ফিরহাদের মুকুল সাফাই, বিজেপির কোন নেতার সঙ্গে বন্ধুত্ব নয়

252
ফিরহাদের মুকুল সাফাই, বিজেপির কোন নেতার সঙ্গে বন্ধুত্ব নয়/The News বাংলা
ফিরহাদের মুকুল সাফাই, বিজেপির কোন নেতার সঙ্গে বন্ধুত্ব নয়/The News বাংলা

বন্ধুত্ব হবে তৃনমূল তৃণমূলে। বিজেপির কোন নেতার সঙ্গে কোন সম্পর্ক রাখা যাবে না। বিধাননগরের মেয়র সব্যসাচী দত্তকে সতর্ক করে এমন নির্দেশই দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নির্দেশের কথা জানিয়ে দিলেন পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। সেই সঙ্গে সবকিছুর জন্য মুকুল রায়ের চাল ও সংবাদমাধ্যমকেই দায়ি করলেন ববি হাকিম।

আরও পড়ুনঃ রায়গঞ্জ মুর্শিদাবাদ সিপিএম কে ছেড়ে বাংলায় আসন রফা কংগ্রেসের

শুক্রবার বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের সঙ্গে নিজের সল্টলেকের বাড়িতেই রুদ্ধদ্বার বৈঠক। আর শনিবার দলের উত্তর ২৪ পরগনা জেলা কমিটির বৈঠকে গরহাজির। আর তার জেরেই দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কোপে পরেন বিধাননগরের মেয়র ও রাজারহাট নিউটাউনের তৃণমূল বিধায়ক সব্যসাচী দত্ত। শুক্রবারের মুকুল-সব্যসাচীর বৈঠকে বেজায় ক্ষুব্ধ মমতা, তৃণমূল সূত্রে এমনটাই খবর। সেই বিষয় নিয়ে রবিবারই বিধায়ক সব্যসাচী দত্তকে সতর্ক করল দল।

আরও পড়ুনঃ মোদীর উদ্বোধন করা সার্কিট বেঞ্চের ফের উদ্বোধন মমতার

এপ্রিলে লোকসভা ভোট। নির্বাচন কমিশন যে কোন দিন ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণা করবে। সবদলই প্রচার শুরু করে দিয়েছে। আর এর মধ্যেই শুক্রবার সন্ধ্যায় বিধাননগরের মেয়র ও রাজারহাট নিউটাউনের তৃণমূল বিধায়ক সব্যসাচী দত্তের বাড়িতে হাজির হয়েছিলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। তাহলে কি সব্যসাচী দত্তও মুকুল রায়ের হাত ধরে বিজেপির পথে? রাজনৈতিক মহলে জল্পনা তুঙ্গে ওঠে। আর এরপরেই ক্ষুব্ধ মমতা গোটা বিষয়টা ফিরহাদ হাকিমকে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন। রবিবার সল্টলেকে এক বৈঠকে বিধায়ক সব্যসাচী দত্তকে শেষবারের মত সাবধান করা হল।

আরও পড়ুনঃ বিধাননগরের মেয়র সব্যসাচীর বাড়িতে মুকুল, জল্পনা তুঙ্গে

শুক্রবার সন্ধ্যায় বিধাননগরের মেয়র ও রাজারহাট নিউটাউনের তৃণমূল বিধায়ক সব্যসাচী দত্তের বাড়িতে হাজির হন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। তাঁর সঙ্গে ছিলেন ফ্যাশন ডিজাইনার অগ্নিমিত্রা পল। ঘণ্টাখানেক থেকে সব্যসাচীর বাড়ি থেকে চলে যান অগ্নিমিত্রা। কিন্তু তারপরেও সব্যসাচীর বাড়িতে দীর্ঘক্ষণ ছিলেন মুকুল রায়। চলে রুদ্ধদ্বার বৈঠক।

আরও পড়ুনঃ কংগ্রেস স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বদল করত আমরা ঘরে ঢুকে মেরেছি, বললেন মোদী

বারাসত কেন্দ্রে সব্যসাচী দত্তকে দাঁড় করাতে চায় বিজেপি, কানাঘুষো বহুদিনের। যদিও এই জল্পনা বারবার উড়িয়েই দিয়েছেন বিধাননগরের মেয়র। কিন্তু লোকসভা ভোটের প্রচারের মাঝেই এইভাবে সব্যসাচী দত্তের বাড়িতে মুকুল রায়ের আসাটা সেই জল্পনাকে আরও উস্কে দেয়। আর এরপরেই দলের নেতার এহেন আচরণে ক্ষেপে যান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সব্যসাচী দত্তের ক্ষমতা খর্ব করা হচ্ছে এমনটাই তৃনমূল সূত্রে খবর ওঠে। রবিবার সংবাদমাধ্যমের কাছেই বিধায়ক সব্যসাচী দত্তকে ভুল স্বীকার করতে বলেন ফিরহাদ হাকিম।

আরও পড়ুনঃ টিভি চ্যানেল দেখা নিয়ে ভুল বোঝাচ্ছে কেবল অপারেটররা

তবে মুকুল রায়, শুক্রবার সব্যসাচী দত্তর বাড়ি থেকে বেরিয়ে জানিয়েছিলেন, “সব্যসাচী আমার ভাইয়ের মত, আমাদের বহুদিনের আলাপ। সব্যসাচীর স্ত্রী ভাল আলুর দম বানান। তাই লুচি আলুর দম খেতে এসেছিলাম”। রাজারহাট নিউটাউনের তৃণমূল বিধায়ক সব্যসাচী দত্তও ‘The News বাংলা’-কে সেই একই কথা জানিয়েছিলেন। লুচি আলুর দম খেতেই মুকুল রায়ের আগমন। তবে তাতে যে বাংলার রাজনৈতিক মহলে জল্পনা কমবে না, সেটা ভাল করেই জানতেন বিধাননগরের মেয়র।

আরও পড়ুনঃ মরে গিয়েও তৃণমূল বিজেপির হাত থেকে রেহাই পেলেন না বড়মা

তাহলে কি বিজেপির সঙ্গে দর কষাকষি শুরু করলেন তৃণমূল বিধায়ক। না কি দলে নিজের প্রভাব প্রতিপত্তি আরও বাড়ানোর জন্য বিজেপি নেতার সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করলেন? রাজনৈতিক মহলে এই নিয়ে নানান প্রশ্ন ঘোরাফেরা করছে। তবে ঘটনা সত্য হলেও ‘লুচি আলুর দম’ এর গল্পটা যে ভোটের বাজারে বিশেষ পাত্তা পাবে না সেটা ভাল করেই জানতেন সব্যসাচী দত্ত ও মুকুল রায় দুজনেই।

আরও পড়ুনঃবৈশাখীর হাত ধরে বিজেপিতে শোভন, জল্পনা তুঙ্গে

তবে এই বৈঠকের পর যে দলনেত্রী যে এভাবে ক্ষুব্ধ হবেন সেটা মনে হয় আঁচ করতে পারেননি রাজারহাট নিউটাউনের তৃণমূল বিধায়ক সব্যসাচী দত্ত। রবিবারই সল্টলেকের নেতাদের নিয়ে বৈঠকে বসেন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। সেই বৈঠকে বিধায়ক সব্যসাচী দত্ত হাজির ছিলেন। বৈঠকে মুকুল রায়ের সঙ্গে কোনরকম সম্পর্ক রাখা যাবে না বলে পরিস্কার জানিয়ে দেওয়া হয়। কোন বিজেপি নেতার সঙ্গে কোন বন্ধুত্ব রাখা যাবে না বলেই সবাইকে জানিয়ে দেওয়া হয়।

আরও পড়ুনঃ শহর কলকাতায় ১০০০ কেজি বিস্ফোরক উদ্ধার

রাজনৈতিক মহল মনে করছে, আজই ভোটের দিন ঘোষণা। সামনেই লোকসভা ভোট। সেইদিকে তাকিয়েই আপাতত বিধায়ক সব্যসাচী দত্তকে সতর্ক করেই ছাড়া হল। বিধায়ক সব্যসাচী দত্তও এদিন পরিস্কার জানিয়ে দেন, তিনি তৃণমূলেই আছেন, তৃণমূলেই থাকবেন।

আরও পড়ুনঃ এয়ার স্ট্রাইকের প্রমান চাইছেন নেতারা, লজ্জায় দল ছাড়লেন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক
আরও পড়ুনঃ বিধাননগরের মেয়র সব্যসাচীর বাড়িতে মুকুল, জল্পনা তুঙ্গে

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন