বারবার বিতর্কে জড়িয়েছেন তৃণমূলের এই চিকিৎসক বিধায়ক। অবশেষে একটি ১০ লাইনের নির্দেশিকা জারি করে; কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান পদ থেকে নির্মল মাজিকে অপসারণ করল নবান্ন।

আরও পড়ুনঃ রাজ্যপাল আর নয়, বাংলার বিশ্ববিদ্যালগুলির আচার্য হবেন মুখ্যমন্ত্রী

নির্মল মাজির বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ তুলে; মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠিও দিয়েছিলেন অনেকেই। এই অপসারণ একের পর এক বিতর্কের ফলশ্রুতি; বলেই মনে করা হচ্ছে। তবে এই বিষয়ে রাজ্যের তরফে; কোনও কারণ জানানো হয়নি। সামগ্রিক অবস্থা বিচার বিবেচনা করেই, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুমতি নিয়েই; নির্মল মাজির বিরুদ্ধে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। এমনটাই মনে করছে; রাজ্যের রাজনৈতিক মহল।

নির্মল মাজির বিভিন্ন কর্মকাণ্ড নিয়ে, রাজ্য সরকারের বারবার সমালোচনা করেছে; বিরোধী দলগুলিও। এবার কিছুটা হাঁফ ছেড়ে বাচবে রাজ্য সরকার; মনে করছে রাজনৈতিক মহল। এই সিদ্ধান্তে খুশি ডাক্তারদের সংগঠন-গুলি; তবে ফোনে পাওয়া যায়নি নির্মল মাজিকে।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন