থানার সামনেই হেনস্থা; নিষ্ক্রিয় পুলিসের উপরে ভরসা নেই মিস ইন্ডিয়ার

487
থানার সামনেই হেনস্থা; নিষ্ক্রিয় পুলিসের উপরে ভরসা নেই মিস ইন্ডিয়ার/The News বাংলা
থানার সামনেই হেনস্থা; নিষ্ক্রিয় পুলিসের উপরে ভরসা নেই মিস ইন্ডিয়ার/The News বাংলা

রাতের শহরে মেয়েদের নিরাপত্তা কোথায়? উত্তর চাইছে গোটা বাংলা। গত মঙ্গলবার রাতে, প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া ঊষসী সেনগুপ্তকে হেনস্থার অভিযোগ ওঠে। কাজ সেরে; বাইপাসের পাঁচতারা হোটেল থেকে ফেরার সময়; বাইক নিয়ে তাঁর গাড়ি ধাওয়া করে কয়েকজন সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের যুবক; গাড়ি ঘিরে চিৎকার; এমনকী কাঁচ ভেঙে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ করেন ঊষসী।

এই ঘটনায় ইতিমধ্যে সাত জনকে গ্রেফতার করেছে চারুমার্কেট থানার পুলিশ; মঙ্গলবার রাতেই নিজের ফেসবুকে গোটা ঘটনার বিবরণ দিয়ে পোস্ট করেছেন ঊষসী। তাতে তিনি লিখেছেন; বাইপাসের ধারের একটি পাঁচতারা হোটেল থেকে তিনি উবার বুক করেন। তারপর তাঁদের গাড়ি যখন এলগিন রোডের কাছাকাছি; তখন তাঁদের গাড়িতে একটি বাইক এসে ধাক্কা মারে।

আরও পড়ুন হাসপাতালের বিভাগীয় প্রধানের বর্ণবিদ্বেষের শিকার হয়ে প্রতিভাবান ডাক্তারের আত্মহত্যা

হেনস্থাকারীদের মধ্যে কারও মাথাতেই হেলমেট ছিল না বলে জানিয়েছেন তিনি। প্রায় সাথেসাথেই ১৫ জন যুবক সেখানে জড়ো হয়ে; গাড়ি থেকে উবার চালককে টেনে বার করার চেষ্টা করেন এবং তারপর চালককে মারধরও করে তারা। রাত প্রায় দেড়টা পর্যন্ত চলে এই ঘটনা।

এরপর তিনি ময়দান থানায় যান অভিযোগ করতে; কিন্তু ময়দান থানার পুলিশ; এলাকাটি তাঁদের নয় বলে; অভিযোগ নিতে অস্বীকার করে বলে জানা যায়। তারা ঊষসী সেনগুপ্তকে ভবানীপুর থানায় যেতে বলেন। পরে চারু মার্কেট থানার বিরুদ্ধেও পুলিশি নিস্ক্রিয়তার অভিযোগ করে প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া।

আরও পড়ুন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মুখোমুখি হবেন না মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

ফেসবুকে তিনি লিখেছেন; “চারু মার্কেট থানায় অভিযোগ দায়ের করতে আমি যখন সেখানে যাই। উপস্থিত সাব-ইন্সপেক্টর আমায় বলেন; এই অভিযোগ একমাত্র ভবানীপুর থানাতেই হতে পারে। আমি তখন কী করব কিছু বুঝে উঠতে পারছিলাম না। থানাতেই চিৎকার-চেঁচামেচি শুরু করি। সেখানে কোনও মহিলা পুলিশ ছিল না। চিৎকার চেঁচামেচি করে কাজ হয়”।

কলকাতা শহর যে; মেয়েদের জন্য রাতে একেবারেই সুরক্ষিত নয়; তা আরও একবার প্রমাণিত হল ক্তন মিস ইউনিভার্স ইন্ডিয়া উষসী সেনগুপ্তের সঙ্গে ঘটা মঙ্গলবার রাতের ঘটনায়। রাজনৈতিক নেতা-নেত্রীরা যতই বলুন; মেয়েরা এই শহরে আজও অসুরক্ষিত; বলছেন বাংলার সাধারণ মানুষ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন